ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৯ নভেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ১৫ ১৪২৯ ||  ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

ধর্ষণের পর কিশোরীকে হাসপাতালে রেখে পালালেন প্রেমিক

মাদারীপুর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:৪৯, ৪ অক্টোবর ২০২২   আপডেট: ১১:৫২, ৪ অক্টোবর ২০২২
ধর্ষণের পর কিশোরীকে হাসপাতালে রেখে পালালেন প্রেমিক

মাদারীপুরে এক কিশোরীকে (১৭) পানির সঙ্গে নেশাদ্রব্য খাইয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে প্রেমিকের বিরুদ্ধে। ঘটনার পর প্রেমিক নিজেই ওই শিক্ষার্থীকে হাসপাতালে ভর্তি করেন এবং পালিয়ে যান বলে জানা গেছে। 
 
অভিযুক্ত যুবকের নাম সজীব সরদার (২৩)। তিনি মাদারীপুর সদর উপজেলার পাচখোলা ইউনিয়নের স্বনির্ভর গ্রামের বাসিন্দা।

হাসপাতাল ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সজীবের সঙ্গে এক কিশোরীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। রোববার সজিব কৌশলে ওই কিশোরীকে মাদারীপুর শহরের পুরান বাজার এলাকার একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে যান। সেখানে নেশাদ্রব্য খাইয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ করেন তিনি। একপর্যায় কিশোরী অসুস্থ্য হয়ে পড়লে রাত ১০টার দিকে তাকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন সজীব। হাসপাতালের রেজিষ্টারে মেয়েটির ভুল নাম ঠিকানা লিখে পালিয়ে যান তিনি। ঘটনাটি জানাজানি হলে রাতেই ভুক্তভোগীর পরিবার ও সদর থানা পুলিশ হাসপাতালে যায়।

ভুক্তভোগী কিশোরী বলেন, গত রমজান মাসের কিছুদিন আগে এক আত্মীয় বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠানে যাই। সেখানে সজীবের সঙ্গে আমার পরিচয় হয়। প্রায় এক বছর ধরে সজীবের সঙ্গে আমার প্রেমের সম্পর্ক। সজীব কৌশলে পুরান বাজারের একটি হোটেলে নিয়ে যায় আমাকে। সেখানে সে আমাকে একটি বোতলে পানি খেতে দেয়। পানি পানের কিছু সময় পরই আমি অচেতন হয়ে যাই। সে আমার ক্ষতি করেছে। আমি তার কঠোর শাস্তির দাবি জানাই।’

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. রিয়াদ মাহমুদ বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে ওই কিশোরীকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ধর্ষণের বিষয়টি জানার পরে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। পরীক্ষার রিপোর্ট পেলে স্পষ্টভাবে বলা যাবে কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে কিনা।’

মাদারীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনোয়ার হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘ঘটনা জানার পরে সদর হাসপাতালে আমাদের পুলিশ গিয়ে খোঁজ-খবর নিয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ দিলে পুলিশ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।’

বেলাল রিজভী/ মাসুদ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়