RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ১৫ ১৪২৭ ||  ১২ সফর ১৪৪২

মারবে মামলাও করবে, নতুন নিয়ম শুরু: খসরু

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:১৩, ২৭ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
মারবে মামলাও করবে, নতুন নিয়ম শুরু: খসরু

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি নির্বাচনে সরকারের মন্ত্রী-এমপিদের সংশ্লিষ্টতা একেবারেই পরিস্কার। এজন্য স্বাক্ষী প্রমাণের দরকার নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

সোমবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের কাছে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

আমির খসরু বলেন, দেশে যে পরিবেশ, দখলদারিত্ব, খবরদারির রাজনীতি চলছে সেই পরিস্থিতিতে বিএনপি আওয়ামী লীগের ওপর হামলা করেছে তা মানুষ বিশ্বাস করবে? বিশ্বাস করার কোনো কারণ আছে? এখন আপনাকে মারবে আবার আপনার বিরুদ্ধে মামলা করবে- এটা রাজনীতির নতুন নিয়ম শুরু হয়েছে।

এমন কোনো আচরণ বিধি নেই যা সরকার পক্ষ ভঙ্গ করছে না উল্লেখ করে আমির খসরু বলেন, নির্বাচনে সরকারের মন্ত্রী-এমপিদের সংশ্লিষ্টতা একেবারেই পরিস্কার। এর জন্য স্বাক্ষী প্রমাণের দরকার নেই। ঢাকার শহরে ফুটপাতের ওপর কমপক্ষে একশ নির্বাচনী অফিস করেছে আওয়ামী লীগ প্রার্থিরা। এসব অফিসে লোকজন চেয়ার নিয়ে বসে আছে, মাইক বাজছে। নির্বাচন কমিশনের উচিত সঙ্গে সঙ্গে এগুলো ভেঙে দেয়া। এরপরও অফিস তৈরি করলে তাদেরকে শোকজ করা এবং এরপর আবার অফিস তৈরি করলে প্রার্থিতা বাতিল করা হবে- এটাই আইন। কিন্তু কোনো আইন মানছে না। কেউ এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে না।

তিনি বলেন, নির্বাচনী আচরণ বিধি পুরোপুরো ভঙ্গ করে তারা অবিরাম প্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডে যে বিরাট ব্যবধান- তা কি বাংলাদেশের জনগণ দেখছে না!

খসরু বলেন, ঢাকা শহরে নির্ধারিত আকারের বড় ছবিতে ভরে গেছে। ওভার সাইজের ব্যানারে ভরে গেছে। সবগুলো সরকারি দলের। বিএনপির প্রার্থীদের ওভার সাইজ পোষ্টার নেই। তাহলে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড কোথায় হচ্ছে? একটি দল কিছুই মানছে না। আইন-কানুন না মানার সংস্কৃতি এটা কী হঠাৎ করে পরিবর্তন হয়ে যাবে তা বিশ্বাস করার কোনো কারণ আছে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীর নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধিদল বৈঠকে অংশ নেন। ইসির পক্ষ থেকে বৈঠকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা, নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, মো. রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম ও ইসির সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর উপস্থিত ছিলেন।


ঢাকা/হাসিবুল/সাইফ

রাইজিংবিডি.কম

আরো পড়ুন  

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়