ঢাকা, শুক্রবার, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৫ জুন ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

বাবা বাড়ি যেতে নিষেধ করেছিলেন: নওয়াজউদ্দিন

বিনোদন ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৪-১০ ৪:৫০:৪৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৪-১০ ৮:১৫:২২ পিএম

এই সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী। অভিনয় গুণে ভক্তদের মনে জায়গা করে নিয়েছেন।

কিন্তু ক্যারিয়ারের শুরুতে তাকে অনেক স্ট্রাগল করতে হয়েছে। গ্যাং অব ওয়াসিপুর সিনেমায় প্রথম একটি পূর্ণাঙ্গ চরিত্র পান তিনি। এর আগে ছোটখাটো চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এজন্য পরিবারের লোকের কাছেও কথা শুনতে হতো তাকে। এমনকি এই অভিনেতা জানান, তাকে বাড়ি যেতে নিষেধ করেছিলেন তার বাবা।

এক সাক্ষাৎকারে ক্যারিয়ারের শুরুর দিকের স্মৃতিচারণ করে নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী বলেন, “আমি যখন ছোটখাটো চরিত্রে অভিনয় করতাম বাবা হতাশ হতেন। তিনি বলতেন, ‘তুমি কেন এই ছোট চরিত্রগুলো করো, যেখানে তোমাকে মার খেতে হয়। দয়া করে বাড়িতে এসো না, পরিবারের লোকজনকে লজ্জিত হতে হয়। প্রতিবেশীরা বলে তোমার ছেলে মার খেয়েছে।’ তিনি মনে করতেন আমি সত্যি সতিই মার খেয়েছি। তবে পরে তিনি বুঝতে পেরেছেন সবই অভিনয়। তিনি আমাকে ছোট চরিত্রে অভিনয় করতে নিষেধ করতেন।”

মুম্বাইয়ে আসার পর বন্ধুদের কাছে ধার করে চলতেন এই অভিনেতা। তিনি বলেন, ‘আমি বন্ধুদের কাছ থেকে দুইদিনের জন্য টাকা ধার করতাম। দুইদিন পর অন্যজনের কাছে টাকা ধার নিয়ে প্রথম জনকে ফেরত দিতাম। আমি যে ফ্ল্যাটে থাকতাম তাতে আরো চারজন থাকত। কোনো রকমে টিকে থাকা। পাশাপাশি ছোটখাটো কাজ করতাম— মাঝে মাঝে নৈশপ্রহরী, কখনো আবার ধনিয়া পাতা বেচতাম। একশয়ের উপরে অডিশন দিয়েছি, যেই চরিত্র পেতাম সেটিই করতাম, যত ছোটই হোক। সিনেমায় পূর্ণাঙ্গ চরিত্র পেতে ১২ বছর লেগেছে। মোটেও সহজ ছিল না, অনেক স্ট্রাগল করতে হয়েছে। শুধুই স্ট্রাগল।’ 

 

ঢাকা/মারুফ