Breaking News
সিটি নির্বাচন ৩০ জানুয়ারির পরিবর্তে ১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে
X
ঢাকা, রবিবার, ৫ মাঘ ১৪২৬, ১৯ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

আপন ফুপাই ধর্ষক!

আরিফুল ইসলাম সাব্বির : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৮-২৫ ১০:১৪:৪৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৮-২৫ ১০:২৬:৪৯ পিএম

সাভার সংবাদদাতা :  সাভারের ধামরাইয়ে আপন ফুপার হাতে ধর্ষিত হওয়ার অভিযোগ তুলেছেন ৯ম শ্রেণী পড়ুয়া এক শিক্ষার্থী।

রোববার (২৫ আগস্ট) এ ঘটনায় ধামরাই থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী। অভিযুক্ত ফুপার নাম আলমগীর(৫০)। সে একটি প্রাইভেটকারের ড্রাইভার।

ধর্ষিতা সুয়াপুর ইউনিয়নের সুয়াপুর গ্রামের হারুন মিয়ার মেয়ে। অভিযুক্ত আলমগীর একই ইউনিয়নের ঘোড়াকান্দার হায়দার আলীর ছেলে।

অভিযোগকারী বলেন, গত বুধবার প্রেমিক নাহিদের সঙ্গে বিয়ে দেয়ার নাম করে ফুপা তাকে নিজের বাড়িতে ডেকে নেয়। পরে ঘরের দরজা বন্ধ করে জোর করে ধর্ষণ করে তাকে।

ধর্ষিতার খালা রাবেয়া বেগম বলেন, ঘটনার পর আলমগীর ভুক্তভোগীকে বাড়িতে পৌছে দেয়। দুদিন পর ভুক্তভোগী এই ঘটনা তার মাকে জানায়।

ভুক্তভোগীর মা বলেন, ঘটনা শোনার পর আমরা এলাকার চেয়ারম্যান, মেম্বারকে জানাই। তারা মিমাংসার কথা বলেন। আলমগীরকে আটক করা হলেও সুয়াপুর ইউনিয়নের মেম্বার প্রভাত মালো তাকে ছেড়ে দেয়।

এবিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত মেম্বার প্রভাত মালো বলেন, ঘটনাটা জানি। দুইজনকেই আমি চিনি। আমরা মিমাংসার কথা বলেছিলাম। তবে তারা চলে যায়। পরে আলমগীরও নিজের বাসায় চলে যায়।

সুয়াপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান সোরহাব বলেন, ঘটনাটা কয়েকদিন আগে ঘটে। পরে আমার কাছে অভিযোগ জানায়। আত্মীয় স্বজনের মধ্যে ঘটনা বলে আমরা মিমাংসার কথা বলি। তবে মেয়ের পক্ষ কোন মীমাংসায় যায়নি।

আলমগীরকে পুলিশে সোপর্দ না করার বিষয়ে তিনি বলেন, এটা আমাদের এখতিয়ার না।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ধামরাই থানার উপ-পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ বলেন, খবর পেয়ে অভিযুক্তদের ধরতে যাই। তবে তাদেরকে পাওয়া যায়নি। ভুক্তভোগীরা থানায় এসে লিখিত অভিযোগ করেছেন। আসামীদের ধরার চেষ্টা চলছে।


রাইজিংবিডি/সাভার/২৫ আগস্ট ২০১৯/সাব্বির/নবীন হোসেন