ঢাকা     রোববার   ২৯ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৯ ||  ২৭ শাওয়াল ১৪৪৩

জয়ার সঙ্গী চঞ্চল-মনোজ বাজপেয়ী

বিনোদন ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:২৫, ২৮ ডিসেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৭:১৬, ২৮ ডিসেম্বর ২০২১
জয়ার সঙ্গী চঞ্চল-মনোজ বাজপেয়ী

নকশাল আন্দোলন নিয়ে ওয়েব সিরিজ নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছেন পরিচালক সায়ন্তন মুখার্জি। কথা ছিল, চারু মজুমদার চরিত্রে অভিনয় করবেন বলিউড অভিনেতা নওয়াজউদ্দীন সিদ্দিকী। আর তার স্ত্রী লীলা মজুমদারের চরিত্রে দেখা যাবে জয়া আহসানকে। কিন্তু এ খবর অস্বীকার করেন নওয়াজউদ্দীন।

নওয়াজউদ্দীনের বক্তব্য প্রকাশ্য আসার পর ‘সাদা আমি কালো আমি’ সিরিজ নিয়ে আলোচনায় ভাটা পড়ে। এবার পরিচালক জানালেন, বদলে যাচ্ছে এ সিরিজের শিল্পীরা। নওয়াজউদ্দীনের পরিবর্তে চারু মজুমদার চরিত্রে অভিনয় করবেন মনোজ বাজপেয়ী। জয়াকে লীলা মজুমদারের চরিত্রেই দেখা যাবে। তবে নতুন সঙ্গী হয়েছেন চঞ্চল চৌধুরী।

এই পরিবর্তনের কারণ ব্যাখ্যা করে সায়ন্তন ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘‘বেঁকে বসেছেন নওয়াজ। তারিখ নিয়ে সমস্যা হচ্ছে। পারিশ্রমিকও বাড়িয়ে দিয়েছেন অনেকটাই। অন্যদিকে, মনোজ পুরোটা জানার পরেই সিরিজটি নিয়ে যথেষ্ট আগ্রহী। তাই তিনিই ‘চারু মজুমদার’ হয়ে পর্দায় আসতে চলেছেন। আর প্রযোজক ও আমার ইচ্ছায় চারুর ‘ছায়া সঙ্গী’ হতে চলেছেন চঞ্চল চৌধুরী।’’

এ ওয়েব সিরিজের পটভূমি ১৯৬৭ সালের নকশাল আন্দোলন। তৎকালীন বিতর্কিত পুলিশ অফিসার রুণু গুহ নিয়োগীর লেখা ‘সাদা আমি কালো আমি’ উপন্যাস অবলম্বনে বাংলা, হিন্দি, ইংরেজি ভাষায় নির্মিত হবে এই সিরিজ।

কিছুদিন পরই মুক্তি পাবে এই নির্মাতার নতুন সিনেমা ‘ঝরা পালক’। জীবনানন্দ দাশের জীবনী নিয়ে নির্মিত হয়েছে এই চলচ্চিত্র। এতে কবির স্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন জয়া আহসান। ওয়েব সিরিজে জয়া আহসানকে কাস্ট করার বিষয়ে পরিচালক সায়ন্তন বলেন—‘আমার জয়া যোগ আগে থেকেই। জয়া অনুরোধ জানিয়েছিলেন, জাতীয় স্তরের কাজে তাকে সুযোগ দেওয়ার জন্য। সেই জায়গা থেকেই লীলা মজুমদারের চরিত্রের জন্য বলতেই এক কথায় রাজি হন তিনি।’

ওয়েব সিরিজের জন‌্য বিতর্কিত রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট বেছে নেওয়ার কারণ ব‌্যাখ‌্যা করে সায়ন্তন বলেন—‘‘মুম্বাইয়ের পটভূমিকায় যদি ‘সেক্রেড গেমস’ বা উত্তরপ্রদেশকে নিয়ে ‘মির্জাপুর’ সিরিজ তৈরি হতে পারে তা হলে বাংলাই বা পিছিয়ে থাকবে কেন? পশ্চিমবঙ্গের আন্দোলনের ইতিহাসও তুলে ধরার সময় এসেছে। সেই জায়গা থেকেই আমার এই উপন্যাস নির্বাচন।’’

গত দেড় বছর ধরে চিত্রনাট্যের প্রাথমিক খসড়া তৈরি করেছেন পরিচালক। তাকে সাহায্য করেছেন ‘অন্ধাধুন’ সিনেমার লেখক অরিজিৎ বিশ্বাস। সায়ন্তন জানিয়েছেন, আগামী দিনে বলিউডের বড় চিত্রনাট্যকার যোগ দেবেন তার সঙ্গে।

প্রাথমিক পরিকল্পনা অনুযায়ী, তিনটি পর্বে দেখানো হবে এই সিরিজ। প্রথম পর্বে থাকবে ১৯৪৭-১৯৭২ সাল। ১৯৭২-১৯৯০ পর্যন্ত উঠে আসবে দ্বিতীয় পর্বে। শেষ পর্বে থাকবে ১৯৯০ সাল থেকে বর্তমান প্রেক্ষাপট। দ্বিতীয় ভাগে থাকবেন কিষেণজি, বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। পুরোটাই টানটান রাজনৈতিক সিরিজ।

আগামী বছর এ সিরিজের শুটিং শুরু হবে। কলকাতা, মুম্বাই, কেরালা, অন্ধ্রপ্রদেশের পাশাপাশি চীন, রাশিয়াতেও সিনেমাটির দৃশ‌্যধারণের কাজ হবে বলে পরিকল্পনা করেছেন নির্মাতা।

ঢাকা/শান্ত

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়