ঢাকা, শুক্রবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

আলাউদ্দীন আলীকে কেমোথেরাপি দেওয়া যাচ্ছে না

বিনোদন প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১১-১২ ৪:১১:৪৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১১-১২ ৪:১৩:১০ পিএম

বরেণ্য গীতিকার, সুরকার, সংগীত পরিচালক আলাউদ্দীন আলী। দীর্ঘদিন ধরে মরণব্যাধি ক্যানসারে ভুগছেন তিনি। উন্নত চিকিৎসার জন্য এই শিল্পীকে থাইল্যান্ডে নেওয়া হয়েছে। গত ৬ অক্টোবর থেকে ব্যাংককের স্যামিটিভেজ সুকুমভিত হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তার সঙ্গে আছেন স্ত্রী ফারজানা মিমি আর ছোট মেয়ে আদ্রিতা আলাউদ্দিন রাজকন্যা।

শারীরিক দুর্বলতার কারণে আলাউদ্দীন আলীকে এখন কেমোথেরাপি দেওয়া যাচ্ছে না। কিছুটা সুস্থ হলে তাকে কেমোথেরাপি দেওয়া হবে বলে রাইজিংবিডিকে জানিয়েছেন সুরকার ও সংগীত পরিচালক ফরিদ আহমেদ। ফরিদ আহমেদ বলেন, ‘আমার সাথে ফেসবুক ইনবক্সে যোগাযোগ হয়েছিল মিসেস ফারজানা আলী মিমির। আমাকে জানান উনার (আলাউদ্দিন আলী) চিকিৎসক ডা. ফুচাই পিতাক্কিতনুকুন জানিয়েছেন ফুসফুসের ক্যানসার আগের মতোই আছে। তবে দুর্বলতার জন্য এখন আর কেমোথেরাপি দেয়া যাচ্ছে না। উনার দুর্বলতা কাটানোর জন্য এখন চিকিৎসা চলছে। চিকিৎসক আশা করছেন মাস তিনেকের মধ্যে উনি দুর্বলতা কাটিয়ে উঠবেন।’

আলাউদ্দিন আলীর মেয়ে আদৃতা মিমি বলেন, ‘আমার বাবা ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন। আল্লাহ যেন আমার বাবাকে সম্পূর্ণ সুস্থ করে তুলেন সেই জন্য সবার কাছে দোয়া চাই।’

২০১৫ সালে প্রথম ক্যানসার ধরা পড়ে আলাউদ্দিন আলীর। সেই সময় টানা ছয় মাস চিকিৎসা করে তিনি সুস্থ হয়ে উঠেন। কয়েক মাস আগে পরীক্ষা করার পর দেখা যায়, তার শরীরে ক্যানসারের জীবাণু রয়েছে। চিকিৎসকরা তাকে ব্যাংককে নেওয়ার পরামর্শ দেন। এরপর চিকিৎসকদের পরামর্শে আলাউদ্দিন আলীকে ব্যাংকক নেওয়া হয়েছে।

চলতি বছর ২২ জানুয়ারি গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় মহাখালীর আয়েশা মেমোরিয়াল হাসপাতালে আইসিইউতে ভর্তি হন সংগীত পরিচালক আলাউদ্দিন আলী। এরপর তার অবস্থার অবনতি হলে, টানা ২৬ দিন লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। গত ১৭ ফেব্রুয়ারি আলাউদ্দিন আলীকে বিশেষ কেবিনে স্থানান্তর করা হয়। সাভারের সিআরপি হাসপাতালে ছিলেন প্রায় পাঁচ মাস। এরপর বাসায় ফিরেছিলেন তিনি।

আলাউদ্দীন আলীর সংগীতে প্রথম হাতেখড়ি ছোট চাচা সাদেক আলীর কাছে। ১৯৬৮ সালে যন্ত্রশিল্পী হিসেবে চলচ্চিত্রজগতে পা রাখেন তিনি। শুরুটা শহীদ আলতাফ মাহমুদের সহযোগী হিসেবে, পরে প্রখ্যাত সুরকার আনোয়ার পারভেজের সঙ্গে দীর্ঘদিন কাজ করেন।


ঢাকা/রাহাত সাইফুল/শান্ত

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন