RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ||  ফাল্গুন ১২ ১৪২৭ ||  ১১ রজব ১৪৪২

৪-লেনে উন্নীত হচ্ছে ‘রামপুরা-আমুলিয়া-ডেমরা’ মহাসড়ক

কেএমএ হাসনাত || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০০:২৭, ২৭ জানুয়ারি ২০২১  
৪-লেনে উন্নীত হচ্ছে ‘রামপুরা-আমুলিয়া-ডেমরা’ মহাসড়ক

পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশীপ (পিপিপি) এর আওতায় ‘রামপুরা- আমুলিয়া-ডেমরা’ মহাসড়ক ৪-লেনে উন্নীত করার একটি  প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়েছে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ।

প্রকল্প বাস্তবায়নে সম্ভাব্যতা সমীক্ষা অনুসারে ব্যয় ধরা হয়েছে ২,০৯৪ কোটি ১ লাখ টাকা। এটি বাস্তবায়ন করবে কনসোর্টিয়াম অব চায়না কমিউনিকেশনস কন্সট্রাকশন কোম্পানি লিমিটেড (সিসিসিসিএল) এবং চায়না রোড অ্যান্ড ব্রিজ করপোরেশন (সিআরবিসি)।  

সূত্র জানায়, প্রায় সাড়ে ১৩ কিলোমিটার দীর্ঘ রামপুরা-আমুলিয়া-ডেমরা মহাসড়কটি এক্সপ্রেসওয়ে মানে উন্নীত করা হলে ঢাকা শহরের রামপুরা থেকে ডেমরা হয়ে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের শিমরাইল পর্যন্ত নিরবচ্ছিন্ন যোগাযোগ ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা হবে, ঢাকা শহরের যানজট নিরসনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে এবং ঢাকার সঙ্গে চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের সড়ক যোগাযোগের জন্য নতুন প্রবেশপথ হিসেবে কাজ করবে।

সূত্র জানায়, এ সড়কটির বৈশিষ্ট্য হল - ক) প্রবেশ নিয়ন্ত্রিত ৪-লেনে মহাসড়ক নির্মাণ; খ) ৪-লেন সড়কের উভয়পাশে টোল বিহীন সার্ভিস রোড নির্মাণ; গ) ২টি সেতু, ২টি কালভার্টসহ পথচারী ও স্বল্প গতির যানবাহন পারাপারের জন্য ৩টি আন্ডারপাস নির্মাণ; ঘ) প্রবেশ নিয়ন্ত্রিত মহাসড়কটিতে প্রবেশ এবং বহির্গমনের জন্য নির্ধারিত ৪টি স্থানে (যথা: চিটাগাং রোড মোড়, ডেমরা স্টাফ কোয়ার্টার, মেরাদিয়া ও রামপুরা সেতুতে) ৪টি ইন্টারচেঞ্জ রাখা হয়েছে এবং এ ৪টি স্থানের মাধ্যমে মহাসড়কে আগত যানবাহনগুলো টোল দেওয়ার মাধ্যমে মহাসড়কটি ব্যবহার করবে; ঙ) প্রকল্প মহাসড়কের শিমরাইল মোড়ে একাধিক স্তরবিশিষ্ট একটি ফ্লাইওভার নির্মাণের মাধ্যমে নারায়নগঞ্জ এবং চট্টগ্রামের ট্রাফিকগুলোর নিরবচ্ছিন্ন প্রবাহ নিশ্চিত হবে; এবং চ) ডেমরা স্টাফ কোয়ার্টার সংলগ্ন এলাকায় একটি টোল প্লাজা নির্মাণ হবে।

রামপুরা-আমুলিয়া-ডেমরা মহাসড়কটি পিপিপি ভিত্তিতে ৪-লেনে উন্নীতকরণের জন্য ২০১৫ সালে পিপিপি প্রস্তাবনা তৈরী করা হয়। প্রস্তাবটি যাচাই করে পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশীপ কর্তৃপক্ষ ২০১৫ সালের ১ নভেম্বর তারিখে অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির নীতিগত অনুমোদনের জন্য পাঠঅনোর বিষয়ে অনাপত্তি দেয়। পিপিপি প্রকল্পটি ২০১৬ সালের ২৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি কর্তৃক নীতিগত অনুমোদিত হয়।

