ঢাকা     সোমবার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ২১ ১৪২৯ ||  ০৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

নির্মাণ হয়নি হিলি বন্দরে ট্রাক টার্মিনাল, নাকাল শহরবাসী

মোসলেম উদ্দিন, দিনাজপুর  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:০০, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২   আপডেট: ১১:০৪, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২
নির্মাণ হয়নি হিলি বন্দরে ট্রাক টার্মিনাল, নাকাল শহরবাসী

দিনাজপুরের হিলিতে বাংলাদেশের দ্বিতীয় স্থলবন্দর অবস্থিত। প্রতিবছর সরকার এই বন্দর দিয়ে কয়েক শো কোটি টাকা রাজস্ব পেয়ে থাকে। তথাপি এই বন্দরে নেই কোনো ট্রাক টার্মিনাল। যার কারণে প্রতিনিয়ত বন্দর শহরে লেগে থাকে যানজট। এতে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয় পথচারী থেকে শুরু করে ট্রাক-বাস চালকদের।

১৯৮৬ সালে হিলি স্থলবন্দরের কার্যক্রম শুরু হয়। কিন্তু প্রতিষ্ঠার তিন যুগ পেরিয়ে গেলেও এখনো এই  বন্দর এলাকায় নির্মাণ করা হয়নি ট্রাক টার্মিনাল। এছাড়া প্রতিদিন ভারত এবং বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে কয়েক’শ পণ্যবাহী ট্রাক এই বন্দরে আসে। ট্রাকগুলোকে রাস্তার ওপর এলোমেলোভাবে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়। বন্দরের সড়কগুলো সংকীর্ণ হওয়ার কারণে প্রতিনিয়তই সৃষ্টি হচ্ছে যানজটের। তাই দ্রুত স্থলবন্দর এলাকায় ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী। 

জুয়েল নামের একজন পথচারী রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘আমরা হিলিবাসী অনেক অবহেলিত, আমাদের কষ্টের কথা কে শুনবে। জন্মের পর থেকেই হিলির সড়কের কোনো উন্নতি দেখিনি। সড়কগুলো আবার সংকীর্ণ। প্রতিনিয়তই এই সড়কে যানজট লেগেই থাকে। রাস্তায় ভারতীয় ট্রাকসহ আমাদের দেশের ট্রাকগুলো এলোমেলোভাবে দাঁড়িয়ে থাকে যার কারণে যানজট লাগে। যদি এখানে টার্মিনাল থাকতো তাহলে এতো যানজট লাগতো না।’

কয়েক জন ভ্যান-রিকশা চালক বলেন, ‘হিলিতে সব সময় যানজট লেগেই থাকে। প্রচুর গাড়ি যাওয়া আসার কারণে যানজট লাগে। আমরা যাত্রী নিয়ে সময় মতো গন্তব্যে পৌঁছাতে পারি না। যদি হিলিতে ট্রাক টার্মিনাল থাকতো তাহলে অনেক ভালো হতো।’

পেঁয়াজ বোঝাই ট্রাকচালক মতিয়ার রহমান বলেন, ‘ঢাকা থেকে এসেছি। ট্রাকে পেঁয়াজ লোড দিয়ে আবার ঢাকায় যাচ্ছি। কিন্তু রাস্তায় যে যানজট তাতে হিলি শহর থেকে বের হতে অনেক সময় লেগে যাবে। রাস্তার দুই পাশেই খালি ট্রাক দাঁড়িয়ে থাকার জন্য যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।’

রাস্তার পাশে খালি গাড়ি নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা চালক ফরিদুল ইসলাম বলেন, ‘এখানে ট্রাক টার্মিনাল খুবি দরকার। টার্মিনাল না থাকার কারণে পোর্টে প্রবেশ করার জন্য রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। এতে আমাদের প্রচুর সময় নষ্ট হচ্ছে।’ 

দিনাজপুরগামী বাসচালক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘আমাদের তো টাইমের গাড়ি, সময় মতো বাসস্ট্যান্ডে পৌঁছাতে হয়। কিন্তু হিলির যানজটের কারণে নির্দিষ্ট সময় গন্তব্যে যেতে পারি না। হিলির রাস্তা-ঘাট এমনিতেই ছোট তার ওপর অনেক ট্রাক রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকে।’

হিলি আমদানি-রপ্তানিকারক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত বলেন, ‘একটি ট্রাক টার্মিনাল হিলিবাসীর দীর্ঘদিনের চাওয়া। টার্মিনাল না থাকার কারণে প্রতিনিয়ত যানজটের সৃষ্টি হয়। আমি ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণের জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেছি। আশা করছি অচিরেই টার্মিনাল নির্মাণের কাজ শুরু হবে।’

পানামা পোর্ট লিঙ্কের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন প্রতাপ মল্লিক বলেন, ‘আমাদের এই বন্দরে ট্রাক টার্মিনাল নেই। ফলে পণ্যবাহী ট্রাকের মালামাল আনলোড করে খালি ট্রাকে লোড করতে প্রচুর সময় লাগে। এতে সড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। টার্মিনাল থাকলে দ্রুত সময়ে মধ্য কাজটি করা সম্ভব হতো। আমরা ইতোমধ্যে ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণের বিষয়টি নিয়ে পৌর মেয়র এবং উপজেলা চেয়ারম্যানের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা দ্রুত সময়ের মধ্যে সমস্যাটি সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন।’

মাসুদ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়