ঢাকা     বুধবার   ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ২৫ ১৪২৯

বান্দরবানে প্রবারণা ঘিরে নিরাপত্তা বলয়

বান্দরবান প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:১৫, ৮ অক্টোবর ২০২২  
বান্দরবানে প্রবারণা ঘিরে নিরাপত্তা বলয়

বান্দরবানে শুরু হয়েছে বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব প্রবারণা পূর্ণিমা বা ওয়াগ্যোয়াই পোয়েঃ। উৎসবকে ঘিরে মারমা পল্লীগুলোতে চলছে উৎসবের নানা আয়োজন। আর এই উৎসব আনন্দ যাতে নির্বিঘ্নভাবে সম্পন্ন হয় সেজন্য গড়ে তোলা হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা বলয়।

প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, প্রবারণা উৎসবকে ঘিরে কয়েক স্তরের নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হবে জেলার উৎসবস্থল গুলো। নিরাপত্তা জোরদার করতে প্রস্তুত থাকবে পুলিশের সবকটি ইউনিট ছাড়াও র‌্যাব সদস্যরা। নজরদারিতে থাকবে গোয়েন্দা টিম। এছাড়াও সিসি ক্যামেরায় রাখা হবে নজরদারি।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রবারণা বা ওয়াগ্যোয়াই পোয়েঃ উৎসবের অন্যতম আকর্ষণ বৌদ্ধ বিহারগুলোত রং-বেরংয়ের হাজারো ফানুস ওড়ানো ও রথটানা। ৮ অক্টোবর থেকে ১১ অক্টোবর জেলা শহরের পুরাতন রাজবাড়ি মাঠে আয়োজন করা হয়েছে চার দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য কর্মসূচি। এসব আয়োজনের মধ্যে রয়েছে সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া অনুষ্ঠান, ছোয়াইং দান, বিশেষ প্রার্থনা, ফানুস উড়ানো, বর্ণাঢ্য রথযাত্রা ও রথ উৎসর্গসহ বিভিন্ন কর্মসূচি। 

উৎসবে আদিবাসী বৌদ্ধধর্মানুসারীরা রাত জেগে পাড়ায় পাড়ায় আদিবাসী তরুন-তরুণীরা বৈচিত্রময় নানা ধরনের পিঠাপুলি তৈরির কাজ করেন। 

বান্দরবান মহা ওয়াগ্যোয়াই পোয়েঃ উৎযাপন কমিঠির সাধারণ সম্পাদক শৈটিংওয়াই মারমা বলেন, ‘প্রতি বছরের মতো এবারো মাহা ‘ওয়াগ্যোয়াই পোয়েঃ‘  পালনের জন্য ইতোমধ্যে সব প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ উৎসবকে ঘিরে জোরদার করা হচ্ছে নিরাপত্তা ব্যবস্থা। 

আদিবাসীদের এই উৎসবের ফানুস ওড়ানো ও রথযাত্রা দেখতে প্রতি বছরের মত এবারও দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পর্যটকরাও এসে ভিড় করেছেন বান্দরবানের হোটেল মোটেলগুলোতে। তিল ধরণের ঠাই নেই এসব হোটেলে। পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিতেও নেওয়া হয়েছে নিরাপত্তা। 

বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম শহীদুল ইসলাম বলেন, প্রবারণা উৎসবে সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পোশাকধারী ও সাদা পোশাকে আইনশৃংখলা বাহিনী নিয়োজিত থাকবে। এছাড়াও অনুষ্ঠানটি ভিডিও করে রাখা হবে। 

প্রসঙ্গত, বৌদ্ধ অনুসারীরা তিন মাসব্যাপী বর্ষাবাস শেষে শীল পালনকারীরা প্রবারণা পূর্ণিমার দিনে বৌদ্ধ বিহার থেকে নিজ সংসারে ফিরে যাবেন।

বাসু দাশ/ মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়