Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ১০ ১৪২৮ ||  ১৬ সফর ১৪৪৩

অমিতাভ রেজার অনুদানের টাকা ফেরত দেওয়ার নেপথ্যে  

প্রকাশিত: ১৮:৪২, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৯:০৩, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১
অমিতাভ রেজার অনুদানের টাকা ফেরত দেওয়ার নেপথ্যে  

‘আয়নাবাজি’খ্যাত নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী চলতি অর্থবছরে হুমায়ূন আহমেদের উপন্যাস ‘পেন্সিলে আঁকা পরী’র জন্য সরকারি অনুদান পান। কিন্তু হঠাৎ করেই এই নির্মাতা ঘোষণা দিয়েছেন- অনুদানের টাকা সরকারি কোষাগারে ফেরত দেবেন তিনি।

সিনেমাটি নির্মাণের জন্য ৬০ লাখ টাকার মধ্যে প্রথম ধাপে ১৮ লাখ টাকা পেয়েছেন অমিতাভ রেজা। তিনি জানান, অনুদান কমিটির সঙ্গে তার আলোচনা হয়েছে। দু’একদিনের মধ্যেই তিনি পুরো টাকা সরকারকে ফেরত দেবেন।

অনুদানের জন্য সরকারি নির্মাতারা অপেক্ষায় থাকেন। সরকারি অনুদান না পেলে যেখানে অনেক নির্মাতাকে আক্ষেপ করতে দেখা যায় সেখানে তিনি অনুদান পেয়েও কেন ফেরত দিচ্ছেন? এই প্রশ্নের উত্তরে অমিতাভ রেজা জানান, ‘পেন্সিলে আঁকা পরী’ সিনেমা নির্মাণের জন্য দুই দফায় তিনি কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের কাছ থেকে অনুমতি নিয়েছেন। তার পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গেও একাধিকবার এই সিনেমা নির্মাণের বিষয়ে পজিটিভ আলোচনা হয়েছে। তারপরই তিনি অনুদানের জন্য চিত্রনাট্য জমা দেন।

জানা যায়, হুমায়ূন আহমেদের মৃত্যুর পর তার সাহিত্য ও নির্মাণ বিষয়ে কিছু নিয়ম তৈরি করা হয়েছে ট্রাস্টি বোর্ড গঠনের মাধ্যমে। যে বোর্ডে হুমায়ূন পরিবারের সদস্যরা রয়েছেন। ‘পেন্সিলে আঁকা পরী’ সিনেমাটি অনুদান পাওয়ার পর ট্রাস্টি বোর্ডের চূড়ান্ত অনুমোদন নিতে গেলে তারা নির্মাতাকে বেশ কিছু নতুন শর্ত দেন। নির্মাতা মনে করেন, শর্তগুলো মেনে সিনেমাটি নির্মাণ করতে গেলে গল্পটির প্রতি অবিচার করা হবে। অমিতাভের ভাষ্য অনুযায়ী ‘আমি শর্তগুলোর বিরোধিতা করছি না। তবে সব শর্ত মেনে সিনেমাটি বানাতে গেলে সিনেমাটি আর হবে না। বরং স্যারের গল্পের অবমাননা করা হবে বলে আমি সিনেমাটি নির্মাণ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

একাধিক সূত্র বলছে, অমিতাভের এই সিনেমা না করতে পারা বা অনুদান ফেরত দেয়ার মূল কারণ হুমায়ূন আহমেদ ট্রাস্টি বোর্ডের বড় অঙ্কের অর্থনৈতিক শর্ত। সিনেমা নির্মাণের আগে তো বটেই, মুক্তির পরেও রেভিনিউ শেয়ার করার নানা শর্ত তারা দিয়েছেন বলে জানা গেছে। 

ঢাকা/রাহাত সাইফুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়