ঢাকা, সোমবার, ৪ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

উন্নয়নের বার্তা নিয়ে নগরবাসীর দুয়ারে স্বেচ্ছাসেবক লীগ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০১-২৭ ৫:২৭:৫৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০১-২৭ ৬:০৯:০৭ পিএম

আওয়ামী লীগ সরকারের শাসনামলে গত এক দশকের উন্নয়ন পরিক্রমা এবং ভবিষ্যত পরিকল্পনার বার্তা জানিয়ে ভোটারদের দুয়ারে দুয়ারে গিয়ে নৌকার পক্ষে ভোট চাচ্ছেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীরা।

ভোটের বাকি আর মাত্র পাঁচ দিন। রাতদিন প্রচার-প্রচারণা আর গণসংযোগ নিয়ে ব্যস্ত আওয়ামী লীগের দুই প্রার্থী ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে আতিকুল ইসলাম এবং দক্ষিণে শেখ ফজলে নূর তাপস। তাদের জন্য নৌকার পক্ষে জোয়ার তৈরি করতে মাঠে নেমেছেন দলের সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরাও।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের পক্ষে সিটি করপোরেশন নির্বাচন কেন্দ্রীয়ভাবে মনিটরিং করছেন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ (উত্তরে) এবং সাধারণ সম্পাদক একেএম আফজালুর রহমান বাবু (দক্ষিণে)। দক্ষিণ সিটিতে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সমন্বকের দায়িত্বে রয়েছেন দক্ষিণের সভাপতি কামরুল হাসান রিপন ও সাধারণ সম্পাদক তারেক সাঈদ। উত্তর সিটিতে সমন্বয়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ইসহাক মিয়া এবং সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান নাঈম।

নৌকার প্রার্থীদের বিজয়ী করতে ভোটারদের দুয়ারে যাচ্ছেন আওয়ামী লীগের অন্যতম সহযোগী সংগঠন স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীরা। দিনরাত এক করে প্রার্থীর জন্য ভোট চাচ্ছেন তারা। দক্ষিণে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সমন্বয়ক কামরুল হাসান রিপনের নেতৃত্ব এলাকার অলি-গলি চষে বেড়াচ্ছেন একঝাঁক তরুণ। তফসিল ঘোষণার পর থেকেই নির্বাচনী মাঠে সক্রিয় ভূমিকা পালন করা সহযোগী সংগঠনগুলোর ইউনিটগুলোর মধ্যে আলাদা করে নজর কেড়েছেন মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগ।

চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ফজলে নূর তাপসের সঙ্গে মতবিনিময় সভার মাধ্যমে নির্বাচনী কার্যক্রম শুরু করে মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগ। সেই সভায় সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীদের বিজয়ী করতে ২৪ ঘণ্টা কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন কামরুল হাসান রিপন। তারই ধারাবাহিকতায় ভোর থেকে রাত অবধি তার বিরতিহীন গণসংযোগ।

নির্বাচনী প্রচারণা কেমন চলছে জানতে চাইলে কামরুল হাসান রিপন বলেন, ‘সকাল ১০টা থেকে রাত অবধি নির্বাচনী কার্যক্রম চলছে। প্রচারণার পাশপাশি বিভিন্ন থানা এবং ওয়ার্ডের নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করছি। সভা শেষে প্রতিটি ওয়ার্ডের অলি-গলিতে দোকান-পাটের লোকজনসহ মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়ে শেখ হাসিনার উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরছি। নৌকা মার্কাসহ দলীয় মনোনীত প্রার্থীদের ভোট দেওয়ার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি।’

নৌকার প্রচারণায় ২৬ হাজার নেতাকর্মী ব্যস্ত রয়েছেন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘তারা কেন্দ্র ও ওয়ার্ড ভিত্তিক দায়িত্ব পালন করছে। মেয়রের পাশাপাশি ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিল প্রার্থীর পক্ষেও ভোট চাইছেন তারা।’

ভোটারদের দ্বারে গিয়ে নেতাকর্মীরা ভোট চাইছেন জানিয়ে তারিক সাঈদ বলেন, ‘দক্ষিণে ৭৫টি ওয়ার্ড ও ২৪টি থানা রয়েছে। প্রতিটি ওয়ার্ডে আমাদের নেতাকর্মীদের নৌকার পক্ষে কাজ করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। দক্ষিণে নৌকার প্রার্থীর বিজয় সুনিশ্চিত করতে আমাদের নেতাকর্মীরা মাঠে থাকবে।’

আগামী ১ ফেব্রুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ওইদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। পুরো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম)।


ঢাকা/পারভেজ/সনি