ঢাকা     শুক্রবার   ০৭ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ২৩ ১৪২৭ ||  ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

রিজেন্ট কলেজ-বিশ্ববিদ‌্যালয়ে জাল সনদ দিতেন সাহেদ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:৩৫, ১৪ জুলাই ২০২০  

শুধু করোনা টেস্টের জাল সনদ নয়, রিজেন্ট কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে জাল সনদও বিক্রি করতেন রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ। এভাবে তিনি বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন বলে জানতে পেরেছে র‌্যাব।

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) দুপুরে র‌্যাবের সদর দপ্তরে সংবাদ সম্মেলনে সংস্থাটির আইন ও গণমাধ্যাম শাখার পরিচালক আশিক বিল্লাহ বলেন, ‘সাহেদের বিভিন্ন প্রতারণার অভিযোগ পাচ্ছি। রিজেন্ট কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনেক জাল সার্টিফিকেট বিক্রি করেছেন সাহেদ। তিনি কী পরিমাণ সার্টিফিকেট বিক্রি করেছেন সে বিষয়ে তদন্ত চলছে। এসব সার্টিফিকেট কারা কী কারণে কিনেছেন তারও খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। এসব তথ্য আমাদের ভাবিয়ে তুলেছে।’

রাইজিংবিডির প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘সাহেদ প্রতারক জগতেরও আইডল। এই প্রতারক যেন পালাতে না পারে, সেজন্য সারা দেশে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। সম্ভাব্য স্থানে আমরা প্রতিনিয়ত অভিযান চালাচ্ছি।’

উত্তরা ও টঙ্গীতে সাহেদের মালিকাধীন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় আছে। এসব প্রতিষ্ঠানে পড়ালেখার মান খারাপ। তাই ছাত্রছাত্রীরা সেখানে ভর্তি হতে চান না। কিন্তু সাহেদ তার জন, পরিচতজনসহ বিভিন্ন ব্যক্তিকে ভয় দেখিয়ে তাদের ছেলেমেয়েদের ভর্তি করাতেন। ছাত্রছাত্রীদের এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে পোশাক, বই, খাতা কিনতে বাধ্য করা হতো। বিক্রি করা হতো জাল সনদ। জাল সনদ তৈরি হতো সাহেদের উত্তরার কার্যালয়ে।

সম্প্রতি করোনা টেস্টের নামে প্রতারণার অভিযোগে রাজধানীর উত্তরা ও মিরপুরে সাহেদের মালিকানাধীন রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযান চালায় র‌্যাব। এর পর থেকেই সাহেদের সব প্রতারণার তথ্য বেরিয়ে আসছে। ওই অভিযানের পর থেকে আত্মগোপনে আছেন সাহেদ।


ঢাকা/মাকসুদ/রফিক

রাইজিংবিডি.কম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়