ঢাকা     শুক্রবার   ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ২০ ১৪২৯

ইউপি সদস্যকে মারধর: গ্রেফতার সাজু কারাগারে 

নীলফামারী প্রতিনিধি  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:২৫, ৬ ডিসেম্বর ২০২২  
ইউপি সদস্যকে মারধর: গ্রেফতার সাজু কারাগারে 

নীলফামারী জেলা পরিষদ নির্বাচনে সদস্য পদে পরাজিত হন আতাউর রহমান সাজু নামে এক প্রার্থী। এতে ভোটের জন্য দেওয়া টাকা ফেরত চেয়ে আব্দুল খালেক নামে এক ইউনিয়ন পরিষদ সদস্যকে পরিষদের ভিতরে ঢুকে মারধর করার অভিযোগে সাজুকে গ্রেফতার করে পুলিশ। মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। 

আতাউর রহমান সাজু সাবেক নীলফামারী জেলা পরিষদ সদস্য ছিলেন। তিনি জোড়াবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন মো. আজিজুল ইসলামের ছেলে। ইউপি সদস্য আব্দুল খালেক জোড়াবাড়ী ইউপি’র ৩নং ওয়ার্ডের আাজজার মিয়া হাটের মো. মফিজুল ইসলামের ছেলে।

ইউপি সদস্য আব্দুল খালেক বলেন, ‘জেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোট দেওয়ার জন্য সাজুর বড় ভাই ২০ হাজার করে টাকা দিয়েছিলেন। অন্য প্রার্থীরাও তো টাকা আমাদের উপহার দিয়েছেন। কেউ টাকা চাচ্ছেন না। তিনি গত সোমবার (৫ ডিসেম্বর) টাকা ফেরত চেয়ে আমার উপর হামলা করেন। আমার পকেটে রাখা পাঁচ লাখ টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যান। আমি বর্তমানে আহতাবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছি।’  

ইউপি সদস্য আকবর আলী জানান, সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে ইউপি সদস্য আব্দুল খালেক জোড়াবাড়ী ইউপি ভবনে প্রবেশ করে গ্রাম আদালতের ভিতর চলে যান। এর কিছুক্ষণ পরেই হাতে লাঠিসোঁটা নিয়ে গ্রাম আদালতে প্রবেশ করেন সাজু ও তার বড় ভাই। এ সময় তাদের সঙ্গে আরও কিছু লোক ছিল। তারা লাঠি নিয়ে গ্রাম আদালতের ভিতরে ইউপি সদস্য খালেককে মারধর ও তার পকেটে থাকা জমি রেজিস্ট্রির টাকা ছিনিয়ে নেন। এরপর তারা গ্রাম আদালতের ভিতর থেকে ইউপি সদস্য খালেককে বের করে এনে ইউপি ভবনের সামনে মারতে থাকেন। খবর পেয়ে ইউপি সদস্যরা এগিয়ে আসলে তারা পালিয়ে যান। 

ইউপি সদস্য রমেশ চন্দ্র বলেন, ‘ভোটে হারার পর থেকে সাজু আমাদের নানাভাবে হুমকি দিতে থাকেন। তিনি ইউপি ভবনের ভিতরে এসে ইউপি সদস্যকে মারধর করেছেন। তার এত সাহস হয় কীভাবে।’ 

জোড়াবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান সাখাওয়াত হোসেন বাবু বলেন, এ ঘটনায় আতাউর রহমান সাজুর বিরুদ্ধে আইননানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। 

ডোমার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জানান, ইউপি সদস্যের উপর হামলার অভিযোগে সাবেক জেলা পরিষদের সদস্য আতাউর রহমান সাজুকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। 

গত ১৭ অক্টোবর নীলফামারী জেলা পরিষদ নির্বাচনে সদস্য পদে আতাউর রহমান সাজু ৩৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী প্রার্থী মনজুর আহমেদ ডনের কাছে পরাজিত হন। 
 

সিথুন/বকুল 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়