ঢাকা     রোববার   ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ২২ ১৪২৯

কর্মকর্তার চেয়ার বিড়ম্বনায় সেবাবঞ্চিত ১৪ ইউনিয়নের কৃষক

রাজবাড়ী সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:৫১, ৭ ডিসেম্বর ২০২২  
কর্মকর্তার চেয়ার বিড়ম্বনায় সেবাবঞ্চিত ১৪ ইউনিয়নের কৃষক

সকালে যে চেয়ারে বসে কৃষি কর্মকর্তা দায়িত্ব পালন করেন, বিকেলে সেই একই চেয়ারে বসে দায়িত্ব পালন করছেন আরেক কর্মকর্তা। আর কর্মকর্তাদের এই চেয়ার টানাটানিতে বিপাকে পড়েছেন রাজবাড়ী সদর উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের কৃষক। ভরা মৌসুমে সুবিধাবঞ্চিত হচ্ছেন তারা।

রাজবাড়ী সদর উপজেলার কৃষি অফিসের কর্মকর্তার চেয়ারে বসে সকালে অফিস পরিচালনা করেন বাহাউদ্দিন শেখ। বিকালে একই চেয়ারে বসে অফিস পরিচালনা করেন মো. জনি খান।

বাহাউদ্দিন শেখ বলেন, ‘আমার বদলির আদেশ হয়েছে। তবে এখনো দায়িত্ব হস্তান্তর করা হয়নি। তাই আমি এখন পর্যন্ত নিয়মিত অফিসে বসি এবং সকল প্রকার কার্যক্রম পরিচালনা করি।’

কৃষি কর্মকর্তা মো. জনি খান বলেন, ‘চলতি বছরের ২৮ নভেম্বর বদলির আদেশ পেয়ে রাজবাড়ী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালকের কার্যালয়ে যোগদান করি। তবে এখন পর্যন্ত দায়িত্ব বুঝিয়ে না দিয়ে নানা ধরনের তালবাহানা করছেন বাহাউদ্দিন শেখ।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘আমি সকালে অফিসে বসলেও বিকালে গিয়ে দেখি বদলীকৃত কৃষি অফিসার মো. বাহাউদ্দিন শেখ চেয়ারে বসে আছেন। দায়িত্ব হস্তান্তরের কথা বললেও কথা শুনছেন না।’
গত ১৪ নভেম্বর ঢাকার খামারবাড়ী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. বেনজীর আলমের আদেশে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে কর্মরত কৃষি কর্মকর্তা মো. জনি খানকে রাজবাড়ী সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হিসেবে বদলি করা হয়। একই সঙ্গে রাজবাড়ী সদর উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা মো. বাহাউদ্দিন শেখকে মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হিসেবে বদলির আদেশ দেন।

ফরিদপুর অঞ্চলের কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক স্বপন কুমার খাঁ জানান, ২৮ নভেম্বর মো. জনি খানকে রাজবাড়ী সদর উপজেলায় পদায়ন ও বাহাউদ্দিন শেখকে অবমুক্ত করে চিঠি ইস্যু করা হয়। ওই দিনই রাজবাড়ী সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হিসেবে মো. জনি খান যোগদান করেন। 
রাজবাড়ী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক এসএম শহীদ নূর আকবর বলেন, ‘রাজবাড়ী সদর উপজেলার বদলীকৃত কৃষি কর্মকর্তা বাহাউদ্দিন শেখের নতুন কর্মকর্তা মো. জনি খানকে দায়িত্ব বুঝিয়ে দেওয়ার কথা থাকলেও তিনি তা না করে অফিসের বাইরে অবস্থান করেন।’

শামীম/এস

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়