ঢাকা     সোমবার   ০৩ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ১৯ ১৪২৭ ||  ১৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

risingbd-august-banner-970x90

হংকংয়ে নিরাপত্তা আইনে ‘সন্ত্রাসবাদে’ প্রথম একজন অভিযুক্ত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৪:২১, ৪ জুলাই ২০২০  

হংকংয়ে চীনের আরোপ করা নতুন জাতীয় নিরাপত্তা আইনের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ব্যাপক ধরপাকড়ের পর প্রথম একজন ব্যক্তি ‘সন্ত্রাসবাদে’ অভিযুক্ত হলেন। নিরাপত্তা আইন বিরোধী বিক্ষোভে ‘হংকং মুক্ত করো’ স্লোগান লেখা প্রতীক ব্যবহার করায় তার বিরুদ্ধে বিচ্ছিন্নতাবাদ ও সন্ত্রাসবাদের অভিযোগ আনা হয়েছে টং ইং-কিট নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

গত ১ জুলাই চীনের পার্লামেন্টে পাশ হয় বিতর্কিত এই নিরাপত্তা আইন। হংকংয়ে বিচ্ছিন্নতাবাদ, কর্তৃপক্ষকে অবমাননা, সন্ত্রাসবাদ ও জাতীয় নিরাপত্তা বিপন্ন করতে বিদেশি কোনও বাহিনীর সঙ্গে হাত মেলালে বড় ধরনের শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে এই আইনে।

আইন পাস হওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ১০ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বুধবার ২৩ বছরের টং ইং-কিট বিক্ষোভের সময় পুলিশের মধ্যে দিয়ে মোটরসাইকেল চালিয়ে যান এবং তিনি বহন করছিলেন ‘হংকং মুক্ত করো, আমাদের সময়ের বিপ্লব’ স্লোগান লেখা প্রতীক। অনলাইনে এক ভিডিওতে দেখা গেছে, রাস্তায় টং মোটরসাইকেল নিয়ে কয়েকজন পুলিশকে ধাক্কা দেন এবং পরে নিজেও পড়েও যান। তারপর তাকে গ্রেফতার করে হাসপাতালে নেওয়া হয়। এর ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দাখিল করা হয়।

হংকং সরকার জানায়, টং যে স্লোগান লেখা প্রতীক বহন করছিলেন নতুন আইনের আওতায় তার অর্থ বিচ্ছিন্নতাবাদ কিংবা সরকার উৎখাতের দাবি। বিক্ষোভকাদের প্ল্যাকার্ড, টি শার্টেও ছিল নিরাপত্তা আইনবিরোধী স্লোগান এবং দেয়ালেও তা সাঁটিয়ে দেওয়া হচ্ছিল।

গণতন্ত্রপন্থিরা এই আইনকে হংকংয়ের স্বাধীনতার জন্য হুমকি এবং মত প্রকাশের বড় বাধা হিসেবে দেখছেন।



ঢাকা/ফাহিম

রাইজিংবিডি.কম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়