ঢাকা     বুধবার   ০৭ ডিসেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ২৩ ১৪২৯ ||  ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

ডায়রিয়ার টিকা পাবেন ২৩ লাখ মানুষ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:৪২, ১৩ এপ্রিল ২০২২   আপডেট: ১৩:৪৪, ১৩ এপ্রিল ২০২২
ডায়রিয়ার টিকা পাবেন ২৩ লাখ মানুষ

প্রেস ব্রিফিংয়ে বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক ডা. নাজমুল ইসলাম

দেশে ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় তাদের চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছে আইসিডিডিআর'বিসহ সরকারি বেসরকারি হাসপাতালগুলো। ডায়রিয়া মোকাবিলায় রাজধানীর ২৩ লাখ মানুষকে মুখে খাওয়ার কলেরা টিকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। গর্ভবতী নারী ছাড়া ১ বছর বয়স থেকে শুরু করে সব বয়সী মানুষকে এ টিকা দেওয়া হবে। 

বুধবার (১৩ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে দেশের চলমান ডায়রিয়া সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিশেষ প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানানো হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম বলেন, দুই ডোজের এই টিকা কর্মসূচির প্রথম ডোজ দেওয়া হবে মে মাসে। ২৩ লাখ ডোজ টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হবে জুনে।

তিনি বলেন, প্রথম ধাপে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী, দক্ষিণখান, মিরপুর, মোহাম্মদপুর, সবুজবাগ এই পাঁচটি এলাকায় টিকা কার্যক্রম পরিচালিত হবে। 

টিকা গ্রহণের প্রক্রিয়া সম্পর্কে ডা. নাজমুল ইসলাম বলেন, টিকা কার্যক্রম নিয়ে আমরা এখনও কাজ করছি। এই টিকা গ্রহণ করতে হলে আলাদা কোনো নিবন্ধনের প্রয়োজন নেই। নির্দিষ্ট তারিখ ও কেন্দ্র বাছাই হলে সবাইকে জানিয়ে দেওয়া হবে। নিকটস্থ কেন্দ্রে গেলেই যে কেউ টিকা নিতে পারবেন।

হাসপাতালের প্রস্তুতি প্রসঙ্গে এই চিকিৎসক বলেন, ডায়রিয়ায় আক্রান্তদের  প্রয়োজনীয় ওষুধ, মুখে খাওয়ার স্যালাইন, আইভি স্যালাইন, পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট ইত্যাদি চাহিদা অনুয়ায়ী হাসপাতালগুলোতে পাঠানো হচ্ছে। 

সারা দেশে মোট ৪ হাজার ৫২৮টি মেডিকেল টিম কাজ করছে উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, হাসপাতালগুলোতে ৫০০ মিলি ব্যাগ আইভি স্যালাইন মজুত আছে ৩ লাখ ৩০ হাজারটি, ১০০০ মিলি ব্যাগ আছে ৪ লাখ। এছাড়াও ১০০০ মিলি ব্যাগের আরও ১ লাখ ৬০ হাজার আইভি স্যালাইন শিগগিরই ক্রয় করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম বলেন, ডায়রিয়া প্রকোপ রোধে সচেতনতার কোনো বিকল্প নেই। কেউ ডায়রিয়া আক্রান্ত হলে সঙ্গে সঙ্গে খাবার স্যালাইন গ্রহণের পাশাপাশি নিকটস্থ হাসপাতালে যোগাযোগ করতে হবে। 

মেয়া/ মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়