Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শুক্রবার   ০৫ মার্চ ২০২১ ||  ফাল্গুন ২০ ১৪২৭ ||  ১৯ রজব ১৪৪২

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক গবেষণায় ৪র্থ নোবিপ্রবি 

বিশ্ববিদ্যালয় সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৪১, ১৭ জানুয়ারি ২০২১  
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক গবেষণায় ৪র্থ নোবিপ্রবি 

২০২০ সালে ১৫০টির অধিক গবেষণাপত্র প্রকাশ করে দেশের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে ৪র্থ স্থান দখল করেছে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (নোবিপ্রবি)। এছাড়া সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ১৪তম অবস্থানে রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়টি।

রোববার (১৭ জানুয়ারি) এই বিষয়ে দেশের গবেষণা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণকারী ম্যাগাজিন সায়েন্টিফিক বাংলাদেশের প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়। প্রতিবেদনটিতে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক স্কোপাস ডাটাবেজের বিভিন্ন উপাত্ত বিশ্লেষণ করে তথ্য প্রকাশ করা হয়।

সায়েন্টিফিক বাংলাদেশের প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক স্কোপাস জার্নাল ২০২০ সালে বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের গবেষণা নিবন্ধের ভিত্তিতে একটি তালিকা প্রকাশ করে। এই তালিকায় মোট ৮ হাজার ১৪০টি বৈজ্ঞানিক ডকুমেন্টস প্রকাশ করে বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো, যার মধ্যে নোবিপ্রবির গবেষকদের ১৫০টির অধিক গবেষণাপত্র প্রকাশিত হয়।

এই বিষয়ে নোবিপ্রবির রিসার্চ সেলের পরিচালক অধ্যাপক ড. বেলাল হোসেন বলেন, ‘শিক্ষা ও গবেষণায় নোবিপ্রবিকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য আমরা বিশেষ প্রণোদনার ব্যবস্থা করেছি। কারো যদি Q1,Q2 তে আর্টিকেল পাবলিশড হয়, তিনি পাবেন ১০ হাজার টাকা; Q3,Q4 হলে ৭ হাজার টাকা, ইনডেক্স স্কোপাসে পাবলিশড হলে ৫ হাজার টাকা।  ২০১৫ সালে যেখানে নোবিপ্রবির জন্য গবেষণায় বাজেট ছিল ১৩ লাখ টাকা, এখন তা বেড়ে দেড় কোটি টাকা। আশা করি, শিক্ষা ও গবেষণায় নোবিপ্রবি অনেক দূর এগিয়ে যাবে।’

এই বিষয়ে নোবিপ্রবি উপাচার্য প্রফেসর ড. দিদার উল আলম বলেন, ‘‘১২টি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় চতুর্থ স্থান অর্জন করায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, কর্মচারীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছি। 

করোনার মহামারি মধ্যেও আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের সবাই শিক্ষা ও গবেষণায় যেভাবে এগিয়ে এসেছে, এই ধারা অব্যাহত থাকলে নোবিপ্রবি আরো ভালো কিছু করবে বলে আমি আশাবাদী। বিশেষ ধন্যবাদ জানাচ্ছি বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিকদের, তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্জনগুলো বিশ্বদরবারে তুলে ধরার জন্য।’’

নোবিপ্রবি/ফাহিম/মাহি 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়