সূত্র জানায়, পিপিপি কর্তৃপক্ষ এ প্রকল্পের ট্রানজেকশন এডভাইজর হিসেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক-কে নিয়োজিত করলে উক্ত সংস্থাটি ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬ তারিখ থেকে পরামর্শ সেবা দিতে শুরু করে। ট্রানজেকশন এডভাইজর প্রকল্পটির কারিগরি, বাণিজ্যিক ও অর্থনৈতিক সম্ভাব্যতা সমীক্ষা প্রতিবেদন তৈরী, দরপত্র দলিল প্রণয়ন, বিনিয়োগকারীর সংক্ষিপ্ত তালিকা তৈরী এবং প্রস্তাব মূল্যায়নে সহায়তা করে।

প্রকল্প সড়কে ২০২৫ সালে প্রায় ৩০ হাজার  ট্রাফিক প্রক্ষেপণ করা হয়েছে। কারিগরি সমীক্ষা অনুযায়ী রামপুরা থেকে ডেমরা হয়ে চিটাগাং রোড মোড় পর্যন্ত  ৪-লেন এক্সপ্রেসওয়ে এবং উভয় পাশে ২-টি একমুখী সার্ভিস সড়কের সংস্থান রাখা হয়েছে। ন্যুনতম ভ’মি অধিগ্রহণ ও পুনর্বাসন এবং উন্নততর ট্রাফিক চলাচলের স্বার্থে প্রকল্পটির সম্ভাব্যতা সমীক্ষায় মোট ৯.৫ কিলোমিটার সড়ক এলিভেটেড এবং ৪  কিলোমিটার সড়ক এ্যাট গ্রেডএ নির্মাণের প্রস্তাব করা হয়েছে। সম্ভাব্যতা সমীক্ষা অনুসারে প্রকল্পটির মোট নির্মাণ ব্যয় ২,০৯৪.০১ (দুই হাজার চুরানব্বই কোটি এক লাখ) কোটি টাকা প্রাক্কলন করা হয়েছে। এছাড়া প্রকল্পের আওতায় ব্যক্তি মালিকানাধীন, বিভিন্ন সরকারি ও স্বায়ত্ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানের মোট ২৫.৪৭ হেক্টর ভ’মি অধিগ্রহণের প্রয়োজন হবে। হাতিরঝিল-রামপুরা সেতু-বনশ্রী-শেখেরজায়গা-আমুলিয়া- ডেমরা মহাসড়ক (চিটাগাং রোড মোড় এবং তারাবো লিংক মহাসড়কসহ) ৪-লেনে উন্নীতকরণের জন্য সহায়ক প্রকল্পে ভ’মি অধিগ্রহণ ও পুনর্বাসন এর ব্যয় ধরা হয়েছে।

অ্যাভিলিটি পদ্ধতিতে সরকারি বাজেট থেকে বিনিয়োগকারীর বিনিয়োগ প্রত্যাবর্তন করার প্রস্তাব করা হয়েছে। অন্যদিকে বিনিয়োগকারী মহাসড়ক ব্যবহারকারীদের নিকট থেকে প্রাপ্ত সমস্ত টোল সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরকে দিবে। সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর প্রয়োজনবোধে টোলের হার কম/বেশী করতে পারবে।

ট্রানজেকশন এডভাইজর প্রকল্পটিকে কারিগরি দিক বিবেচনায় বাস্তবায়নযোগ্য এবং অ্যাভেইলাবল পেমেন্ট কাঠামোতে বেসরকারি বিনিয়োগকারীর অংশগ্রহণে বাণিজ্যিকভাবে উপযোগী হিসেবে বিবেচনা করেছে। প্রকল্পের অর্থনৈতিক ইন্টারন্যাল রেট অব রিটার্ণ (ইআইআরআর) ২২.৩% এবং বেনিফিট কস্ট অনুপাত ৪.৩৪%। এছাড়া সম্ভাব্যতা সমীক্ষা অনুসারে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হলে তা দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে অবদান রাখবে বলে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ আশা করছে।

এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব অনুমোদনের জন্য বুধবার অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠেয় অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে উপস্থাপন করা হবে বলে সূত্র জানিয়েছে।

হাসনাত/নাসিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়