ঢাকা     মঙ্গলবার   ০৪ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ১৯ ১৪২৭ ||  ১৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

risingbd-august-banner-970x90

‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত কুখ্যাত গ্যাংস্টার বিকাশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৩:৩৬, ১০ জুলাই ২০২০  

গত শুক্রবার (৩ জুলাই) কানপুর অভিযানে যাওয়া ৮ পুলিশকে হত্যা করা গ্যাংস্টার বিকাশ দুবে আরেক শুক্রবারে (১০ জুলাই) নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার মধ্যপ্রদেশ থেকে গ্রেপ্তার হয় এই কুখ্যাত খুনি। তারপর আজ তাকে যেই গাড়িতে করে উত্তরপ্রদেশে নিয়ে আসা হচ্ছিল, তা বৃষ্টিতে পিচ্ছিল রাস্তায় উল্টে গেলে পালানোর চেষ্টা করে বিকাশ। ওই সময় পুলিশের চালানো গুলিতে মারা যায় খুন-অপহরণ মামলার আসামী।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, আজ সকালে মধ্যপ্রদেশ থেকে কানপুরে নেওয়া হচ্ছিল বিকাশকে। বৃষ্টির কারণে রাস্তা পিচ্ছিল থাকায় গাড়ি উল্টে যায়। তখন পুলিশের অস্ত্র ছিনিয়ে নিয়ে পালানোর চেষ্টা করে বিকাশ। তাকে আর পালানোর সুযোগ দেয়নি পুলিশ। তার আরও তিন সহযোগীর মতো বন্দুকযুদ্ধে নিহত হতে হয় এই কুখ্যাত গ্যাংস্টারকে। ভিডিওতে স্ট্রেচারে করে তার মৃতদেহ নিয়ে যেতে দেখা গেছে। সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ বলেছে, ‘কানপুরের গ্যাংস্টারের মৃত্যু নিশ্চিত করেছেন চিকিৎসকরা।’

গত শুক্রবার কানপুরে ৮ পুলিশকে হত্যার পর থেকে পলাতক ছিল বিকাশ। পাঁচ দিন ধরে তার খোঁজে চিরুনি অভিযান চালিয়েও নাগাল পাচ্ছিল না পুলিশ। গতকাল মহাকাল মন্দিরে প্রসাদ নিয়ে ঢোকার সময় এক নিরাপত্তারক্ষী তাকে চিনতে পারে এবং তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

 

পুলিশ হত্যার পর কানপুরে নিজের গ্রাম থেকে হরিয়ানার ফরিদাবাদে যায় বিকাশ। সেখানে পুলিশ অভিযান চালানোর কিছুক্ষণ আগে হোটেল থেকে পালিয়ে যায় এই খুনি। তারপর রাজস্থানের কোটা গিয়ে সেখান থেকে মধ্যপ্রদেশে অবস্থায় নেয় বিকাশ। বিনা বাধায় কীভাবে দেড় হাজার কিলোমিটারের লম্বা পথ পাড়ি দিলো তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

এই গ্যাংস্টারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে নাকি আত্মসমর্পণ করেছে তা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। অবশ্য পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা মোহিত আগারওয়াল আত্মসমর্পণের কথা উড়িয়ে দিয়েছেন, ‘আমরা তার অনেক সহযোগীকে ধরেছিলাম এবং কেউ কেউ নিহত হয়েছে। তাই আমরা নিশ্চিত যে জীবন বাঁচাতে সে পালিয়ে বেড়াচ্ছিল।’

দুই সহযোগী দুটি পৃথক বন্দুকযুদ্ধে নিহত হওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে গ্রেপ্তার হয় বিকাশ। এর ২৪ ঘণ্টা না যেতেই একই পরিণতি হলো তার।

এর আগে বিকাশের বাড়িতে ব্যাপক তল্লাশি চালায় উত্তরপ্রদেশ প্রশাসন। কানপুর অভিযানের ব্যাপারে তাকে তথ্য ফাঁস করে দেওয়ার অভিযোগে দুই পুলিশ সদস্যকে গ্রেপ্তার এবং স্থানীয় ৬০ পুলিশকে বদলি করা হয়। লক্ষ্ণৌতে তার স্ত্রী ও সন্তানদের আটক করে গত সন্ধ্যায় পুলিশের জিম্মায় নেওয়া হয়।

ঢাকা/ফাহিম

রাইজিংবিডি.কম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়