RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ২০ অক্টোবর ২০২০ ||  কার্তিক ৫ ১৪২৭ ||  ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

বিকাশে প্রতারণার হাতিয়ার ক্যাশ রেজিস্ট্রারের নম্বর

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:১৬, ১ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ২১:১৫, ১ অক্টোবর ২০২০
বিকাশে প্রতারণার হাতিয়ার ক্যাশ রেজিস্ট্রারের নম্বর

প্রতীকী ছবি

প্রতারকরা বিভিন্ন বিকাশের দোকানের ক্যাশ রেজিস্ট্রারের নম্বরসম্বলিত কাগজের ছবি তুলে হ্যাকারদের কাছে পাঠিয়ে দেয়। পরে সুকৌশলে বিকাশের পিন নম্বর জেনে নিয়ে অ‌্যাকাউন্টের টাকা হাতিয়ে নেয় হ‌্যাকাররা। 

বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের উপ-কমিশনার (ডিসি) মশিউর রহমান এসব তথ‌্য জানান।

তিনি বলেন, ‘এ ধরনের প্রতারণার সঙ্গে কারা জড়িত, কোথায় বসে এসব করা হচ্ছে, তার বিস্তারিত তথ্য আমরা পেয়েছি। তদন্তের স্বার্থেই এখন বিস্তারিত বলা যাচ্ছে না।’

গোয়েন্দা সূত্রে জানা গেছে, প্রতারকরা কৌশলে বিকাশের দোকানের ক‌্যাশ ইন রেজিস্ট্রার খাতার পাতার ছবি তুলে ফরিদপুরের মধুখালী থানাধীন ডুমাইন গ্রামে থাকা মূল হ্যাকারদের কাছে পাঠিয়ে দেয়। প্রতিটি পাতা ২০০ থেকে ৩০০ টাকায় বিক্রি হয়। হ্যাকাররা এসব নম্বর দেখে বিকাশের দোকানদার সেজে বিভিন্ন অপারেটরের সিম থেকে কল দিয়ে বলে, তার দোকান থেকে ভুলে কিছু টাকা ওই নম্বরে চলে গেছে। হ্যাকার বিশেষ অ্যাপস ব্যবহার করে বিকাশ কল সেন্টারের নম্বরের মতো নম্বর (+০১৬২৪৭) থেকে কল করে। বিভিন্ন কৌশলে তারা পিন নম্বর জেনে নেয়। পরে হ্যাকাররা বিকাশ অ্যাকাউন্টের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের হাতে নেয়। পরে হ‌্যাক করা অ‌্যাকাউন্টের টাকা বিভিন্ন এজেন্ট পয়েন্টে পাঠিয়ে মনোনীত ব্যক্তিদের দ্বারা সে টাকা ক্যাশ আউট করে নেয়। এজন্য ওই ব্যক্তিকে প্রতি ১০ হাজারে ১ হাজার টাকা দেওয়া হয়। টাকা ক্যাশ আউট করার পর ওই ব্যক্তি পুনরায় হ্যাকারদের পার্সোনাল বিকাশ অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠায়। মধুখালীর বিভিন্ন ব্যক্তির বিকাশ অ‌্যাকাউন্টে ক‌্যাশ ট্রান্সফার করলে তারা প্রতি হাজারে ৪০০ টাকা করে কমিশন নিয়ে নগদ টাকা দেয় ওই হ‌্যাকারদের।

ঢাকা/মাকসুদ/রফিক

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়