RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২১ ||  মাঘ ১৪ ১৪২৭ ||  ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

ডিজিটাল মাছওয়ালা যেভাবে হলেন শুভঙ্কর

জি এম আদল || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:৪০, ৩ ডিসেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৪:৪২, ৩ ডিসেম্বর ২০২০
ডিজিটাল মাছওয়ালা যেভাবে হলেন শুভঙ্কর

বাঙালিকে বলা হয় ‘মাছে-ভাতে বাঙালি।’ এটি বাঙালির হাজার বছরের পরিচয়। আদিকাল থেকেই ভাতের সঙ্গে মাছ তার প্রথম পছন্দ। অতীতে মানুষ ফরমালিনমুক্ত তাজা মাছ কিনে খেতো। আধুনিকতার যুগে এখন নির্ভেজাল তাজা মাছ পাওয়া দুর্লভ হয়ে দাঁড়িয়েছে।  ফলে ভোজনপ্রিয় মৎস্যপ্রেমীরা হাতের নাগালে তাজা ও নির্ভেজাল মাছ পাচ্ছে না। অন্যদিকে নাগরিক ব্যস্ততার কারণে বাজারে গিয়ে মাছ কেনারও সময় পাচ্ছেন না অনেকেই।

এ সমস্যার সমাধানের এক ভিন্ন উদ্যোগের নাম ‘সেল ফিশ বিডি’। এই অনন্য উদ্যোগের উদ্যোক্তার নাম শুভঙ্কর বিশ্বাস। তিনি গ্র্যাজুয়েশন সম্পন্ন করে পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন ব্যাংকের চাকরি।  ব্যাংক কর্মকর্তা হলেও উদ্যোক্তা হয়ে কাজ করাই তার নেশা। রাইজিংবিডি উদ্যোক্তা পাতায় জি এম আদলের নেওয়া সাক্ষাৎকারে উঠে এসেছে তার উদ্যোক্তা হওয়ার গল্প। 

জি এম আদল: আপনার উদ্যোক্তা হয়ে ওঠার গল্পটা জানতে চাই।

শুভঙ্কর বিশ্বাস: আসলে আমি বংশগতভাবে জেলে পরিবারের সন্তান। ছোটবেলা থেকেই মাছ নিয়ে কাজ করি। মাছ ধরা ও বিক্রি করা আমাদের বংশপরম্পরায় চলে আসছে। চাকরির সুবাদে আমার ঢাকায় আসা। ঢাকায় এসে যখন বাজারে মাছ কিনতে যাই, তখন সুপারশপের ওই বরফ চাপা পুরনো বাসি মাছগুলো দেখে বুঝতে পারি, ঢাকাবাসী মাছের আসল স্বাদটাই পায় না। উপরন্তু ফরমালি তো আছেই।

তখনই ভাবনাটা মাথায় আসে, এই সমস্যার সমাধান হওয়া দরকার। এই বিষাক্ত, বাসি-পচা মাছ আমরা আমাদের সন্তানদের খেতে দিতে পারি না। তাই তাদের সুস্থতার বিষয়টি মাথায় রেখে আমি সুলভমূল্যে বিষমুক্ত দেশি মাছের প্রয়োজন বোধ করি। মাছ যেহেতু মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য, আর ঢাকার মানুষ খুবই ব্যস্ত সময় পার করে, তাদের পক্ষে বাজারে গিয়ে মাছ কেনা অনেকটা কষ্টসাধ্য ব্যাপার, তাই আমার মাথায় আসে, যদি অনলাইনভিত্তিক মাছের একটা বাজার হতো, তাহলে কতই না ভালো হতো! মানুষ তখন ঘরে বসেই মাছের অর্ডার দিতে পারতো। নির্দিষ্ট সময়ে ঘরে বসেই তার কাঙ্ক্ষিত মাছ পেয়ে যেতো। 

এই ভেজালের শহরে মানুষের স্বাস্থ্যের দিকে খেয়াল রেখে ভালো ফরমালিনমুক্ত মাছটি আমি সবার কাছে পৌঁছে দিতে পারবো, যেহেতু আমার মাছের উৎস হবে বিভিন্ন নদী, খাল-বিল, হাওড়-বাওড় ইত্যাদি।  আর এটির মাধ্যমে প্রান্তিক পর্যায়ের জেলেরাও উপকৃত হবে। 

জি এম আদল: এত ভাবনা থাকতে SellFishbd-এর ভাবনা কীভাবে এলো?

