ঢাকা, সোমবার, ১৩ মাঘ ১৪২৬, ২৭ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

জাগৃতি প্রকাশনীর ম্যানেজারসহ তিন জনের সাক্ষ্য

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১২-১০ ৪:৫১:৪৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১২-১০ ৪:৫১:৪৪ পিএম

প্রকাশক ফয়সল আরেফিন দীপন হত্যা মামলায় জাগৃতি প্রকাশনীর ম্যানেজার আলাউদ্দিন মিয়াসহ তিন জন ট্রাইব্যুনালে সাক্ষ্য দিয়েছেন।

মঙ্গলবার ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমানের আদালত সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন। তাদের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আদালত আগামী ২৯ ডিসেম্বর পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের তারিখ ধার্য করেন।

অপর দুই সাক্ষী হলেন- আজিজ সুপার মার্কেটের সভাপতি নাজমুল আহসান এবং উৎস প্রকাশনীর স্বত্ত্বাধিকারী মোস্তফা সেলিম। মামলাটিতে গত ১ ডিসেম্বর দীপনের স্ত্রী রাজিয়া রহমান সাক্ষ্য দেন। এ নিয়ে মামলাটিতে চারজনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ হয়েছে।

আসামি হলেন- বরখাস্তকৃত মেজর সৈয়দ জিয়াউল হক জিয়া ও আকরাম হোসেন ওরফে হাসিব ওরফে আবির ওরফে আদনান ওরফে আবদুল্লাহ, মইনুল হাসান শামীম ওরফে সামির ওরফে ইমরান, আবদুর সবুর সামাদ ওরফে সুজন ওরফে রাজু ওরফে স্বাদ, খাইরুল ইসলাম ওরফে জামিল ওরফে জিসান, আবু সিদ্দিক সোহেল ওরফে সাকিব ওরফে সাজিদ ওরফে শাহাব, মোজাম্মেল হুসাইন ওরফে সায়মন ওরফে শাহরিয়ার ও শেখ আবদুল্লাহ ওরফে জুবায়ের ওরফে জায়েদ ওরফে জাবেদ ওরফে আবু ওমায়ের।

ফয়সল আরেফিন দীপনকে ২০১৫ সালের ৩১ অক্টোবর শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেটে জাগৃতি প্রকাশনীর কার্যালয়ে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। একই দিন লালমাটিয়ায় শুদ্ধস্বর প্রকাশনীর কার্যালয়ে ঢুকে এর স্বত্বাধিকারী আহমেদুর রশীদ টুটুল, লেখক রণদীপম বসু ও প্রকৌশলী আবদুর রহমানকে দুর্বৃত্তরা কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যার চেষ্টা করে।

ফয়সল আরেফিন দীপনকে হত্যার পর ওই দিনই তার স্ত্রী রাজিয়া রহমান শাহবাগ থানায় হত্যা মামলা করেন। এ মামলায় গত বছরের ১৫ নভেম্বর ৮ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ।

জিয়া ও আকরাম হোসেন পলাতক থাকায় গত ১৯ মার্চ একই ট্রাইব্যুনাল তাদের বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি করেন। এরপর গত ১৬ মে তাদের সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ দেয়া হয়। গত ১৩ অক্টোবর আট আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন আদালত।

ঢাকা/মামুন/সাইফ