ঢাকা     রোববার   ২৯ জানুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ১৬ ১৪২৯

সেই ফারিণের দুঃখ প্রকাশ

প্রকাশিত: ১৭:১২, ৪ ডিসেম্বর ২০২২   আপডেট: ১৭:২২, ৪ ডিসেম্বর ২০২২
সেই ফারিণের দুঃখ প্রকাশ

ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী তাসনিয়া ফারিণ। দুর্ঘটনার কবলে পড়ে গুরুতর আহত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গত ২ ডিসেম্বর রাতে ঢাকার একটি শপিং মলের চলন্ত সিঁড়িতে দুর্ঘটনার শিকার হন তিনি। ৩ ডিসেম্বর বিষয়টি নিয়ে ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে বিস্ফোরণ ঘটান ফারিণ। প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ করেন এই অভিনেত্রী।

তবে এ ঘটনার একদিন পর নিজের বক্তব্য থেকে সরে এসেছেন ফারিণ। ঘটনার পেছনের ঘটনা জানতে পেরেছেন, তা দাবি করে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। পাশাপাশি পূর্বের স্ট্যাটাস মুছে, নতুন আরেকটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন এই অভিনেত্রী।

লেখার শুরুতে ফারিণ বলেন—‘একটা ঘটনা ঘটলে সে ঘটনার পেছনেও অনেক ঘটনা ও কারণ থাকে, তাৎক্ষণিকভাবে হয়তো সবটা উপলব্ধি করা সম্ভব হয় না; তবে পরবর্তীতে অনেক কিছু খোলাসা হয়। আমার পূর্ববর্তী স্ট্যাটাস আমি ডিলিট করে দিয়েছি। কারণ সেটা শুধু গতকাল পর্যন্ত হয়ে যাওয়া ঘটনার ভাষ্য ছিল। কিন্তু দুর্ঘটনা হওয়ার পরবর্তী ঘটনাগুলোর আরেকটা দিক আমার স্ট্যাটাসের পর সামনে এসেছে।’

তৃতীয় পক্ষ ফারিণকে মিথ্যা তথ্য দিয়েছেন। তা উল্লেখ করে এ অভিনেত্রী বলেন, ‘ঘটনা পরবর্তী যেসকল কার্যক্রম নিয়ে আমার অভিযোগ ছিল, তার বেশিরভাগই তৃতীয় পক্ষ দ্বারা সংঘটিত। মধ্যম ব্যক্তি আমাদেরকে একটা কথা বলেছেন এবং ম্যানেজমেন্টকে আমাদের নামে বানিয়ে মিথ্যা কথা বলেছেন। শুক্রবার হওয়ার কারণে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সবাই ছুটিতে ছিলেন এবং সদ্য চলতি মাসে জয়েন করা কর্মচারীর কারণে এ বিস্তর ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়; যা ওই কর্মকর্তার পাঠানো হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজগুলো দেখে আরো পরিষ্কার বুঝতে পারি।’

দুঃখ প্রকাশ করে ফারিণ বলেন, ‘গত রাতে প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে আমার ভালো লেগেছে। একজন কর্মকর্তার জন্য পুরো প্রতিষ্ঠানকে দোষারোপ করাটা ঠিক না এবং এ ব্যাপারে হয়তো আমার আরেকটু বোঝার প্রয়োজন ছিল। সেজন্য আমি দুঃখ প্রকাশ করছি। ধন্যবাদ শপিং মলটির কর্তৃপক্ষকে; বিষয়টি এত গুরুত্বসহকারে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য। ধন্যবাদ আমার বাসায় এসে সেসব ভুল বোঝাবুঝির অবসান ঘটানোর জন্য।’

কর্তৃপক্ষের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে ফারিণ বলেন, ‘আসলে আমার জন্য ব্যক্তিগত সম্মানের জায়গাটা অনেক বড়। সেটা নিশ্চিত করতে আপনারা যা করেছেন তার জন্য আমি কৃতজ্ঞ। এই শপিং মলে অনেকেই নিয়মিত কেনাকাটা করতে যান। আশা রাখছি, যেসব জায়গায় কমতি রয়েছে সেগুলোর সমাধান করে ক্রেতাদের একটি নিরাপদ ও সুন্দর পরিবেশ নিশ্চিত করবেন।’

ঢাকা/রাহাত/শান্ত

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়