ঢাকা, শুক্রবার, ২৬ আষাঢ় ১৪২৭, ১০ জুলাই ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

শুটিং সেটেই রাভিনা-কারিশমার হাতাহাতি

বিনোদন ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৫-২৫ ৫:৫৬:২৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৫-২৫ ৯:০৯:৫৩ পিএম

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, দীপিকা পাড়ুকোন থেকে আলিয়া ভাট— সবার মধ্যেই বেশ ভালো বন্ধুত্ব। এমনকি হালের সারা আলী খান, জানভি কাপুর ও অন্যান্য পান্ডেও প্রতিদ্বন্দ্বির চেয়ে নিজেদের বন্ধু হিসেবে পরিচয় দিতেই বেশি পছন্দ করেন। কিন্তু আশি-নব্বইয়ের দশকে বলিউড নায়িকাদের মধ্যে দ্বন্দ্বের বিষয়টি দেখা যেতো। এর মধ্যে কারিশমা কাপুর ও রাভিনা ট্যান্ডনের দ্বন্দ্বের কথা সবার জানা।

সমসাময়িক অভিনেত্রী হওয়ায় দুজনের মধ্যে বেশ প্রতিযোগিতা চলত। এমনকি একসঙ্গে অভিনয় করলেও শুটিং সেটে তারা কথাও বলতেন না। শুধু তাই নয়, শুটিং সেটে হাতের হাতাহাতির ঘটনাও রয়েছে।

১৯৯৪ সালে মুক্তি পাওয়া ‘আতিশ’ সিনেমার সেটে কারিশমা ও রাভিনার দ্বন্দ্ব হাতাহাতি পর্যায়ে পৌঁছে যায়। ঘটনার বর্ণনা দিয়ে কোরিওগ্রাফার-নির্মাতা ফারাহ খান এক টক শোয়ে বলেন, “অনেকদিন আগে কারিশমা ও রাভিনা ট্যান্ডনের সঙ্গে একটি গানে কাজ করছিলাম। সিনেমার নাম ছিল ‘আতিশ’। তাদের মধ্যে কিশোরীসুলভ বিবাদ ছয়েছিল। তারা উইগ (পরচুলা) দিয়ে পরস্পরকে মারতে থাকে। তারা যে উইগ পরেছিল তা বেণী করা ছিল এবং সেগুলোতে পুতি ছিল। একজন উইগ দিয়ে অঘাত করছিল, অন্যজন হিল দিয়ে পায়ে পাড়া দিচ্ছিল। বিষয়টি অত্যন্ত শিশুসুলভ। আমি নিশ্চিত, এখন এটি মনে করে তারাও হাসবে।”

এখানেই শেষ নয়, কারিশমা-রাভিনার দ্বন্দ্ব নিয়ে আরো মজার ঘটনা রয়েছে। বলিউডের অন্যতম সাড়া জাগানো সিনেমা ‘আন্দাজ আপনা আপনা’। এই সিনেমায় অভিনয় করেছেন তারা। কিন্তু শুটিং সেটে পরস্পরের সঙ্গে কোনো কথা বলতেন না। সিনেমার ক্লাইমেক্স দৃশ্যের শুটিংয়ের সময় এই দুজনকে খুঁটির সঙ্গে বেঁধে রেখেছিলেন পরিচালক রাজকুমার সন্তোষী।

এ প্রসঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে রাভিনা বলেন, ‘সালমান ও আমির খান আমাকে ও কারিশমাকে এক করার জন্য অনেক চেষ্টা করেছে। ক্লাইমেক্স দৃশ্যে কারিশমা ও আমাকে একটি খুঁটির সঙ্গে বেঁধে রাখার একটি দৃশ্য ছিল। রাজজি বলেছিলেন, আমরা পরস্পরের সঙ্গে কথা বললে তবেই তিনি বাঁধন খুলে দেবেন।’

তবে এখন কারিশমার সঙ্গে তার সম্পর্ক ভালো বলে জানান রাভিনা। তিনি বলেন, ‘আমাদের মেয়েরা একই স্কুলে পড়ত। তাই প্রায়ই আমাদের দেখা হতো ও এক সময় সুসম্পর্ক গড়ে ওঠে। আড্ডা দিতে দিতে মেয়েদের নিয়ে আলোচনা করতে সহজ হতো।’

 

ঢাকা/মারুফ