ঢাকা     শুক্রবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ২৪ ১৪২৯

গৃহবধূর নগ্ন ভিডিও ধারণ ও ধর্ষণের অভিযোগ, যুবক গ্রেফতার 

রংপুর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৩৯, ৫ অক্টোবর ২০২২  
গৃহবধূর নগ্ন ভিডিও ধারণ ও ধর্ষণের অভিযোগ, যুবক গ্রেফতার 

সোহেল রানা

রংপুরের কাউনিয়া উপজেলায় নগ্ন ভিডিও ধারণ এবং সেই ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার কথা বলে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় সোহেল রানা (২৭) নামে পুলিশের ভুয়া এসআইকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতার সোহেল রানা লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার ছিরাগঞ্জ চুলকা গ্ৰামের ফজলুর রহমানের ছেলে। গ্রেফতারের তথ্য নিশ্চিত করেছেন রংপুর মহানগর হারাগাছ থানার ওসি রেজাউল করিম। তিনি জানান, আজ বুধবার (৫ অক্টোবর) দুপুরে গ্রেফতার ভুয়া পুলিশ সদস্য পরিচয়ধারী সোহেলকে রংপুর আদালতে পাঠানো হয়েছে। 

মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় হারাগাছ পৌরসভার বানুপাড়া কলেজ মাঠ এলাকা থেকে সোহেল রানাকে আটক করা হয়।

মামলার এজাহারে অভিযোগ করা হয়েছে, প্রায় দুই বছর আগে ওই নারীর সঙ্গে মুঠোফোনে পরিচয় হয় সোহেলের। এ সময় নিজেকে পুলিশের এসআই পরিচয় দেন সোহেল। মুঠোফোনে কথা বলার একপর্যায়ে সোহেলের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক হয়। এ সময় মুঠোফোনে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ভিডিও কলে ওই গৃহবধূর নগ্ন ভিডিও ধারণ করেন। সেই নগ্ন ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করেন এবং ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে রাখেন সোহেল।

গত ২৬ সেপ্টেম্বর সোহেল রানা হাতীবান্ধা থেকে হারাগাছে আসেন এবং ধর্ষণের ভিডিও পরিবারের কাছে দেখানোর ভয় দেখিয়ে ওই নারীকে নিজ বাড়িতে ধর্ষণ করেন। এরপর গত সোমবার (৩ অক্টোবর) রাত ১১টার দিকে আবারও হারাগাছে গিয়ে ওই নারীর ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন সোহেল। এ সময় ওই নারীর চিৎকারে প্রতিবেশীরা সোহেলকে আটক করেন। পরে হারাগাছ পৌরসভার কাউন্সিলরের পরামর্শে আটক সোহেলকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

হারাগাছ থানার ওসি রেজাউল করিম জানান, এ ঘটনায় ওই নারী নিজে বাদী হয়ে সোহেলকে আসামি করে মামলা করেছেন। শারীরিক পরীক্ষার জন্য তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) পাঠানো হয়েছে। 
 

আমিরুল/বকুল 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়