ঢাকা     বুধবার   ০৫ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ২১ ১৪২৭ ||  ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

‘আমার বন্ধুরা সব কই’

|| রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:১৮, ২ জুলাই ২০২০  

প্রথম বর্ষে কাটানো দিনগুলো সম্পর্কে অনুভূতি ব্যক্ত করছিলেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী বিপু আহমেদ। বলছিলেন, ‘এই সময়ে এসে শুধু মনে হয়, আমার ধুলোবালি মাখা বই, আমার বন্ধুরা সব কই। ভাল্লাগেনা এই মিথ্যে শহর, রাতের আড়ালে রই।’

আইন ও ভূমি ব্যবস্থাপনা বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী তামান্না তাবাসসুম ডানা। তিনিও স্মৃতির পাতা আওড়ান। তার ভাষায়, ‘ভার্সিটি এক স্বপ্নের জায়গা। স্বপ্ন পুরনেরও জায়গা। এই প্রথম নিজের বাড়ি ছেড়ে নতুন জায়গায় থাকা। নতুন মানুষের সঙ্গে থাকা। প্রথম বর্ষে সবাই এক সঙ্গে থাকাটা খুব আনন্দেরও। সারাদিন ঘোরাঘুরি, খাওয়া-দাওয়া, সবার সাথে আড্ডার দিনগুলো ছিল স্বপ্নের মতো। এখন খুব মিস করি সেই সময়গুলো। প্রথম বর্ষ মানেই অন্যরকম অনুভূতি। মনে হয় আবার যদি ফিরে পেতাম সেই দিনগুলো!’

বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের প্রতিটা সময় স্মৃতিতে ভরপুর। তবে প্রথম বর্ষের স্মৃতিগুলো বেশিই নাড়া দেয়। দীর্ঘস্থায়ীভাবে দাগ কাটে মনে। এমন কাউকে খুঁজে পাওয়া হয়তো কঠিন যে প্রথম বর্ষের মূহুর্তগুলোকে মিস করে না। রাতের আধাঁরে বন্ধুদের সাথে গানের আসর জমানো, দলবেঁধে ক্যাম্পাসের প্রতিটি কোণায় বিচরণের সময়টা প্রথম বর্ষেই বেশি আসে। আবেগে হোক কিংবা উচ্ছ্বাসে।

দিনটি ছিল শুক্রবার। তখন করোনা মহামারি হানা দেয়নি আমাদের প্রিয় মাতৃভূমিতে। জুমার নামাজের পরে খাওয়া দাওয়া সেরে সবাই মিলিত হয়েছিলাম ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ফুটবল খেলার মাঠে। ঘুরে আর আড্ডায় কখন যে সন্ধ্যা হয়ে গিয়েছিলো টের পায়নি কেউ। সেখানে বসে এক বছর আগের স্মৃতিতে ফিরে গিয়েছিলাম সবাই।

গল্পের মাঝে অনেকেই প্রথম বর্ষের স্মৃতিচারণ করলো। মনে পড়ে গেল সেই প্রথম দিনের স্মৃতি। ক্লাস শেষে মেতে উঠেছিলাম হৈ-হুল্লোড়ে। বিশেষ করে ক্যাম্পাসের আড্ডার প্রাণকেন্দ্র ডায়না চত্বরে। আমাদের মত অন্যান্য বিভাগের শিক্ষার্থীরাও আড্ডায় মেতে উঠেছিল সেদিন। এছাড়াও মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব মুর্যাল সংলগ্ন এলাকা, শহীদ মিনার, স্মৃতিসৌধ, মুক্তবাংলা, টিএসসিসি, বটতলা মফিজ লেকসহ ক্যাম্পাসের প্রতিটি চত্বর মুখরিত হয়ে উঠেছিল সেদিন। সাথে সেলফি ও  ক্যামেরার ক্লিকের শব্দ তো আছেই।

স্কুল-কলেজের ধরাবাঁধা পড়াশোনার গণ্ডি পেরিয়ে পরিবার থেকে জ্ঞানের সাগরে অবগাহন করার প্রথম ধাপই বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে পা দিয়েই মনের মধ্যে জেগে ওঠে অজানা হাজারো আকাশছোঁয়া স্বপ্ন। হাজারো অনুভূতি। নিজেদের লালিত স্বপ্ন বাস্তবে রূপ দিতে পথচলা শুরু করে একঝাঁক মেধাবী তরুণ। প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের প্রাণোচ্ছল চাঞ্চল্যতায় ভরে থাকে গোটা ক্যাম্পাস।

নবীনদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে ওঠে ক্যাম্পাসের প্রতিটি অঙ্গণ। আনন্দের ঢেউ যেন দোলা দেয় ক্যাম্পাসের প্রতিটি বৃক্ষের শাখায় শাখায়। তাদের সাদরে বরণ করতেও চলে নানা আয়োজন। প্রথম দিনের ক্লাসেই বিভাগের শ্রদ্ধেয় শিক্ষমণ্ডলী বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচিতিমূলক বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন এবং বিভিন্ন নিয়ম-শৃঙ্খলা মেনে চলতে পরামর্শ দেন। একই সঙ্গে বিভাগের অগ্রজরাও কিছু দিকনির্দেশনা দেন। আমাদের সাথেও এর ব্যতিক্রম ঘটেনি। শিক্ষক ও বড়দের দিকনির্দেশনায় পথচলা শুরু হয় ১৭৫ একরের ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে।

লেখক: শিক্ষার্থী, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়।



ইবি/মাহফুজ

রাইজিংবিডি.কম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়