ঢাকা     সোমবার   ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ১৭ ১৪২৯

সালমান আমাকে দিনের পর দিন সিগারেটের ছ্যাঁকা দিয়েছে: সোমি আলী

বিনোদন ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:৫৪, ২ ডিসেম্বর ২০২২   আপডেট: ১২:৫৬, ২ ডিসেম্বর ২০২২
সালমান আমাকে দিনের পর দিন সিগারেটের ছ্যাঁকা দিয়েছে: সোমি আলী

বলিউড সুপারস্টার সালমান খান। ব্যক্তিগত জীবনে তার সঙ্গে অনেক নায়িকার প্রেমের গুঞ্জন শোনা গেছে। তাদের একজন পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত অভিনেত্রী সোমি আলী। গত বছর বোম্বে টাইমসের সঙ্গে আলাপকালে সালমানের সঙ্গে তার প্রেম নিয়ে মুখ খুলেন। এবার অভিযোগ করলেন— সালমান খান তাকে অনেকবার সিগারেটের ছ্যাঁকা দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) সোমি আলী তার ইনস্টাগ্রামে সালমানের একটি ছবি পোস্ট করেন। আর ক্যাপশনে এ অভিনেত্রী বলেন—‘আরো আসবে। ভারতে আমার শো বন্ধ করে মামলার হুমকি দাও। তুমি একটা কাপুরুষ। দিনের পর দিন তুমি আমাকে সিগারেটের ছ্যাঁকা দিয়েছো, শারীরিক-যৌন নির্যাতন করেছো। ওখানে আমার ৫০ জন আইনজীবী রয়েছে, যারা আমাকে এসব থেকে রক্ষা করবে। সুতরাং…।’

‘তুমি পুরুষ নও শুকর। বেশ কয়েকজন নারীকে মারধরের পরও যেসব অভিনেত্রীরা তোমাকে এখনো সমর্থন করে, তাদের জন্য লজ্জা হয়।’ বলেন সোমি আলী।

তবে পরবর্তীতে সোমি আলী তার এই পোস্ট ইনস্টাগ্রাম থেকে মুছে ফেলেছেন। কি কারণে নিজের পোস্ট মুছে ফেললেন তা জানাননি। কিন্তু ততক্ষণে যা হওয়ার তা হয়ে গিয়েছে। পোস্টের স্ক্রিনশট দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়েছে নেটদুনিয়ায়।

এবারই প্রথম নয়, এর আগেও সালমাণ খানের বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ তুলেছিলেন সোমি আলী। গত আগস্টে ইনস্টাগ্রামে সালমান খান ও অভিনেত্রী ভাগ্যশ্রীর ‘ম্যায়নে প্যায়ার কিয়া’ সিনেমার পোস্টার শেয়ার করে সোমি আলী লেখেন, ‘মেয়েদের গায়ে হাত তোলে। শুধু আমাকে নয়, আরো অনেকের সঙ্গেই এমন করেছে। দয়া করে তাকে পূজা করা বন্ধ করুন। একটা স্যাডিস্টিক সিক। আপনাদের কোনো ধারণাই নেই।’

তবে এসব অভিযোগের বিষয়ে এখনো মুখ খুলেননি সালমান খান।

‘আন্ত’ (১৯৯৪), ইয়ার গাদ্দার (১৯৯৪), ‘আও পেয়ার কারে’ (১৯৯৪), ‘চুপ’ (১৯৯৭) সিনেমায় অভিনয় করেছেন সোমি। সালমান খানের সঙ্গে তার প্রেমের গুঞ্জন শোনা গেছে। যদিও তা বেশিদিন টেকেনি। এ প্রসঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে সোমি বলেছিলেন, ‘সালমান আমাকে ঠকিয়েছে। আমি জানতে পেরে ওকে ছেড়ে দিয়েছি। খুব সহজ একটা কারণ।’

বলিউড ছেড়ে দীর্ঘদিন আড়ালে ছিলেন সোমি। বর্তমানে একজন সমাজকর্মী হিসেবে পরিচিত তিনি। নারী অধিকার নিয়ে কাজ করেন। ‘নো মোর টেয়ার্স’ নামে তার একটি দাতব্য সংস্থা আছে। নারীদের নিয়ে কাজ করে এটি।

ঢাকা/শান্ত

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়