ঢাকা     সোমবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ৬ ১৪২৭ ||  ০৩ সফর ১৪৪২

দ. কোরিয়ায় বন্যা-ভূমিধসে মৃত্যু বেড়ে ৩০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:২৭, ৯ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
দ. কোরিয়ায় বন্যা-ভূমিধসে মৃত্যু বেড়ে ৩০

বন্যায় সবচেয়ে ক্ষতি হয়েছে দক্ষিণাঞ্চলের।

দক্ষিণ কোরিয়ায় ৪৬ দিনের ভারী বর্ষণে সৃষ্ট বন্যা ও ভূমিধসে অন্তত ৩০ জনের মুত্য হয়েছে, এখনও নিখোঁজ ১২ জন। রোববার (৯ আগস্ট) রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ইয়োনহাপ এক প্রতিবেদনে জানায়, সাত বছরের ইতিহাসে দেশের দীর্ঘতম বর্ষা মৌসুমের কারণে প্রায় ৬ হাজার মানুষ ঘরবাড়ি ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন।

কোরীয় উপদ্বীপের দক্ষিণ অংশে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে বলছে ইয়োনহাপ। দক্ষিণ কোরিয়ার কেন্দ্রীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের বরাত দিয়ে তারা জানিয়েছে, এই দুযোর্গে অন্তত ৮ জন আহত হয়েছেন।

রাজধানী সিউল থেকে ৮৫ কিলোমিটার দূরে চুনচেওনের উইয়াম বাঁধের তিনটি নৌকাডুবিতে নিহতদের এই তালিকায় যুক্ত করা হয়নি। একে নৌদুর্ঘটনা উল্লেখ করা হয়েছে, যাতে মৃত্যু হয়েছে তিনজনের এবং নিখোঁজও তিনজন।

১১টি প্রদেশ ও শহর থেকে পাঁচ হাজার ৯শর বেশি মানুষ তাদের ঘরবাড়ি ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন এবং দুর্যোগের পূর্বাভাস সতর্কতার কারণে প্রায় চার হাজার ৬০০ জন অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্রে রয়েছেন। ৯ হাজার ৩০০ হেক্টর কৃষিজমি তলিয়ে গেছে। এছাড়া সাড়ে ৯ হাজার ঘরবাড়ির ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে ইয়োনহাপ।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলেছে, শনিবার (৮ আগস্ট) উপদ্বীপের দক্ষিণ অংশের সিওমজিন নদীর একশ মিটার পাড় ভেঙে গেছে। নদীর আশেপাশে থাকা পাঁচশ জনকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ায় এর আগে সবচেয়ে লম্বা বর্ষা মৌসুম ছিল ২০১৩ সালে ৪৯ দিনের। বর্তমান আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে, এবার তা আরও লম্বা হবে। একই সঙ্গে মরার উপর খাঁড়ার ঘা হয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় জাংমি। কোরীয় উপদ্বীপের দক্ষিণাঞ্চলে এটি সোমবার (১০ আগস্ট) আঘাত করতে পারে বলে আশঙ্কা, যা বন্যাদুর্গত অঞ্চলে আরও বৃষ্টি বাড়াতে পারে।

ঢাকা/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়