ঢাকা, বুধবার, ১৫ মাঘ ১৪২৬, ২৯ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

ন্যাশনাল আইডি বা রুপার গহনা বন্ধক রেখে পেঁয়াজ

শাহিদুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১২-০৭ ১:১৬:৩৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১২-০৭ ২:৪৪:৩১ পিএম

পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধিতে সারাদেশে তোলপাড়! প্রতিদিন বাড়ছে পেঁয়াজের দাম। দামের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে হতাশা বাড়ছে সাধারণ মানুষের। চায়ের দোকান থেকে অফিসপাড়া, সংসদ থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম সর্বত্র চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

মূল্য বৃদ্ধির জন্য কেউ ঘূর্ণিঝড়, কেউ মজুতদার, আবার কেউ ভারতকে দায়ী করছেন। সরকার পরিস্থিতি বিবেচনা করে পেঁয়াজ আমদানী করছে বিভিন্ন দেশ থেকে। বাণিজ্যমন্ত্রী স্বয়ং বলেছেন- আমি পদত্যাগ করলে যদি পেঁয়াজের দাম কমে তাহলে আমি প্রস্তুত। তাতেও কিছু হচ্ছে না। বাজারে মিয়ানমার, মিসরের পেঁয়াজও পাওয়া যাচ্ছে। শুধু নেই ভারতীয় পেঁয়াজ!

পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধির জন্য ভারতকে দায়ী করছেন যারা তারা হয়তো জানেন না, ভারতেও পেঁয়াজের মূল্য অস্বাভাবিক বেড়ে গেছে! আমরা এই মূল্য বৃদ্ধি মেনে নিলেও ভারতের সাধারণ মানুষ কিন্তু বিভিন্নভাবে প্রতিবাদ করছেন। কেউ স্বর্ণের দোকানে কাচের ভিতর পেঁয়াজ রাখছেন, কেউ বন্ধুর বিয়েতে পেঁয়াজ উপহার দিচ্ছেন। এবার উত্তর প্রদেশের একদল লোক ঋণ হিসেবে পেঁয়াজ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

উত্তর প্রদেশের বারাণসিতে এই হাস্যরস সৃষ্টিকারী ঘটনাটি ঘটেছে। যারা এই ঘোষণা দিয়েছেন তারা সবাই সমাজবাদী পার্টির লোক। মূলত প্রতিবাদের জন্যই তারা অভিনব এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তাদের একজন গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ঋণ হিসেবে পেঁয়াজ নিতে গেলে গ্রহীতাকে তাদের আধার কার্ড জমা দিতে হবে। আধার কার্ড হলো ভারত সরকারের Unique Identification Authority of India দ্বারা প্রদত্ত প্রত্যেক ভারতীয় নাগরিকের জন্য একটি বিশেষ নম্বর যুক্ত পরিচয় পত্র। এই কার্ড নাগরিকের পরিচয় ও ঠিকানার প্রমাণপত্র। তবে কেউ যদি কার্ড জমা না দিতে চান তাহলে রুপার গহনা জমা দিলেও হবে।

অভিনব এই উদ্যোগ এলাকায় বেশ সাড়া ফেলেছে। কারণ উত্তর প্রদেশে পেঁয়াজের মূল্য এর আগে কখনো এত বেশি হয়নি। সেখানে বর্তমানে পেঁয়াজ কেজিতে ১০০ রুপি ছাড়িয়েছে।

সমাজবাদী দলের কর্মীরা জানিয়েছেন, তাদের উদ্যোগ বৃথা যায়নি। মানুষ বুঝতে পারছে কেন এই কাজ আমরা করেছি। পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধিতে তাদের পক্ষ থেকে এমন প্রতিবাদ অব্যাহত থাকবে।



ঢাকা/তারা