ঢাকা     রোববার   ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ১২ ১৪২৭ ||  ০৯ সফর ১৪৪২

করোনা থেকে সুস্থতার পরও চিকিৎসা ব্যয় হাজার কোটি ডলার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:০২, ৩ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
করোনা থেকে সুস্থতার পরও চিকিৎসা ব্যয় হাজার কোটি ডলার

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সিতে গলব্লাডারের অপারেশনের পর গত মার্চের শেষ দিকে আবারও অসুস্থ হয়ে পড়েন ৭২ বছরের লরা গ্রস। তার গলা, মাথা ও চোখে ব্যথা অনুভব হচ্ছিল, মাংসপেশি ও হাড়ের জোড়াগুলোতে কামড়াতো এবং তার কাছে সবকিছু ধোঁয়াশার মতো লাগতো। ক্লিনিক্যাল টেস্টের পর দেখা গেলো, তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

চার মাস পেরিয়ে গেছে। লরার কোভিড-১৯ এর টেস্ট রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। তবে তার শরীরে উপসর্গগুলো রয়েই গেছে।

লরা বলেন, ‘এপ্রিল থেকে আমি মাথাব্যথা অনুভব করছি। আমার দেহের তাপমাত্রা কমে যাওয়ার প্রবণতা কখনোই বন্ধ হয়নি।’

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, গবেষণায় দেখা গেছে, কোভিড-১৯ থেকে সুস্থতার পরও আক্রান্ত ব্যক্তিরা শারীরিক নতুন জটিলতার শিকার হচ্ছেন। এসব জটিলতা মাসের পর মাস কিংবা বছর থাকতে পারে। এর ফলে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিকে সুস্থতার জন্য দীর্ঘমেয়াদে অর্থ ব্যয় করা লাগতে পারে বলে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন।

সিটি ইউনিভার্সিটি অব নিউ ইয়র্কের পাবলিক স্কুল অব হেলথ জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের ২০ শতাংশ মানুষ যদি ভাইরাসের সংক্রমণের শিকার হয় তাহলে দীর্ঘমেয়াদি স্বাস্থ্য জটিলতার কারণে এক বছরে তাদের পেছনে হাসপাতাল খরচ হবে অন্তত পাঁচ হাজার কোটি ডলার। আর টিকা ছাড়া মোট জনগোষ্ঠীর ৮০ শতাংশ যদি সংক্রমণের শিকার হয় তাহলে এই ব্যয় ২০ হাজার ৪০০ কোটি ডলারে দাঁড়াবে।

একাধিক চিকিৎসক ও অর্থনীতিবিদ জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন ও ইতালির মতো কয়েকটি দেশ এই দীর্ঘমেয়াদি স্বাস্থ্য সমস্যাকে ‘কোভিড পরবর্তী উপসর্গ’ বিবেচনা যায় কিনা সেই বিষয়টি ভাবছে। 

যুক্তরাষ্ট্র ও ইতালির হাসপাতালগুলোতে ইতোমধ্যে এই ধরনের রোগীদের সেবার জন্য পৃথক বিভাগ খোলা হয়েছে।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, কোভিড-১৯ হৃৎপিন্ড, ফুসফুস ও কিডনিসহ মানবদেহের একাধিক অঙ্গের ক্ষতি করে। দেহের এই অঙ্গগুলোর চিকিৎসা ব্যয় সবদেশেই অনেক বেশি। এগুলো অবস্থা পর্যবেক্ষণে নিয়মিত স্ক্যান ও আল্ট্রাসনোগ্রাম করাতে হয়। 

সিটি ইউনিভার্সিটি অব নিউ ইয়র্কের পাবলিক স্কুল অব হেলথ জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রে কোভিড-১৯ থেকে সুস্থতার পরবর্তী শারীরিক জটিলতার চিকিৎসায় যুক্তরাষ্ট্রে এক জন রোগীর বছরে গড়ে চার হাজার  মার্কিন ডলার খরচ হবে। অবশ্য এই ব্যয়ের মধ্যে হৃৎপিন্ড ও কিডনি জটিলতার চিকিৎসা ব্যয় ধরা হয়নি। আবার কোভিড-১৯ থেকে সুস্থতার পর যাদের হাসপাতালে চিকিৎসার প্রয়োজন পড়বে না তাদেরও প্রাথমিক পর্যায়ের অসুস্থতার চিকিৎসায় এক হাজার ডলার খরচ হবে বছরে।
 

ঢাকা/শাহেদ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়