Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ২৮ নভেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৪ ১৪২৮ ||  ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

৩০৭ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারে দরপতন

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৪০, ২৫ অক্টোবর ২০২১  
৩০৭ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারে দরপতন

ডিএসইতে অতিমাত্রায় সূচক পতনের প্রতিবাদ করেন বিনিয়োগকারীরা। ছবি: রাইজিংবিডি

শেয়ারবাজারে সোমবার (২৫ অক্টোবর) বড় ধরনের দরপতন হয়েছে। এদিন সূচকের ব্যাপক পতনের মধ্য দিয়ে লেনদেন শুরু হয়ে শেষ পর্যন্ত তা অব্যাহত ছিল। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১২০ পয়েন্ট পতন হয়েছে। একইসঙ্গে ৩০৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারে দরপতন হয়েছে, কমেছে লেনদেনের পরিমাণও।

আরও পড়ুন: শেয়ারবাজারে পতন, বিনিয়োগকারীদের প্রতিবাদ

লেনদেন পর্যালোচনায় দেখা গেছে, গত ১১ অক্টোবর থেকে ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সূচকে ধারাবাহিক পতন হয়েছে।  এর মধ্যে গত ২১ অক্টোবর সাত কার্যদিবস পর সূচক উত্থানে ফিরে।  তবে পরের কার্যদিবস ২৪ অক্টোবর আবারো বড় পতন হয় দেশের উভয় শেয়ার বাজারে। সোমবার বেলা সোয়া ১১টার আগেই ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১০০ পয়েন্টের উপরে পতন হয়েছে। এতে সূচক ৬ হাজার পয়েন্টের কোটায় নেমে গেছে। আলোচ্য সূচক বেলা ১২.৩৬ টায় ১৬৪ পয়েন্ট পতন হয়েছে। এ সময় অন্যান্য সূচকেও পতন হয়েছে। পরবর্তী সময়ে পতন থেকে একাধিকবার ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছে বাজার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পতনের মধ্য দিয়েই লেনদেন শেষ হয়েছে।

এদিকে, বাজারে বড় ধরনের পতনের কারণে সাধারণ   বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। তারা তাদের হাতে থাকা শেয়ার বিক্রি করে নিরাপদে অবস্থান করার চেষ্টা করে। বাজারে ব্যাপক পতন হওয়ার কারণে বেলা ১২টা থেকে মতিঝিল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পুরাতন ভবনের সামনে সাধারণ বিনিয়োগকারীরা জড়ো হতে থাকে এবং বেলা দেড়টার দিকে তারা বিক্ষোভ করেছে। এ সময় বিক্ষোভকারী সাধারণ বিনিয়োগকারীরা তাদেরকে ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করতে বাজারে পতন রোধে দায়িত্বশীলদের প্রতি আহ্বান জানান।

সোমবার (২৫ অক্টোবর) আগের কার্যদিবসের চেয়ে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১২০ পয়েন্ট কমে ৬ হাজার ৮৮৫ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। ডিএসইর অন্য সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ২২ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৪৬৫ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৫৩ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ৬৪৪ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

ডিএসইতে লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৪৭০ কোটি ৪৩ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ৪৭১ কোটি ৪ লাখ টাকা। ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৭৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বেড়েছে ৪৭টির, কমেছে ৩০৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২২টি শেয়ার দর।

অপরদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৪০০ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ২০ হাজার ১৬৯ পয়েন্টে, সিএসই ৫০ সূচক ৩৭ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৫২৬ পয়েন্টে এবং সিএসসিএক্স সূচক ২৩৭ পয়েন্ট কমে ১২ হাজার ১২৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

সিএসইতে লেনদেন হওয়া ২৯৪টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বেড়েছে ৩৭টির, কমেছে ২৪৬ টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১১টির শেয়ার দর। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৬০ কোটি ৬০ লাখ টাকা।

ডিএসইতে অতিমাত্রায় সূচক পতনের প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিনিয়োগকারীরা। দুপুর দেড়টার দিকে মতিঝিলে ডিএসই’র পুরনো ভবনের সামনে দাঁড়িয়ে বেশকিছু বিনিয়োগকারী প্রতিবাদ জানিয়েছেন।
 

এনএফ/এসবি 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়