শুভঙ্কর বিশ্বাস: ক্রেতাদের স্বাদ ও সাধ্যের মধ্যে সবচেয়ে সেরা দেশি মাছটি তাদের দরজায় পৌঁছে দেওয়ার ভাবনা থেকেই এই উদ্যোগের শুরু হয়। আসলে আমি ছোটকাল থেকেই পারিবারিক কারণে এই মাছ ধরা ও বিক্রির সঙ্গে যুক্ত  থাকার সুবাদে এই বিষয়ের প্রতি আগ্রহ আগে থেকেই ছিল। 

জি এম আদল: সেল ফিস বিডির সার্ভিস সিস্টেম সম্পর্কে যদি বলতেন।

শুভঙ্কর বিশ্বাস: এটি বাংলাদেশের প্রথম কাস্টমাইজড ফিস মার্কেট। আমরা প্রি বা অগ্রিম অর্ডারের ভিত্তিতে আমাদের সেবা দেই। আমাদের বিশেষত্ব হচ্ছে, সব পণ্য সাবজেক্ট ম্যাটার এক্সপার্ট (SME) দিয়ে সংগ্রহ করি।  তার মানে হচ্ছে যারা মাছ বিষয়ে অভিজ্ঞ, শুধু তাদের দিয়ে মান যাচাই-বাছাই করে ক্রেতাদের সরবরাহ করে থাকি। 

এই মুহূর্তে আমরা ঢাকাতে অর্ডার কনফার্ম করার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মাছ হোম ডেলিভারি করছি। কাস্টমারদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে আমরা রেডি টু কুক, মানে সরাসরি রান্নার উপযোগী করে মাছ সরবারহ করার সেবা চালু করেছি। 

আরেকটা বিষয় হচ্ছে—SellFishbd Focused on value creation rather than sales. শুধু বিক্রি নয়, বরং Sustainable Selling through Customer Satisfaction বিষয়টি আমরা মেনে চলি। বিষয়টি একটা উদাহরণ দিয়ে বলি। আমাদের একজন সম্মানিত ক্রেতা অগ্রিম পাঁচ ধরনের মাছের অর্ডার করেছিলেন, কিন্তু আমরা তাকে তিন ধরনের মাছ দিয়েছি। কারণ, বাকি দুই রকম মাছ আমাদের কোয়ালিটি স্ট্যান্ডার্ড কোয়ালিফাই করতে পারিনি। আমরা আমাদের সেই ক্রেতাকে বিষয়টি জানিয়ে দিয়েছি। আমরা মাছের মানের ব্যাপারে শতভাগ নিশ্চিত না হয়ে মাছ সরবরাহ করি না। 

আমরা আমাদের মাছগুলো বিভিন্ন নদী, খাল-বিল থেকে সংগ্রহ করি। যেমন রুই, কাতল, মৃগেল রাজশাহী থেকে আসে। শিং, মাগুর, টেংরা, বোয়াল, আইড়  বিভিন্ন নদী, খাল, বিল থেকে সংগ্রহ করি। আমাদের নিজস্ব প্রতিনিধিদের মাধ্যমে সংগ্রহ করে গ্রাহকের কাছে পৌঁছে দেই।

জি এম আদল: এখন প্রতিমাসে কী পরিমাণ বিক্রি হচ্ছে?

শুভঙ্কর বিশ্বাস: আমরা আমাদের গ্রাহক সংখ্যা নিয়ে সন্তুষ্ট। কারণ, তেমন কোনো প্রচার ছাড়াই শুধু আমাদের মাছের গুণাগুণ ও স্বাদ আমাদের গ্রাহক সংখ্যা ব্যাপকহারে বৃদ্ধি করে চলেছে। আমাদের প্রতিটি গ্রাহকই আমাদের এই দেশি মাছের কোয়ালিটি নিয়ে অনেক বেশি সন্তুষ্ট। আর আমরা গ্রাহকের এই সন্তুষ্টি ধরে রাখতে চাই, তাই গ্রাহক সংখ্যা বৃদ্ধি আমাদের মূল লক্ষ্য নয়, মূলত আমাদের যে সব গ্রাহক আছেন, তাদের সর্বাধিক মানসম্পন্নও সুস্বাদু দেশি মাছ সরবরাহ করাই আমাদের মূল লক্ষ্য। 

গতমাসে আমাদের বিক্রির পরিমাণ ছিল দুই লাখ সত্তর হাজার টাকা। আমাদের সবচেয়ে বড় অর্জনের জায়গা হচ্ছে আমাদের ৭০ শতাংশ এর অধিক রিপিটেড কাস্টমার। 

জি এম আদল: SellFish bd নিয়ে আপনার স্বপ্ন কী?

শুভঙ্কর বিশ্বাস: SellFishbd নিয়ে আমাদের সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা রয়েছে। আমরা অনলাইন ভিত্তিক বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় দেশি মাছের ব্র্যান্ড হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে চাই। যেখানে শুধু নদী-নালা, খাল-বিলের দেশি সুস্বাদু মাছ পাওয়া যাবে, যা কৃত্রিম উপায়ে চাষ করা নয়। গ্রামের নদী খাল-বিলের সেই দেশি মাছ শহরের মানুষের ক্রয়-ক্ষমতার মধ্যে তাদের দরজায় পৌঁছে দেওয়াই Sellfishbd লক্ষ্য। আর এর মাধ্যমে গ্রামের জেলেরা যেমন মাছের সঠিক দাম পাবেন, তেমনি এই প্রক্রিয়ায় সম্পৃক্ত হয়ে অনেকের কর্মসংস্থানেরও সুযোগ হবে। 

জি এম আদল: এত ব্যস্ততার মাঝেও আমাদের সময় দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ। 

শুভঙ্কর বিশ্বাস: আপনাকে ও রাইজিংবিডিকেও অসংখ্য ধন্যবাদ।

ঢাকা/মাহি

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়