ঢাকা     সোমবার   ০৪ জুলাই ২০২২ ||  আষাঢ় ২০ ১৪২৯ ||  ০৩ জিলহজ ১৪৪৩

রোগী ৫০০, শয্যা মাত্র ৫

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:২৯, ২৩ জুন ২০২২  
রোগী ৫০০, শয্যা মাত্র ৫

হাসপাতালে বেডের সংখ্যা মাত্র পাঁচটি, কিন্তু রোগী এসেছে ৫০০। এই পরিস্থিতিতেই চিকিৎসা দিতে হচ্ছে আফগানিস্তানে ভূমিকম্পে আহত ব্যক্তিদের।

আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলীয় জেলা গায়ানের ছোট হাসপাতালটির কর্মকর্তা মুহাম্মদ গুল বলেন, ‘ক্লিনিকের সবগুলো কক্ষ ধ্বংস হয়ে গেছে।’

তিনি জানান, একটি হেলিকপ্টার পাকতিকা প্রদেশের প্রত্যন্ত জেলা থেকে কয়েক জন রোগীকে চিকিৎসার জন্য শহরে নিয়ে গিয়েছিল। তাদের ক্লিনিকের দু'জন চিকিৎসক একটি অস্থায়ী আউটডোর ক্লিনিক পরিচালনা করছেন। তারা এমন লোকদের চিকিৎসা দিচ্ছেন যাদের আর কোথাও যাওয়ার জায়গা নেই। বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য জেনারেটরেও তেল রয়েছে সীমিত। কিন্তু হাসপাতালে আসা হতাহতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

মুহাম্মদ গুল বলেন, ‘এমন কয়েক ডজন লোক আছে যাদের অবিলম্বে চিকিৎসা সহায়তা প্রয়োজন। আমার মনে হয় না, তারা রাত পর্যন্ত টিকে থাকতে পারবে।’

মঙ্গলবার আফগানিস্তানে ৫ দশমিক ৯ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানে। এ ঘটনায় মৃতের সংখ্যা এক হাজার ছাড়িয়ে গেছে। আশঙ্কা করা হচ্ছে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়বে এবং তা দেড় হাজার ছাড়িয়ে যাবে। ভূমিকম্পে সবচেয়ে বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে পাকতিকা প্রদেশের গায়ান জেলায়। এখানে এখনও বহু লোক ধ্বংসস্তুপের নিচে চাপা পড়ে আছে।

গত বছরের আগস্টে তালেবান আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখলের পর আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা দেশটি থেকে তাদের কার্যক্রম গুটিয়ে নিয়েছে। এর ফলে দেশটিতে অর্থনৈতিক সঙ্কটের পাশাপাশি ওষুধপত্রের অভাবও দেখা দিয়েছে।

মঙ্গলবার যখন তালেবানের ভারপ্রাপ্ত জেলা গভর্নর গায়ান সফর করেন, তখন স্থানীয়রা তাকে দেখে চিৎকার করে চলে যেতে বলেছিল বলে পার্শ্ববর্তী একটি জেলার একজন স্বেচ্ছাসেবক বিবিসিকে জানিয়েছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই স্বেচ্ছাসেবক বলেন, ‘তালেবানরা এই দুর্যোগ মোকাবেলায় সক্ষম নয়। সেখানে কোনো ব্যবস্থা নেই। আমরা আন্তর্জাতিক সাহায্যের জন্য আশা করতে পারি না। বিশ্ব আফগানিস্তানকে ভুলে গেছে।’

ঢাকা/শাহেদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়