ঢাকা     শনিবার   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ১১ ১৪২৭ ||  ০৮ সফর ১৪৪২

অসুখ-বিসুখ হলে মিশা-জায়েদ ছুটে যায়: শিল্পী

বিনোদন প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:৩৫, ১৪ অক্টোবর ২০১৯   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
অসুখ-বিসুখ হলে মিশা-জায়েদ ছুটে যায়: শিল্পী

চলচ্চিত্রের আলোচিত চিত্রনায়িকা শিল্পী। ২০০০ সালে চলচ্চিত্র থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন। এরপর দীর্ঘদিন বিএফডিসি বা চলচ্চিত্রের কোনো অনুষ্ঠানে দেখা যায় না তাকে। তবে গত দুই বছর ধরে চলচ্চিত্র শিল্পীদের আর্থিক সহায়তাসহ নানাভাবে পাশে দাঁড়াতে দেখা যাচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে শিল্পী বলেন, ‘চলচ্চিত্র থেকে একটু দূরে রয়েছি। বিগত দিনে শিল্পী সমিতি থেকে বছরে দুইবার এসএমএস পেতাম। পিকনিকে আর ইফতার পার্টিতে। এর পর কেউ ডাকতেন না। মাহমুদ কলি ভাইয়ের সময় আর মিশা-জায়েদ আমাদের ডেকেছেন। কোথাও গেলেও তারা আমাদের ডেকেছেন। এছাড়া গত দুই বছর কোরবানির জন্য আমার কাছে টাকা চেয়েছে জায়েদ। আমি দিয়েছি। সর্বশেষ গত বছরের কোরবানির সময় আমার হাতের অবস্থা ভালো ছিল না। তারপরও জায়েদ শিল্পীদের জন্য এমনভাবে চেয়েছে আমি না দিয়ে পারিনি। এর আগে এভাবে কেউ চায়নি।’

তিনি আরো বলেন, ‘বিগত দিনে যেসব কাজ হয়নি বর্তমান কমিটি তা করেছে। আমাদের শিল্পীরা যারা মারা গেছেন তাদের বেশির ভাগ শিল্পীকে সবাই ভুলে গেছে, ওরা (মিশা-জায়েদ) তাদের নামে কোরআন খতম, মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করেছে। কারো অসুখ-বিসুখ হলে মিশা-জায়েদ পাগলের মতো ছুটে যায়। মিশা-জায়েদ গত দুই বছর অনেক ভালো কাজ করেছে। সিনিয়রদের যেটুকু সম্মান তারা দেখিয়েছে, তাতে আমি খুশি, আমরা তো তার-ই কাঙ্গাল। সেটাই তারা দিয়েছে, দেখিয়েছে। কারো পক্ষ না নিয়ে বলব, সবাই মিলেমিশে আসুন চলচ্চিত্রকে বাঁচানোর চেষ্টা করি। আমরা শিল্পী সবাই দিন শেষ একটা ঘরের মানুষ। শিল্পী সমিতি একটা অলাভজনক সংগঠন। আমি বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ দেখেছি যে সবাই বলছেন নির্বাচনে অংশ নিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু ব্যস্ততার জন্য নির্বাচনে অংশ নিতে পারিনি। আপনাদের যদি এতই ব্যস্ততা থাকে তাহলে সমিতি নিয়ে এত কথা বলছেন কেন? হয় আপনার সমিতির হাল ধরেন না হয় যারা ধরতে চাইছেন তাদেরকে ধরতে দিন। নিজেরাও পারছেন না যারা কাজ করছেন তাদেরও করতে দিচ্ছেন না। এটা তো হতে পারে না। কারণ শিল্পীরা তো এতটা বোকা না যে, ভাই একটা ভোট দেন আর দিয়ে দিলো ভালো মন্দ না বুঝে।’

নতুন নেতৃত্বে যারা আসবেন তাদের কাছে প্রত্যাশ ব্যক্ত করে শিল্পী বলেন, ‘যারা নির্বাচিত হবে তাদের কাছে আমার প্রত্যাশা সমিতির আরো উন্নয়ন হোক। আমাদের সিনেমার সুদিন ফিরে আসুক। আর যারা নির্বাচন করছেন সবার জন্য আমার পক্ষ থেকে শুভ কামনা রইল।’

আগামী ২৫ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন। নির্বাচনকে ঘিরে এফডিসিতে উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। এবার প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করছেন চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন। তিন সদস্যের আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রযোজক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম খান। বাকি দুজন সদস্য হলেন—পরিচালক সোহানুর রহমান ও রশিদুল আমিন হলি।

আওলাদ হোসেন চাকলাদার পরিচালিত ‘নাগ নর্তকী’। তবে মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম চলচ্চিত্র মোহাম্মদ হোসেন পরিচালিত ‘বাংলার কমান্ডো’। এটি ১৯৯৫ সালের ৫ মে মুক্তি পায়। এতে তার বিপরীতে ছিলেন আমিন খান। এরপর শিল্পী নায়করাজ রাজ্জাকের ‘বাবা কেন চাকর’, আবুল খায়ের বুলবুলের ‘ক্ষমা নেই’, নূর হোসেন বলাইয়ের ‘শক্তের ভক্ত’, মোহাম্মদ হোসেনের ‘মুক্তি চাই’, শহীদুল ইসলাম খোকনের ‘লম্পট’সহ আরো অনেক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি।

শিল্পী অভিনীত মুক্তিপ্রাপ্ত সর্বশেষ চলচ্চিত্র দুটি হচ্ছে—নায়করাজ রাজ্জাকের ‘প্রেমের নাম বেদনা’ এবং দেওয়ান নজরুলের ‘সুজন বন্ধু’।

 

ঢাকা/রাহাত সাইফুল/শান্ত

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়