ঢাকা     শনিবার   ২৯ জানুয়ারি ২০২২ ||  মাঘ ১৫ ১৪২৮ ||  ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

এপিএ স্বাক্ষরে চার সংস্থার সাড়া মিলছে না

কেএমএ হাসনাত || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:১৯, ৪ ডিসেম্বর ২০২১  
এপিএ স্বাক্ষরে চার সংস্থার সাড়া মিলছে না

দেশের চার নিয়ন্ত্রক সংস্থা অর্থ মন্ত্রণালয়ের ‘আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ’-এর সঙ্গে ‘বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি’ (এপিএ) সম্পাদনে সাড়া দিচ্ছেনা। 

এই চার নিয়ন্ত্রক সংস্থার মধ্যে রয়েছে- বাংলাদেশ ব্যাংক, বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ), বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ও মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটি (এমআরএ)।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এই চার নিয়ন্ত্রক সংস্থার নির্দিষ্ট ফোকাল পয়েন্টদের কাছে বিষয়টি নিয়ে ইতোমধ্যে দুই দফা চিঠি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তাদের কাছ থেকে তেমন কোনো ইতিবাচক সাড়া পাওয়া যায়নি।

সূত্র জানায়, এপিএ’র লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে আরো গতিশীলতা আনতে চার নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে এপিএ’র আওতায় আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগেরও সম্মতি বা নির্দেশনা রয়েছে। নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর সঙ্গে এপিএ সই করার বিষয়টি ইতোপূর্বেও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সভায় একাধিকবার আলোচনা হয়েছে।

সভাগুলোতে বলা হয়েছিল, এই চার সংস্থাগুলোর সঙ্গে এপিএ সই করা হলে তা আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের কার্যক্রম ও লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়নে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে। সবার সঙ্গে এ বিষয়ে একটি বোঝাপড়ারও অবকাশ থাকবে। এরই ধারাবাহিকতায় সর্বশেষ ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরের শেষে নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোকে দ্বিতীয় দফা চিঠি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থারগুলোর কাছ থেকে কোনো মতামত পাওয়া যায়নি।

সূত্র জানায়, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সঙ্গে চুক্তি সই করা হলে নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোকে সংশ্লিষ্ট বিষয়/সূচকগুলোর অর্জনবিষয়ক প্রতিবেদন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে দেওয়া নির্ধারিত সময়ে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগে পাঠাতে হবে এবং প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট তথ্যগুলো পাঠানো নিশ্চিত করতে নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোকে আলাদাভাবে পরিপত্র জারি করতে হবে।

নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর কাছে দ্বিতীয় দফা চিঠি পাঠানোর আগে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের এক সভায় এ সংক্রান্ত একাধিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এর মধ্যে রয়েছে- আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের আওতাধীন নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষগুলোর সঙ্গে চুক্তি সম্পাদনের বিষয়ে এ বিভাগের এপিএ টিমকে উদ্যোগ নিতে হবে এবং এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সঙ্গে অনুষ্ঠিত আলোচনার সূত্র ধরে নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর মতামত চেয়ে আবার চিঠি দিতে হবে।

দ্বিতীয়ত, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের আওতাধীন এপিএ বহির্ভূত নিয়ন্ত্রক সংস্থা যথা- বাংলাদেশ ব্যাংক, বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ) ও বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ফোকাল পয়েন্টরা এ বিভাগের সঙ্গে এপিএ চুক্তি সম্পাদনের বিষয়ে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহীদের সঙ্গে আলোচনা করে তাদের মতামত/পরামর্শ আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগকে অবহিত করবেন।

জানা গেছে, নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর সঙ্গে এপিএ সই করার বিষয়ে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের প্রথম দফার বৈঠকে এরূপ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল যে, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সঙ্গে আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে পৃথক পৃথকভাবে তিন নিয়ন্ত্রক সংস্থার মতামত নেবে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের এপিএ টিম। বাংলাদেশ ব্যাংক, আইডিআরএ ও বিএসইসি-এর ফোকাল পয়েন্টরা আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সঙ্গে চুক্তি সম্পাদনের বিষয়ে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহীদের সঙ্গে আলোচনা করে তাদের মতামত ও পরামর্শ আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগকে অবহিত করবেন।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের এক কর্মকর্তা বলেন, এপিএ চুক্তি সইয়ের বিষয়ে এখন পর্যন্ত তেমন কোনো অগ্রগতি নেই। আর বাংলাদেশ ব্যাংক তার নিজস্ব নীতিতে চলে তাই সংস্থার ওপর কিছু চাপিয়ে দেওয়াও সম্ভব নয়। তবে এ বিষয়ে আলোচনা চালিয়ে যাওয়া হবে।

ঢাকা/টিপু

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়