ঢাকা     শুক্রবার   ০১ জুলাই ২০২২ ||  আষাঢ় ১৭ ১৪২৯ ||  ০১ জিলহজ ১৪৪৩

ক্রীড়াঙ্গনে অবদানের জন্য জাতীয় পুরস্কার পেলেন ইবি উপাচার্য

ইবি সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৮:৫০, ১২ মে ২০২২  
ক্রীড়াঙ্গনে অবদানের জন্য জাতীয় পুরস্কার পেলেন ইবি উপাচার্য

ক্রীড়া ক্ষেত্রে অবদানের জন্য জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার-২০১৫ পেয়েছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম। সংগঠক ক্যারাম ক্যাটাগরিতে তাকে এ পুরস্কারে ভূষিত করেছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে এতথ্য জানা যায়। এর আগে বুধবার ভার্চুয়াল কনফারেন্সে প্রধান অতিথি হিসেবে পুরস্কার প্রদান করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার পক্ষ থেকে ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে পুরস্কার তুলে দেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল।

পুরস্কার হিসেবে প্রত্যেককে একটি আঠারো ক্যারেট মানের ২৫ গ্রাম ওজনের স্বর্ণপদক, এক লাখ টাকার চেক এবং একটি সম্মাননাপত্র দেওয়া হয়েছে। ২০১৩ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত আট বছরে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে মোট ৮৫ খেলোয়াড় ও সংগঠক এ পুরস্কার পেয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য, প্রকাশনা ও জনসংযোগ দপ্তরের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত এই অধ্যাপক বাংলাদেশ ক্যারাম ফেডারেশনের প্রতিষ্ঠাতা এবং ১৯৮০ সাল থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত এই সংগঠনের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ ক্যারাম দল বিভিন্ন সময়ে ভারত, মালদ্বীপ, শ্রীলঙ্কা প্রভৃতি দেশে অনুষ্ঠিত সার্ক কান্ট্রিজ ক্যারাম ট্যুর্নামেন্ট, এশিয়ান ক্যারাম ট্যুর্নামেন্ট, ওয়াল্ড ক্যারাম কংগ্রেস প্রভৃতি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে এবং বিভিন্ন সময়ে এসব ট্যুর্নামেন্টে রানারআপসহ বিভিন্ন পদক জয় করেছে।

তার নেতৃত্বে ১৯৯৫ সালে ঢাকায় অনুষ্ঠিত পঞ্চম সার্ক ক্যারাম ট্যুর্নামেন্টে মিক্সড ডাবলস-এ বাংলাদেশ দল ভারতকে হারিয়ে স্বর্ণ জয় করে। তিনি এশিয়ান ক্যারাম কনফেডারেশনের প্রতিষ্ঠাকালীন সহ-সভাপতি ছিলেন। এ ছাড়াও, ড. আবদুস সালাম ২০১৪ সাল থেকে বাংলাদেশ ফিজিক্যালি চ্যালেঞ্জড ক্রিকেটের সভাপতির দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

বর্তমানে ড. আবদুস সালাম ন্যাশনাল প্যারালিম্পিক কমিটি বাংলাদেশের সিনিয়র ভাইস-প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্বপালন করছেন। এর আগে তিনি ১৯৮০-৮৩ সালে ক্রীড়া ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের গবেষণা কর্মকর্তা এবং ১৯৯৬-২০০১ সময়ে বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

পুরস্কার প্রাপ্তির বিষয়ে অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম বলেন, ‌‘এটি অত্যন্ত সম্মানজনক একটি পুরস্কার। যারা দীর্ঘদিন ধরে ক্রীড়া অঙ্গনে সফলতার সাথে কাজ করছেন, তারাই এটা পেয়ে থাকেন। আমাকে মনোয়ন দেওয়ার জন্য সরকার ও সংশ্লিষ্ট মহলের সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। আমি চেষ্টা করবো আমার সর্বোচ্চটুকু দিয়ে ক্রীড়া ক্ষেত্রে আরও ভালো কিছু করার জন্য।’

নাহিদ/এইচএম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়