ঢাকা     শনিবার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ৪ ১৪২৭ ||  ৩০ মহরম ১৪৪২

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা জানাবে করোনার ভবিষ্যৎ

|| রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:১১, ২২ মার্চ ২০২০   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা জানাবে করোনার ভবিষ্যৎ

পুরো বিশ্বে মহামারি আকার ধারণ করেছে করোনাভাইরাস। ভবিষ্যতে এই ভাইরাসের প্রভাবে কী অবস্থা হতে পারে, তা আমাদের অজানা। কিন্তু কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করে করোনাভাইরাসের ভবিষ্যৎ অবস্থা জানা সম্ভব হবে।

রোববার এমন তথ্য জানিয়েছেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) ফলিত গণিত বিভাগের শিক্ষার্থী আহমেদ কাওছার এবং একই বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী এস কে ফয়সাল আহমেদ।

নতুন এলগোরিদম ‘লার্নিং ফর টুমোরো’ নিয়ে যৌথভাবে কাজ করে সফলতা পেয়েছেন তারা। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সাহায্যে করোনাভাইরাসের ভবিষ্যৎ অবস্থা সম্পর্কে জানা সম্ভব বলে জানিয়েছেন তারা।

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাবিষয়ক নতুন এলগোরিদমের কাজ সম্পর্কে আহমেদ কাওছার বলেন, ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে কোভিড-১৯ এর প্রাপ্ত প্রতিদিনের ডাটা এলগোরিদমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে যুক্ত হবে এবং প্রাপ্ত ডাটার উপর ভিত্তি করে এই এলগোরিদম স্বয়ংক্রিয়ভাবে নতুন ডাটা ও পূর্বের ডাটার সাথে ফাংশন তৈরি করবে। এর সাহায্যে আগামী ৭-১০ দিনের করোনার অবস্থা কী হবে, তা জানা যাবে। এই ফলাফলটা আমাদের পূর্ব প্রস্তুতি নিতে অনেক বেশি সাহায্য করবে। ফলে, আমরা করোনা মোকাবিলা করতে সক্ষম হব।’

এ গবেষণা সম্পর্কে আহমেদ কাওছার বলেন, ‘আমাদের গবেষণার মূল বিষয়টি হচ্ছে করোনাভাইরাস। এখন করোনা রোগীর সংখ্যা এত দ্রুত বাড়ছে, যে ভবিষ্যতে এর কী অবস্থা হবে কেউ জানতে পারছে না। তাই ভবিষ্যতে করোনার কী অবস্থা হতে পারে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সাহায্যে তা নির্ণয়ের জন্য অর্ডিনারি মেশিন লার্নিং, ডিপ লার্নিং, স্ট্যাটিস্টিক্যাল এলগোরিদম নিয়ে গবেষণা করেছি, কিন্ত আশানুরূপ ফলাফল পাইনি।’

‘পরবর্তী সময়ে নতুন নন-পেরামেট্রিক স্ট্যাটিস্টিক্যাল অ্যান্ড অনলাইন মেশিন লার্নিং এলগোরিদম নিয়ে কাজ শুরু করি এবং এলগোরিদমটির নাম ‘লার্নিং ফর টুমোরো’ রেখেছি। গবেষণাটি একটি ওয়েব লিঙ্ক। যেখানে করোনার তথ্য অটোমেটিক জমা হবে। এই এলগোরিদমটি মূলত আগামী ৭-১০ দিন পর করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা কতো হতে পারে, কয়জন মানুষ মারা যেতে পারে, আর কয়জন সুস্থ হতে পারে ওই তথ্যের ওপর নির্ভর করে এগুলোর ধারণা দিবে। এতে আমরা সবাই ৭-১০ দিন আগে থেকে সচেতন হতে পারি, আর ভবিষ্যতে করণীয়গুলো সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নিতে পারি’, বলেন তিনি।

ওয়েব লিঙ্কটি হচ্ছে-

https://sites.google.com/view/kowsher/tomorrows-world-covid-19?authuser=0&fbclid=IwAR12wiVuXMmwhnY9o3OnuC9Q_sDYc69MTSQG6K6nl-ZofjzOwQd5RnCMtjU


নোবিপ্রবি/হাকিম মাহি

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়