RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ২১ অক্টোবর ২০২০ ||  কার্তিক ৬ ১৪২৭ ||  ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ফল-শাকসবজি সংরক্ষণের সহজ কৌশল

শারমিন আক্তার শানু || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:১১, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০  
ফল-শাকসবজি সংরক্ষণের সহজ কৌশল

শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় ভিটামিন ও খনিজ লবণের সবচেয়ে সহজ ও সস্তা উৎস হলো ফল ও শাকসবজি। কিন্তু এসবের একটি বড় সমস্যা হলো দ্রুত পচনশীল এবং তাজা অবস্থায় এগুলোর সংরক্ষণকাল খুবই সীমিত।

একটি জরিপে দেখা গেছে, প্রতিবছর মোট উৎপাদনের শতকরা ২০_৩০ শতাংশ ফল ও শাকসবজি পচে নষ্ট হয়ে যায়। যদিও এগুলো সংরক্ষণের সহজ ও সস্তা কিছু নিয়ম আছে।

যেমন- শুকিয়ে সংরক্ষণ, ডিপ ফ্রিজিং পদ্ধতিতে সংরক্ষণ, হিমাগার পদ্ধতি ইত্যাদি।

কিন্তু আমাদের দেশের অধিকাংশ কৃষক দরিদ্র ও অশিক্ষিত হওয়ায় তাদের পক্ষে এসব পদ্ধতি অনুসরণ করা সম্ভব হয় না।

এছাড়াও আমাদের দেশের বেশিরভাগ ফল ও শাকসবজির বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এগুলো মৌসুমী ফসল। অর্থাৎ বছরের নির্দিষ্ট সময়ে উৎপাদিত হয়। ফলে উৎপাদন মৌসুমে বাজারে সরবরাহ বেড়ে তাৎক্ষণিক চাহিদা মিটিয়ে অতিরিক্ত থেকে যায়। কিন্তু পরিবহন ব‌্যবস্থার সঙ্কটের জন্য সময়মতো বাজারজাতকরণ করা যায় না। প্রাকৃতিক কারণে এসব অবিক্রিত তাজা ফল ও শাকসবজি অতি অল্প সময়ে পচে নষ্ট হয়ে যায়। তাই কৃষকরা ফল ও শাকসবজি সংগ্রহের পর বাজারজাতকরণকেই সংরক্ষণের প্রধান হাতিয়ার মনে করে। কিন্তু অধিকাংশ কৃষক সুষ্ঠু বাজারজাতকরণ সম্পর্কে ততটা সচেতন নয়।

আমাদের দেশের কৃষকরা বাজারজাতকরণ বলতে শুধু ফল ও শাকসবজি সংগ্রহ করে পাইকারি বা খুচরা বিক্রেতাদের কাছে বিক্রয় করাকে বোঝে। এতে ফল ও শাকসবজি দীর্ঘ দিন সংরক্ষণ করা সম্ভব হয় না।

বাজারজাতকরণের কিছু নির্দিষ্ট নিয়ম আছে, যা যথাযথভাবে কৃষকরা অনুসরণ করলে এক মৌসুমের ফল ও শাকসবজি অন্য মৌসুমেও খাওয়ার উপযুক্ত থাকবে।

বাজারজাতকরণের কিছু ধাপ বা পর্যায় রয়েছে

যেমন- বাছাইকরণ, প‍্যাকিং, পরিবহন

গ্রামীণ পর্যায়ের কৃষকরা ফল ও শাকসবজি সংরক্ষণে ততটা সচেতন না হলেও পাইকারি বিক্রেতারা এ বিষয়ে বেশ দক্ষ ও সচেতন। কারণ, তাদের মূল লক্ষ‍্যই মৌসুমের বাইরেও ফল ও শাকসবজি সরবরাহ করে অধিক মুনাফা লাভ করা। তাই তারা কৃষকদের থেকে প্রয়োজনের তুলনায় অধিক ফল ও শাকসবজি কিনে যথাযথভাবে সংরক্ষণ করে রেখে পরবর্তী সময়ে বেশি দামে বিক্রয় করে। এতে করে ফল ও শাকসবজির সঠিক সংরক্ষণ ও মানুষের চাহিদা দুইই মেটে। এজন্য গ‍্রামীণ কৃষকদের জন্য ফল ও শাকসবজির সঠিক বাজারজাতকরণের ব‍্যবস্থা করতে হবে। দালাল, ঠিকাদার শ্রেণির মধ‍্যবর্তী ব‍্যবসায়ীর সংখ্যা হ্রাস করতে হবে।

বাংলাদেশের ফল ও শাকসবজি বাজারজাতকরণ করার বতর্মান ব‍্যবস্থাসমূহের উন্নতির সঙ্গে উৎপাদনকারীর ও ক্রেতা উভয়ের স্বার্থ জড়িত। উৎপাদনকারী তার পণ‌্য সুষ্ঠু সংরক্ষণ ও অধিক মূল্য পেতে এবং ক্রেতা তাজা ফল ও শাকসবজি কম মূল্যে পেতে সুষ্ঠু বাজারজাতকরণ খুবই জরুরি।

বতর্মানে বাংলাদেশ ফল ও শাকসবজি রপ্তানি বাণিজ‍্যে বিশ্বে যে স্থান পেয়েছে, সেজন্যও সুষ্ঠু বাজারজাতকরণে অধিক দৃষ্টি দিতে হবে।

লেখক: শিক্ষার্থী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

ঢাবি/মাহি

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়