Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ২৮ নভেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৪ ১৪২৮ ||  ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

জাবির খাবারের দাম বাড়লেও বাড়েনি মান

জাবি সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৪১, ১৮ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ১৯:০০, ১৮ অক্টোবর ২০২১
জাবির খাবারের দাম বাড়লেও বাড়েনি মান

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় হল ছাত্রলীগ ও ছাত্র ইউনিয়নের হস্তক্ষেপে কমেছে হল ডাইনিং কুপনের প্রস্তাবিত দাম। জানা গেছে, আ ফ ম কামালউদ্দীন হলে ছাত্র নেতাদের হস্তক্ষেপে ২০ টাকা থেকে ৩০ টাকায় সুপারিশকৃত কুপনের মূল্য কমে ২৫ টাকায় এসেছে। যদিও নেতাদের দাবি ছিল ২২ টাকা। 

এ ছাড়া, কিছু কিছু হলে ৩০ টাকা করেও রাখা হচ্ছে ডাইনিং কুপনের মূল্য। দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির কারণ ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিভিন্ন হলের প্রভোস্টরা। আ ফ ম কামালউদ্দীন হলের প্রভোস্ট আ স ম ফিরোজ আজ সোমবার (১৮ অক্টোবর) দুপুরে শিক্ষার্থীদের সাথে ডাইনিংয়ে খেতে এসে এমন তথ্য দেন। এছাড়া হল ছাত্রলীগ ও ছাত্র ইউনিয়নের নেতাদের সাথে কথা বলেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি। 

ডাইনিংয়ে খেতে এসে প্রভোস্ট আ স ম ফিরোজ বলেন, ‘দ্রব্যমূল্যের ক্রমাগত দাম বৃদ্ধির কারণে পরীক্ষামূলকভাবে আমরা এক মাসের জন্য এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ৩০ টাকা করে কুপনের মূল্য প্রস্তাব করা হয়। ছাত্র সংগঠনগুলোর সাথে কথা বলে পরবর্তী সময়ে ২৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়। হল নেতাদের সাথে আলোচনা করেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’ 

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক মাহবুবুল হক রাফা বলেন, ‘আমরা পরবর্তী সময়ে দ্রব্যমূল্যের দাম কমলে কুপনের দাম কমানোর ব্যাপারে আবার সুপারিশ করবো। অন্য হলগুলোতেও কুপনের দাম পরবর্তী সময়ে কমিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীর পাশে আমরা সবসময় আছি। কারণ ছাত্র সংগঠন হিসেবে শিক্ষার্থীদের সুযোগ-সুবিধা নিয়ে কথা বলা আমাদের দায়িত্ব। এছাড়া খাবারের মান যেন বৃদ্ধি পায়, সে বিষয় নিয়েও আমরা সচেষ্ট। ’

কিন্তু শিক্ষার্থীদের অভিযোগ দাম বাড়লেও বাড়েনি খাবারের মান। আ ফ ম কামালউদ্দীন হলের ডাইনিংয়ে খেতে আসা ছাত্রদের অভিযোগ, মিলরেট বাড়ছে ঠিকই কিন্তু দিন দিন মাছ-মাংসের আকার আগের চেয়ে অর্ধেক হয়ে যাচ্ছে। খাবারের মান বাড়ানোর দাবি তাদের। 

এদিকে হলের ডাইনিং ব্যবস্থাপক মনিরুজ্জামান বলেন, ‘সবকিছুর দাম বেড়ে যাওয়ায় ভালো খাওয়ানো সম্ভব হচ্ছে না। আজও সবকিছু মিলিয়ে একটু বেশিই পড়ে গেছে। আমি খাবার খুবই যত্ন নিয়ে তৈরি করি। এমনকি সরিষার তেল সাভার থেকে নিয়ে আসি আলু ভর্তার জন্য।’

তাজ/মাহি 

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়