RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     শুক্রবার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২০ ||  অগ্রাহায়ণ ২০ ১৪২৭ ||  ১৬ রবিউস সানি ১৪৪২

‘সিটি নির্বাচন শুধু ইশরাকের নয়, জনগণের লড়াই’

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৮:৩৩, ১৪ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
‘সিটি নির্বাচন শুধু ইশরাকের নয়, জনগণের লড়াই’

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী ইশরাক হোসেন বলেছেন, ‘ঢাকা সিটি নির্বাচন শুধু ইশরাক হোসেনের লড়াই নয়, এটা ধানের শীষের লড়াই, জনগণের লড়াই, গণতন্ত্রের লড়াই।’

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর খিলগাঁওয়ের ত্রিমোহনী বাজারে গণসংযোগকালে ভোটারদের উদ্দেশে এসব কথা বলেন তিনি।

ইশরাক হোসেন বলেন, আমি আপনারদের কাছে প্রতিজ্ঞা করতে চাই, আগামী ৩০ তারিখে যদি আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেন, আপনাদের অধিকার রক্ষার আন্দোলনে আমরা রয়েছি। সেটাকে চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছানোর জন্য কাজ করব। আপনাদের কাছে প্রতিজ্ঞা করছি, আপনাদের সুখে-দুখে সব সময় পাশে থাকব। এই এলাকার উন্নয়নে যা কিছু দরকার, আমার রক্ত, ঘাম দিয়ে পরিশ্রম করে এই এলাকাকে উন্নত ও পরিবেশ দূষণমুক্ত করতে সকল কিছু করব।’

বিএনপির এই প্রার্থী বলেন, ‘সিটি নির্বাচন শুধু ইশরাক হোসেনের লড়াই নয়, এটা ধানের শীষের লড়াই, জনগণের লড়াই, গণতন্ত্রের লড়াই। আপনারা সেই লড়াইয়ে শরিক হবেন। ৩০ তারিখে ভোট দেবেন। আমরা সেই পরিবেশ নিশ্চিত করব। ইনশাআল্লাহ, আপনাদের অধিকার, কথা বলার অধিকার ফিরিয়ে আনব আমি।'

ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক বলেন, ‘গত ১৩ বছরে দেশকে তিলে তিলে ধ্বংস করে ফেলা হয়েছে। দেশে গণতন্ত্র নেই, কারো কথা বলার অধিকার নেই। উন্নয়নের ধুয়া তোলা হচ্ছে, কিন্তু আমরা কোনো উন্নয়ন দেখতে পাচ্ছি না। ঢাকা আজকে সবচেয়ে দূষিত ও বসবাসের অযোগ্য শহরের তালিকায় ১ নাম্বারে আসে। এই এলাকায় আসার সময় দুই পাশে যে জলাশয়, রাস্তা-ঘটের করুণ দশা দেখেছি, তা দেখে সত্যিই খারাপ লেগেছে। এই সরকার বলে, তারা উন্নয়ন করেছে, স্যাটেলাইট পাঠাচ্ছে, অমুক সেতু, তমুক সেতু করেছে। কিন্তু এগুলো সবই আসলে দুর্নীতির প্রজেক্ট। মেগা প্রজেক্ট তারা করছে। সেখান থেকে লক্ষ হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করে আরাম-আয়েশে তারা ফূর্তি করছে। আর বাংলাদেশের আমরা যারা সাধারণ জনগণ, নাগরিকরা রয়েছি, দিন দিন আমাদের দুর্দশা বেড়েই চলেছে।’

৩০ তারিখে নির্বাচনের দিন সনাতন ধর্মাবলম্বীদের একটি উৎসব (সরস্বতী পূজা) রয়েছে, সাংবাদিকরা এ বিষয়ে মন্তব‌্য জানতে চাইলে তিনি বলেন, অবশ্যই এ বিষয়টা গুরুত্বে সাথে দেখা উচিৎ। আমারা মুসলমান, আমাদের যদি ওই দিন ঈদ থাকত তাহলে অবশ্যই চাইতাম না ওই দিন ভোট হোক। তো উনাদের বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখা হবে, আশা করছি। এটা কোর্ট আর ইলেকশন কমিশন মিলে সিদ্ধান্ত নেবে।

আপনাদের সাথে সরকার ও প্রতিদ্বন্দ্বীরা কী ধরনের আচরণ করছে? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আসলে আমি যদি এসব কথা বলি, তখনই সরকার দলীয় নেতারা বলেন, বিএনপি অভিযোগের দল, নালিশ পার্টি ইত্যাদি। আমরা আর অভিযোগ-নালিশ করতে চাই না। আমরা শুধু এতটুকু বলতে চাই, জনগণ আমাদের সাথে রয়েছে। আমরা তাদের শক্তি নিতে এগিয়ে যাব। কারো কোনো বাধা আমরা মানব না। কোনো নালিশ কাউকে দেব না। মহান আল্লাহতায়ালা ওপরে আছেন, উনি দেখছেন। আর নিচে আমাদের জনগণ। আমাদের শক্তি জনগণ।

ধানের শীষের পোস্টার কম দেখা যাচ্ছে কেন? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমাদের পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হচ্ছে। যারা পোস্টার লাগাতে যাচ্ছে তাদের বাধা দেয়া হচ্ছে, মারধর করা হচ্ছে। এমনও হুমকি দেয়া হচ্ছে যে, পোস্টার লাগাতে আসলে পুলিশে দিবে। পোস্টার লাগানো কি অপরাধ? এটা তো অপরাধ নয়। তাহলে কেন পুলিশে দেয়ার হুমকি দেবে? আপনারা জানেন, দেশে একটা অপশাসন, স্বৈরশাসন চলছে। একটা ফ্যাসিস্ট সরকার ক্ষমতায় রয়েছে।

গণসংযোগকালে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাসসহ স্থানীয় বিএনপির নেতা, ছাত্রদল, যুবদল, মহিলা দল, সেচ্ছাসেবক দলের হাজার হাজার নেতাকর্মী অংশ নেন। গণসংযোগে এলাকাবাসীর সঙ্গে কুশলবিনিময়, ভোট ও দোয়া প্রার্থনা করেন তারা।



ঢাকা/সাওন/রফিক

রাইজিংবিডি.কম

আরো পড়ুন  

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়