ঢাকা     রোববার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ৫ ১৪২৭ ||  ০২ সফর ১৪৪২

ফ্রান্সের শাসনে ফিরতে চায় লেবানন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:৫১, ৭ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
ফ্রান্সের শাসনে ফিরতে চায় লেবানন

ফ্রান্সের শাসনাধীনে ফিরে যেতে একটি দরখাস্তে স্বাক্ষর করেছে লেবাননের প্রায় ৬০ হাজার মানুষ। রাজধানী বৈরুতে রাসায়নিক বিস্ফোরণের পর এই দরখাস্তে স্বাক্ষর করা হয়েছে বলে শুক্রবার জানিয়েছে মিডল ইস্ট মনিটর।

মঙ্গলবার বৈরুত বন্দরে রক্ষিত দুই হাজার ৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে নিহত হয়েছে অন্তত ১৩৭ জন এবং আহত হয়েছে পাঁচ হাজারের বেশি মানুষ। বিস্ফোরণের প্রচণ্ডতায় নগরীর অর্ধেকই প্রায় ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে। বিস্ফোরকের ব্যাপারে সরকারকে সতর্ক করার পরও কর্মকর্তারা কোনো উদ্যোগ নেয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে। দেশটিতে চলমান রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সংকটের কারণে দুর্নীতি বাসা বেঁধেছে। এর জন্য ক্ষমতাসীন শাসকদের অন্তর্কোন্দলকে দায়ী করা হচ্ছে।

দরখাস্তে বলা হয়েছে, ‘লেবাননের কর্মকর্তারা স্পষ্টত দেখিয়েছেন তারা দেশের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এবং দেশকে পরিচালনা করতে ব্যর্থ। ব্যর্থ ব্যবস্থা, দুর্নীতি, সন্ত্রাসবাদ ও মিলিশিয়ারা দেশকে অন্তিম মুহূর্তে নিয়ে গেছে। আমরা বিশ্বাস করি স্বচ্ছ ও টেকসই সরকার ব্যবস্থার জন্য লেবাননের আবারও ফরাসি শাসনের আওতায় চলে যাওয়া উচিত।’ 

এই দরখাস্তে স্বাক্ষর সংগ্রহের এক দিন আগে বৃহস্পতিবার বৈরুতের অবস্থা পর্যবেক্ষণে লেবানন সফরে গিয়েছিলেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রন। এ সময় অনেকে ক্ষোভে ফেটে পড়ে এবং প্রকাশে লেবানন সরকারের নিন্দা জানায়।

প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পর লেবাননকে নিজেদের শাসনাধীনে নিয়ে আসে ফ্রান্স। ১৯৪৬ সালে দেশটিকে সেনা প্রত্যাহার করে নেয় ফরাসি সরকার।

ঢাকা/শাহেদ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়