Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ২০ ১৪২৮ ||  ২৭ রবিউস সানি ১৪৪৩

ওয়ালটনের নতুন মডেলের ওয়াশিং মেশিন উদ্বোধন করলেন সালমান এফ রহমান

এম মাহফুজুর রহমান || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:০৬, ২৮ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ১৫:১২, ২৮ অক্টোবর ২০২১
ওয়ালটনের নতুন মডেলের ওয়াশিং মেশিন উদ্বোধন করলেন সালমান এফ রহমান

ওয়ালটনের ওয়াশিং মেশিনের নতুন মডেল উদ্বোধন করছেন সালমান এফ রহমান

নতুন মডেলের ওয়াশিং মেশিন বাজারে ছেড়েছে সুপারব্র্যান্ড ওয়ালটন। সম্প্রতি ওয়ালটন কারখানায় ওই ওয়াশিং মেশিন উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

শনিবার (২৩ অক্টোবর, ২০২১) গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটন কারখানা পরিদর্শনকালে WWM-ATV80  মডেলের নতুন ওয়াশিং মেশিন উদ্বোধন করেন সালমান এফ রহমান।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ভাইস চেয়ারম্যান এস এম শামছুল আলম, পরিচালক এস এম রেজাউল আলম, এস এম মঞ্জুরুল আলম ও সাবিহা জারিন অরনা এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম মুর্শেদ এবং আইএফআইসি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম. শাহ আলম সরোয়ার প্রমুখ।

পরিদর্শনকালে ওয়াশিং মেশিনসহ ওয়ালটন পণ্য তৈরির প্রক্রিয়ার প্রশংসা করেন সালমান এফ রহমান। তিনি বলেন, ওয়ালটনের সুন্দর সাজানো গোছানো কারখানা দেখে আমি মুগ্ধ। ওয়ালটন কারখানায় বিভিন্ন ধরনের পণ্য উৎপাদন হচ্ছে। বিশেষ করে ওয়ালটনের প্রোডাক্ট ডাইভারসিটি দেখে ভীষণ ভালো লেগেছে। প্রোডাকশন লাইনে অনেক ধরনের পণ্য রয়েছে। তাদের একটি শক্তিশালী রিসার্চ অ‌্যান্ড ইনোভেশন বা আরএন্ডআই টিম রয়েছে যা আমাকে অভিভূত করেছে। এটা আমাদের দেশের জন্য খুবই দরকার।

ওয়ালটন হোম অ্যাপ্লায়েন্সের চিফ বিজনেস অফিসার (সিবিও) আল ইমরান জানান, বাজারে ওয়ালটনের ফ্রন্ট লোড, টপ লোড ও সেমি অটোমেটিক এই তিন ধরনের মোট ৩০ মডেলের ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিন রয়েছে। আকর্ষণীয় ডিজাইন ও ফিচার থাকায় ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিনের চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ওয়াশিং মেশিন কেনা যাচ্ছে সাশ্রয়ী দামে। ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিনের দাম রাখা হচ্ছে ৬ হাজার ৯০০ টাকা থেকে ৫৯ হাজার ৯০০ টাকার মধ্যে। ওয়ালটনের ওয়াশিং মেশিন রপ্তানি হচ্ছে ভারত, পূর্ব তিমুর, নেপাল ও ইয়েমনসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে।

ওয়াশিং মেশিন প্রোডাক্টের আরএন্ডআই বিভাগের ইনচার্জ খায়রুল বাসার জানান, নতুন ওয়াশিং মেশিনটির ধারণক্ষমতা ৮ কেজি। কালো রঙের এই ওয়াশিং মেশিনে ব্যবহৃত হয়েছে ভিসিএম কেবিনেট, সফট ক্লোজিং টেমপারড গ্লাস, এন্টি ব্যাকটেরিয়াল পালসেটর, এন্টি রোডেন্ট র‌্যাট মেশ। আছে শক্তিশালী মোটর। এসব ফিচার থাকায় ওয়াশিং মেশিন হয়েছে টেকটসই। তেমনি খুব সহজেই ব্যবহার করতে পারছেন যেকোনো বয়সের মানুষ। ইউরোপিয়ান এনার্জি স্ট্যান্ডার্ড অনুসারে তৈরি হওয়ায় ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিনে সবচেয়ে কম বিদ্যুৎ খরচ হয়। ভিসিএম কেবিনেট থাকায় মেশিনের গায়ে সহজে দাগ এবং মরিচা পড়ে না। এন্টি রোডেন্ট র‌্যাট মেশ ফিচার থাকায় ভেতরে ইঁদুর প্রবেশ করতে পারে না।

কর্মকর্তারা জানান, ওয়াশিং মেশিন ব্যবহার বিষয়ে সচেতনতা বাড়াতে দেশব্যাপী ব্যাপক কর্মযজ্ঞ চালাচ্ছে ওয়ালটন। এ উপলক্ষে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে রোড শো পরিচালনা করছে প্রতিষ্ঠানটি। ঢাকা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, সিলেট, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ, ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়া, কুমিল্লা, নোয়াখালী, ফেনী ও নারায়ণগঞ্জে ইতোমধ্যেই অনুষ্ঠিত হয়েছে প্রথম পর্বের রোড শো। শিগগিরই শুরু হবে রোড শোর দ্বিতীয় পর্ব। ওয়াশিং মেশিন নিয়ে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধিই রোড শোর মূল উদ্দেশ্য।

ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিনের ব্র্যান্ড ম্যানেজার মো. পারভেজ বলেন, ওয়াশিং মেশিন এখন আর বিলাসী পণ্য নয়। দৈনন্দিন জীবনে এটি অতি প্রয়োজনীয়। দেশেই নিজস্ব বিশাল কারখানায় ওয়াশিং মেশিন উৎপাদন করছে ওয়ালটন। ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিন কেনায় জিরো ইন্টারেস্টে ১২ মাসের কিস্তি সুবিধা রয়েছে। ২৯টি ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে কেনা যাচ্ছে ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিন। দামে সাশ্রয়ী ও মানে ভালো হওয়ায় বাজারে ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিনের চাহিদা বাড়ছে দিন দিন।

ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিন কেনায় ক্রেতারা পাচ্ছেন ফ্রি ইনস্টলেশন সুবিধা। তিন বছরের বিক্রয়োত্তর সুবিধার সঙ্গে থাকছে এক বছর পর্যন্ত হোম সার্ভিস। ইনভার্টার মোটরে ক্রেতারা উপভোগ করছেন সর্বোচ্চ ১২ বছরের ওয়ারেন্টি সুবিধা। দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা দিতে আইএসও সনদপ্রাপ্ত সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের আওতায় সারাদেশে ওয়ালটনের রয়েছে ৭৬টি সার্ভিস সেন্টার। এসব সেন্টারের মাধ্যমে নিরবচ্ছিন্ন বিক্রয়োত্তর সেবা পাচ্ছেন গ্রাহকরা।

মাহফুজ/এসবি

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়