ঢাকা, বুধবার, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৬ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ঘুরে ঘুরে বেড়ায় ঘুরঘুরি খায়েরি

শামীম আলী চৌধুরী : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৯-১৮ ৫:০০:২০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৯-১৮ ৫:০০:২০ পিএম

শীতের দিন। ভোরের কুয়াশার চাদরে ঢাকা পদ্মা নদী। নানা প্রজাতির পাখি আকাশে উড়ে বেড়াচ্ছে। অনেকেই আবার নদীর পাড়ে কাদা-বালুতে খাবার খুঁজছে। নৌকায় বসে প্রকৃতির দৃশ্য দেখছি। এরই মাঝে সূর্য উঁকি দিয়েছে। সূর্যের আলো নদীতে পড়ায় ধীরে ধীরে কুয়াশা কেটে যাচ্ছে। এমন পরিবেশে বিভিন্ন প্রজাতির পাখির অনেকগুলো ছবি তুলে দুপুর কাটিয়ে দিলাম।

নৌকাতেই দুপুরের খাবার শেষে সিমলা এসে নামলাম। সিমলা ভ্রমণকারীদের জন্য খুবই সুন্দর একটি স্থান। অনেক পরিবার দেখলাম ঘুরে বেড়াচ্ছে। সিমলায় একটি ঘন ঝোঁপের ভিতর ডোবা আছে। সেই ডোবার ধারে গেলাম। রাজশাহীর একজন ফটোগ্রাফার ছবি তুলছেন। তার পাশে বসলাম। ব্লুথ্রট, সবুজ-পা, চা-পাখি, নলফুটকি প্রজাতির কিছু পাখির ছবি তুললাম। হঠাৎ দেখা গেল ঝোপের ভিতর থেকে একটি পাখি বের হয়ে ঘুরছে, পানি ও খাবার খাচ্ছে। পাখিটি খুব কাছে চলে এলো। রাঙা ক্রেক বা ঘুরঘুরি খায়েরি পাখিটি প্রথম দেখার পর ছবি তোলার জন্য মনের ভেতরে উত্তেজনা বেড়ে গেল। বেশ কয়েকটি ছবি তুললাম। হাসি মুখে সিমলা ছেড়ে হোটেলে ফিরলাম।

রাঙা ক্রেক বা ঘুরঘুরি খায়েরি porzana গোত্রের অন্তর্ভূক্ত ২২ সে.মি. দৈর্ঘ্যের ছোট আকারের মরচে-লাল রঙের জলচর পাখি। এর পিঠের দিক কালচে জলপাই-বাদামি। মুখ ও দেহের নিচের দিক থেকে অনুজ্জ্বল তামাটে। থুতনি ও গলা জলপাই-বাদামি। লেজের নিচে সাদা ডোরা আছে। চোখ ও চোখের চারপাশ গাঢ় লাল রঙের। ঠোঁট বাদামি-সবুজ। পা ও পায়ের পাতা ইটের মত লাল রঙের। পুরুষ ও মেয়ে পাখির চেহারা অভিন্ন। অপ্রাপ্তবয়স্ক পাখির রং প্রাপ্তবয়স্ক পাখি থেকে অনেকটা আলাদা। পৃথিবীতে ৪ উপপ্রজাতির মধ্যে বাংলাদেশে এক উপপ্রজাতি রয়েছে।

ঘুরঘুরি খায়েরি হাওর, বিল, নলবন, প্লাবিত ধানক্ষেত ও উদ্ভিদবেষ্টিত ঝোপের মাঝে ডোবায় বিচরণ করে। সচরাচর একা একা ঘুরঘুর করে ঘুরে বেড়ায়। নিজেদের প্রয়োজনে অনেক সময় জোড়ায় থাকে। পানির ধারে ও কাদা মাটিতে হেঁটে বেড়ায় ও খাবার খায়। এদের খাবার তালিকায় রয়েছে পোকা, পোকার লার্ভা, শামুক, কেঁচো ও জলজ উদ্ভিদের বীজ। হাঁটা ও খাবারের সময় এরা লেজ উপর নিচ খাড়া করে ঘন ঘন নাড়ায়। জুন থেকে অক্টোবর মাস পর্যন্ত এদের প্রজনন সময়। প্রজননকালে মাটি থেকে ৮-৯ ফুট উঁচুতে ঘন ঝোপে বা বাঁশঝাড়ে লতা-পাতা ও গুল্ম দিয়ে অগভীর বাটির মত ছোট বাসা বানায়। নিজেদের বানানো বাসায় মেয়ে পাখিটি ৬-৭টি ডিম পাড়ে। উভয়ে ডিমে তা দেয় ও বাচ্চাদের লালন করে।

ঘুরঘুরি খায়েরি বাংলাদেশে বিরল আবাসিক পাখি। চট্টগ্রাম, খুলনা ও সিলেট বিভাগের জলাশয়ে পাওয়া যায়। এ ছাড়াও মালদ্বীপ ছাড়া ভারত উপমহাদেশসহ দক্ষিণ ও পূর্ব এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় এদের বিচরণ আছে। এরা বিশ্বে বিপদমুক্ত হিসেবে বিবেচিত। তবে বাংলাদেশে এদের তথ্য অপ্রতুল।

বাংলা নাম: ‘রাঙ্গা ক্রেক বা ‘ঘুরঘুরি খায়েরি’

ইংরেজি নাম: Ruddy breasted crake

বৈজ্ঞানিক নাম: porzana fusca

লেখক ছবিগুলো রাজশাহীর পদ্মার চর থেকে তুলেছেন


ঢাকা/হাসনাত/তারা

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন