Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ২৫ ১৪২৮ ||  ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

ক্লাসে ফিরে উচ্ছ্বসিত ইবি শিক্ষার্থীরা 

ইবি সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:০৯, ২৬ অক্টোবর ২০২১  
ক্লাসে ফিরে উচ্ছ্বসিত ইবি শিক্ষার্থীরা 

গলায় ফুলের মালা দিয়ে আনন্দ মিছিল ও কেক কেটে উদযাপনের মধ্যদিয়ে দেড় বছর পর ক্লাসে ফিরেছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) শিক্ষার্থীরা। ২৫ অক্টোরব সোমবার ক্লাসে ফেরার দিনটি বর্ণিলভাবে রাঙিয়েছেন তারা। আবার অনেকেই আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েছেন প্রিয় সহপাঠী ও বন্ধুদের ফিরে পেয়ে। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের ডায়না চত্বর, ফ্রেন্ডশিপ চত্বর, ঝাল চত্বরসহ বিভিন্ন স্থান ঘুরে শিক্ষার্থীদের ব্যাপক উচ্ছ্বাস প্রকাশ করতে দেখা গেছে। সবাই ব্যস্ত ছিলন একে-অপরের সঙ্গে কুশলাদি বিনিময়, গল্প-আড্ডায়। কেউ বন্ধুর সঙ্গে বসে চা খাচ্ছেন আবার বন্ধুরা মিলে গানের আসর বসিয়েছেন টঙ দোকানে। ক্যাম্পাসে ফিরে গলায় ফুলের মালা জড়িয়ে আনন্দ মিছিলও করেছেন কিছু শিক্ষার্থী। কয়েকটি বিভাগে দিবসটি উদযাপন করা হয়েছে কেক কাটার মধ্যদিয়ে। সব মিলিয়ে ক্যাম্পাসে ছিল উৎসবমুখর পরিবেশ।

দেড় বছর পর ক্লাসে ফেরার অনুভূতি জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ‌ল’ অ্যান্ড ল্যান্ড ম্যানেজমেন্ট বিভাগের শিক্ষার্থী নওরীন নুসরাত বলেন, ‘দীর্ঘসময় পর প্রিয় শিক্ষক ও সহপাঠীদের ক্লাসে ফিরে পেয়ে আমরা অনন্দিত। করোনার দিনগুলো শেষে আবারও ক্যাম্পাসে গল্প-আড্ডা জমবে ভাবতেই ভালো লাগছে।’  

একই বিভাগের সভাপতি সাহিদা আখতার আশা বলেন, ‘দেড় বছর পর আজ ছাত্র-ছাত্রীদের সরাসরি ক্লাস নিয়েছি। শিক্ষার্থীদের কাছে পাওয়ার আনন্দ ভাষায় প্রকাশ করার মতো না। নিময়িত অনলাইনে ক্লাস হলেও শিক্ষার্থীদের একাডেমিক যে ক্ষতি হয়েছে, তা পুরণ করাই এখন শিক্ষক হিসেবে আমাদের প্রধান কাজ। আমরা সেভাবেই কাজ করছি।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন প্রশাসক এবং ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘শিক্ষকতা জীবনে শিক্ষার্থীদের সান্নিধ্য ভালো লাগার একটি বিষয়। যেটি অনলাইনে পাওয়া সম্ভব হয় না। আমার মনে হয়, আমার মতো অন্য শিক্ষকরাও সশরীরে ক্লাস শুরু হওয়ায় আনন্দিত।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘আমি নিজে ক্লাস নিয়েছি ও বিভিন্ন শ্রেণিকক্ষ ঘুরে দেখেছি। আসলে শিক্ষার্থীদের ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় পূর্ণতা পায় না। ক্লাস শুরু হলো। আমরা চেষ্টা করবো, শিক্ষার্থীদের শিক্ষাজীবনের যে ক্ষতি হয়েছে, তা পূরণ করতে।’

নাহিদ/মাহি 

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়