RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     সোমবার   ৩০ নভেম্বর ২০২০ ||  অগ্রাহায়ণ ১৬ ১৪২৭ ||  ১২ রবিউস সানি ১৪৪২

জাবি উপাচার্যের 'দুর্নীতির খতিয়ান' প্রকাশ

সাভার প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:২৪, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
জাবি উপাচার্যের 'দুর্নীতির খতিয়ান' প্রকাশ

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের 'দুর্নীতির খতিয়ান' প্রকাশ করেছেন ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ এর নেতাকর্মীরা।

মঙ্গলবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন কলা ভবনের শিক্ষক লাউঞ্জে সংবাদ সম্মেলনে এ খতিয়ান প্রকাশ করা হয়। দুই শতাধিক পাতার এক সংকলনে উপাচার্যের নানা অনিয়ম, দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার চিত্র তুলে ধরেন তারা।

‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ এর সংগঠক মুশফিক উস সালেহীনের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে অধ্যাপক জামাল উদ্দিন রনু বলেন, 'উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম অনিয়ম করে যাচ্ছেন। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকতর উন্নয়নের জন্য একটা বড় বাজেট আসার পরেই উপাচার্যের আসল রূপ ধরা পড়ে। যখন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা এসব অনিয়মের বিরুদ্ধে কথা বলেছে, তখনই তিনি হামলা-মামলা করেছেন। গত ৫ নভেম্বর উপাচার্যের নির্দেশে আন্দোলনকারীদের ওপর ছাত্রলীগের একাংশের হামলার পর উপাচার্য তার পদে থাকার নৈতিক অধিকার হারিয়েছেন।'

এ সময় তিনি উন্নয়ন প্রকল্পে উপাচার্যের আর্থিক দুর্নীতি, টেন্ডারে অনিয়ম, উপাচার্যের অতীত দুর্নীতি, অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতা এবং আন্দোলনকারীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলার নানা তথ্য তুলে ধরেন।

ছাত্রফ্রন্টের (মার্ক্সবাদী) বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি মাহাথির মুহাম্মদ বলেন, 'আন্দোলনের বর্তমান এক দফা দাবি হলো- দুর্নীতিগ্রস্ত উপাচার্যের অপসারণ। জাতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত স্পষ্ট দুর্নীতির অভিযোগ এবং তার পরিপ্রেক্ষিতে উপাচার্যের নিষ্ক্রিয়তা, ছাত্রলীগের একাধিক নেতার স্বীকারোক্তি, মাস্টারপ্ল্যানে দুর্নীতি, সর্বোপরি শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপরে ন্যক্ক্যারজনক হামলার পর উপাচার্য আর কোনোভাবেই পদে থাকতে পারেন না।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ এর সমন্বয়ক অধ্যাপক রায়হান রাইন, অধ্যাপক খবির উদ্দিন, অধ্যাপক জামাল উদ্দিন রনু, অধ্যাপক আব্দুল জব্বার হাওলাদার, অধ্যাপক তারেক রেজা, অধ্যাপক মির্জা তাসলিমা সুলতানা, অধ্যাপক শামীমা সুলতানা ও সহযোগী অধ্যাপক খন্দকার হাসান মাহমুদ প্রমুখ। এছাড়া, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, ছাত্রফ্রন্ট, জাহাঙ্গীরনগর সাংস্কৃতিক জোট ও বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকতর উন্নয়নের লক্ষ্যে ১ হাজার ৪৪৫ কোটি টাকার প্রকল্পের অনুমোদন দেয় একনেক। এরপর থেকে মাস্টারপ্ল্যানের পুনর্বিন্যাস, টেন্ডার আহ্বানে অস্বচ্ছতাসহ নানা অভিযোগ তুলে আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একটি অংশ। পরবর্তীতে নানা কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে উপাচার্য অপসারণের দাবিতে এক হন আন্দোলনকারীরা। এ দাবিতে গত ৪ নভেম্বরে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামকে তার বাসভবনে অবরুদ্ধ করেন আন্দোলনকারীরা। ছাত্রলীগের একটি অংশ হামলা চালায় আন্দোলনকারীদের ওপর। এতে শিক্ষক, সাংবাদিকসহ অন্তত ৩৫ জন আহত হন।


সাভার/আরিফুল ইসলাম সাব্বির/রফিক

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়