ঢাকা, রবিবার, ২১ আষাঢ় ১৪২৭, ০৫ জুলাই ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

তারকাদের দৃষ্টিতে ব্যক্তি শাকিব খান

রাহাত সাইফুল : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৫-২৮ ১২:৫১:১৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৫-২৮ ৩:৫৭:৫৮ পিএম
ছবির কোলাজ

চলচ্চিত্রে একজন অভিনয়শিল্পীকে পরিচালক যেমন চরিত্রে অভিনয় করতে বলেন, তেমন চরিত্রই ফুটিয়ে তুলতে হয় শিল্পীকে। পর্দায় একজন চিত্রনায়ককে ভালো চরিত্রে দেখে আমরা মুগ্ধ হই। আবার একজন খলনায়কের চরিত্রে দেখে তার উপর রাগও করি। কিন্তু পর্দার বাইরেও একজন শিল্পী ব্যক্তিগত জীবনে মানুষ হিসেবে কেমন তা হয়তো অনেকেরই অজানা। এ তথ্য জানতে প্রয়োজন ওই শিল্পীর সহচর্য।

ধারাবাহিক আয়োজনের প্রথম পর্ব সাজানো হয়েছে ঢাকাই চলচ্চিত্রের নাম্বার ওয়ান খ্যাত নায়ক শাকিব খানকে নিয়ে। তিনি মানুষ হিসেবে কেমন? এ প্রশ্নের উত্তর জানতে কথা হয় ঢাকাই চলচ্চিত্রের ছয় জনপ্রিয় চিত্রনায়িকার সঙ্গে। যারা প্রত্যেকেই শাকিব খানের সঙ্গে বিভিন্ন সিনেমায় অভিনয় করেছেন। এ চিত্রনায়িকাদের দৃষ্টিতে শাকিব খান কেমন তা নিয়েই এ প্রতিবেদন।

পূণির্মা: শাকিব খান একজন শিল্পী হিসেবে অনেক ভালো। কাজের প্রতি তার আগ্রহ অনেক। মানুষ হিসেবেও অনেক ভালো মনের মানুষ। সহশিল্পীদের কাজের ক্ষেত্রে সে অনেক হেল্প করে থাকে।

মুনমুন: শাকিব খুবই ভালো একজন মানুষ। তার মধ্যে কোনো অহংকার নেই। কাজ সে খুব ভালোবাসে। কাজের প্রতি শাকিব খুব মনোযোগী। সহশিল্পীদের কাজের ক্ষেত্রেও সহযোগিতা করে থাকে।

শাহানূর: শাকিব খানের শুরুর দিকের সিনেমায় কাজ করেছি। সাধারণত একজন কো আর্টিস্টের সঙ্গে সবাই ভালো ব্যবহার করে। আর শাকিব খান ভালো না হলে সে সুপারস্টার হতে পারতো না।

রত্না: আমি দুজন শাকিব খানকে চিনি। শাকিবের সঙ্গে ‘পড়েনা চোখের পলক’ সিনেমায় আমি প্রথম কাজ করি। তারপর অনেকগুলো সিনেমায় কাজ করেছি। তখন আমি খুব হিট ছিলাম। এই সিনেমায় শাকিবকে আমার খুব খেয়াল করে দেখা হয়নি। শাকিব যখন সুপার হিট তখন ওর সঙ্গে প্রথম ‘হট লাইন’ শিরোনামের সিনেমায় কাজ করি। শাকিবকে যে যাই বলুক, আমি বলব—শাকিব প্রচন্ড ইমোশনাল। ও হয়তো নিজেও জানে না সে কতটা ইমোশনাল। শাকিবের মধ্যে একটা জিনিস সবচেয়ে বেশি রয়েছে, যা অন্য শিল্পীদের ক্ষেত্রে এতটা চোখে পড়ে না। শাকিব আল্লাহকে অনেক ভয় করে। রোজার মাসে শাকিবের সঙ্গে বেশি শুটিং করেছি। রোজার মাসে শাকিব খানকে আর অন্য মাসের শাকিব খানকে মিলাতে পারিনি। রোজার মাসে ওকে নামাজ পড়তে দেখেছি। আমাকে এই শাকিব খানকে অনেক ভালো লাগে। তা ছাড়া বাচ্চাদের ও অনেক পছন্দ করে। শাকিবের সঙ্গে কেউ রাগ করে কথা বললে ওর চোখে পানি চলে আসে।

রেসি: একজন কো আর্টিস্ট হিসেবে শাকিব অনেক হেল্পফুল। ব্যক্তিগতভাবেও ভালো মানুষ। আমি যখন শহিদুল ইসলাম খোকন পরিচালিত ‘চেহারা’ সিনেমার কাজ করি তখন অসুস্থ ছিলাম। আমার টাইফয়েড হয়েছিল। অসুস্থ শরীর নিয়েই শুটিং করছিলাম। শাকিব খান আমার এ অবস্থা দেখেছে। আমার খুব খারাপ অবস্থা থাকা সত্ত্বেও একদিনও শুটিং বাদ দিইনি। তখন শাকিব বলে, ‘তুমি এত অসুস্থ তারপরও কেন শুটিং করছো?’ আমি তখন বলি, ‘এখন শুটিং না করলে তোমার তো আবার শিডিউল পাওয়া যাবে না।’ শাকিব তখন বলে, ‘দেখ মানুষের শরীর আগে। তুমি যদি বিছানায় পড়ে যাও তাহলে কিন্তু তোমার কেউ খবর নিবে না। নিজে আগে ঠিক থাকবা। তোমার অসুস্থতার কারণে আমি শিডিউল দিতে পারব।’ এভাবে অনেক ক্ষেত্রে হেল্প করতো শাকিব।

আঁচল আঁখি: শাকিব ভাইয়ের সঙ্গে কাজ করে আমি কিছুটা অবাক হয়েছি। কারণ তার মতো সুপাস্টার যে এতটা হেল্পফুল হয় তা আমি আগে বুঝিনি। তিনি কাজের ক্ষেত্রে সহশিল্পীকে অনেক হেল্প করে থাকেন। মানুষ হিসেবেও অনেক ভালো।

 

ঢাকা/রাহাত সাইফুল/শান্ত