Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ১৩ জুন ২০২১ ||  জ্যৈষ্ঠ ৩০ ১৪২৮ ||  ০২ জিলক্বদ ১৪৪২

‘ট্যাকা দি ওষুধ আর ছেলির ঈদির জামা কেনবো’

আজাহার ইসলাম || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:০৫, ৯ মে ২০২১  
‘ট্যাকা দি ওষুধ আর ছেলির ঈদির জামা কেনবো’

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) হোটেলের ব্যবসা করে সংসার চালান বছির উদ্দীন। করোনার কারণে দীর্ঘ দিন ক্যাম্পাস বন্ধ থাকায় ব্যবসাও বন্ধ। তাছাড়া দীর্ঘ দিন ধরে অসুস্থতার কারণে সংসারে টানাপোড়েন। আসন্ন ঈদ নিয়েও ছিল দুশ্চিন্তায়। তবে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহায়তা পেয়ে তার চোখে-মুখে ফিরেছে সন্তুষ্টির ছাপ।

শনিবার (৮ মে) দুপুরে এমন ৭৫ জন ক্যাম্পাসের দোকানদার ও কর্মচারীকে এক হাজার থেকে সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত সহায়তা দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের চারটি ব্যাচের শিক্ষার্থীরা। এছাড়াও ১০ জন নারীকে শাড়ি উপহার দেওয়া হয়।

ব্যাচ ভিত্তিক শিক্ষার্থীদের সংগঠন আলোড়িত ৩০ (২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষ), অদম্য ৩১ (২০১৬-১৭), বন্ধন ৩২ (২০১৭-১৮) ও সঞ্জীবনী ৩৩ (২০১৮-১৯) নিজস্ব অর্থায়নে এ আর্থিক সহায়তা করে।

এবিষয়ে আয়োজক শিক্ষার্থীরা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মহীন মানুষের মাঝে ঈদের আনন্দ ছড়িয়ে দিতেই আমরা এই উদ্যোগ হাতে নিয়েছি। আমরা আমাদের সাধ্যানুযায়ী চেষ্টা করেছি। অল্প হলেও কর্মহীন এসব মানুষের হাতে সহায়তা তুলে দিতে পারায় ভালো লাগছে। এ কাজে চার ব্যাচের শিক্ষার্থীদের যারা আর্থিক সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন, তাদের সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন আয়োজক শিক্ষার্থীরা।

লকডাউনে ক্ষতিগ্রস্ত দোকানীদের জন্য ‘হাসিমুখে ঈদ’ প্রতিপাদ্য নিয়ে এ অর্থ সংগ্রহ করেন শিক্ষার্থীরা। সহায়তা প্রদান অনুষ্ঠানে ব্যাচ ভিত্তিক সংগঠনগুলোর প্রতিনিধিরা ছাড়াও বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

শিক্ষার্থীদের দেওয়া সহায়তায় সন্তোষ প্রকাশ করে হাসি মুখে বাড়ি ফেরেন দোকানিরা।

আর্থিক সহায়তা পেয়ে ক্যাম্পাসের হোটেল ব্যবসায়ী বছির উদ্দীন বলেন, ‘কয়দিন আগে স্ট্রোক কইরি ম্যালা ট্যাকার ওষুধ কিনতি হচ্ছে। হোটেল বন্ধ থাকায় ইনকামের পথও বন্ধ হয়ি আছে। উরা আমাক চার হাজার ট্যাকা দিছে। এ ট্যাকা দি ওষুধ ও ছেলির ঈদির জামা কেনবো।’

আরেক নারী হোটেল ব্যবসায়ী আলেয়া বেগম। তিনি বলেন, ‘হোটেল খুলতি না পারায় মেস-আর মানষির বাড়িত বাড়িত রান্দার কাজ শুরু করিছি। সংসার চালাতি হলি কাজ কইরি খাতিই হবি। ওগের সাহায্য পাইয়ি আমি ম্যালা খুশি। ঈদডা ভালোভাবে কাটাতি পারবো।’

ইবি/মাহি 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়