RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০১ অক্টোবর ২০২০ ||  আশ্বিন ১৬ ১৪২৭ ||  ১৩ সফর ১৪৪২

‘তারুণ্যের অনুপস্থিতিতে স্পন্দনহীন ক্যাম্পাস’ 

মামুন সোহাগ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:৩২, ৬ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
‘তারুণ্যের অনুপস্থিতিতে স্পন্দনহীন ক্যাম্পাস’ 

নীরব-নিস্তব্ধ রাজধানীর সরকারি তিতুমীর কলেজ। কিছু দিন আগেও ক্যাম্পাসের শহীদ বরকত মিলনায়তন শিক্ষার্থীদের অট্টহাসি, আড্ডা আর কোলাহলে মুখরিত ছিল। আজ সেখানে সুনসান নীরবতা। ক্যাম্পাসজুড়ে কেমন যেন এক শূন্যতা।

রিকশা থেকে নেমে কয়েক পা এগোতেই প্রধান ফটক। মহাখালী-গুলশান রোডের একেবারে গা ঘেঁষা ওই ক্যাম্পাস। ক্যাম্পাসের বিশালাকার প্রধান ফটক পার হতেই দু’জন গেটম্যান দাঁড়িয়ে থাকেন। বাড়তি নিরাপত্তার জন্য সঙ্গে কয়েকজন পুলিশ সদস্যও আছেন।

প্রধান ফটক পার হলেই দেখা যাবে দুই পাশের গাছগুলো নীরবতা-নিস্তব্ধতায় ফুলে-ফেঁপে কেমন মোটা হয়ে আছে। দেখে মনে হচ্ছে কোনো পরিত্যক্ত বাড়ি বা বাগান। যেমন করে পড়ে থাকে অনেককাল আগের কোনো রাজবাড়ি। ক্যাম্পাস এখন তেমনই।

আরেকটু সামনে এগোতেই বিজ্ঞান ভবন। ক্যাম্পাস খোলা থাকলে ভেতরে প্রবেশ করতে পারে যেকোনো শিক্ষার্থী। এখন কেউ চাইলেই সেখানে প্রবেশ করতে পারবে না। গেট ম্যানের অনুমতি নিয়ে ভেতরে প্রবেশ করতে হচ্ছে সবাইকে। বিজ্ঞান ভবনের ভেতরের গাছগুলোও মহা শান্তিতে ডালপালা ছড়াচ্ছে এখন। অনার্স ভবনের সামনের গাছগুলো দাঁড়িয়ে আছে নীরবে। কাছে গেলে মনে হবে এ এক ভুতুড়ে এলাকা। অন্ধকারাচ্ছন্ন প্রায়।

ক্যাম্পাসের অন্যতম আকর্ষণ শেখ রাসেল পুষ্প কানন। বাগানের ভেতরের ফুল গাছগুলো যেন স্বস্তিতে বড় হচ্ছে। তবে প্রকৃতির উচ্ছ্বাসের মধ্যেও ক্যাম্পাসের নীরবতা জানান দেয়-ভালো নেই এই ক্যাম্পাস। তার আসল খোরাক শিক্ষার্থীদের অনুপস্থিতি ভুতুড়ে করে তুলেছে তাকে। যদিও মাঠের ঘাসগুলোও বেশ নাদুস-নুদুস লাগছে এখন।

শিক্ষার্থী শূন্যতায় খাঁ খাঁ করছে আড্ডার প্রিয় জায়গাগুলো। বাসে সিট ধরার জন্য নেই তাড়াহুড়ো। কলেজের গ্যারেজে, শহীদ মিনারের পেছনে মাথা কুঁজো করে দাঁড়িয়ে আছে সম্পর্ক, অগ্নিবীণা, সোনারতরীসহ সব ক’টি বাস। তারুণ্যের অনুপস্থিতিতে স্পন্দনহীন হয়ে পড়ে আছে ক্যাম্পাস।

দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী শুভ্রা চৌধুরী বলেন, ‘করোনাভাইরাসের কারণে ক্যাম্পাস তার স্পন্দন হারিয়েছে। জানি না কত দিনে ক্যাম্পাস তার আগের অবস্থা ফিরে পাবে। এ পরিস্থিতিতে ক্যাম্পাস বন্ধ থাকায় কলেজের শিক্ষকসহ সবাইকে মিস করছি।’

ক্যাম্পাস ঘুরে এসে আহমেদ ফেরদাউস খান নামে আরেক শিক্ষার্থী বলেন, ‘আমাদের প্রিয় ক্যাম্পাস দেখে মনে হচ্ছে কোনো পরিত্যক্ত বাড়ি বা বাগান। এখন চাইলেই কোনো ভবনে কিংবা ক্লাসরুমে ঢুকতে পারছি না। দেখা পাচ্ছি না প্রিয় বন্ধুদের।’

 

ঢাকা/মাহফুজ/মাহি

রাইজিং বিডি

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়