Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৯ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ৩ ১৪২৮ ||  ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

আপাতত কুকুর অপসারণ বন্ধ রাখতে বললেন হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:২৩, ১২ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৬:২৭, ১২ অক্টোবর ২০২০
আপাতত কুকুর অপসারণ বন্ধ রাখতে বললেন হাইকোর্ট

হাইকোর্ট (ফাইল ফটো)

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়রের সঙ্গে বিভিন্ন সংগঠনের চলমান আলোচনা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত কুকুর অপসারণ বন্ধ রাখতে বলেছেন হাইকোর্ট। এ বিষয়ে অ্যাটর্নি জেনারেলকে মেয়রের সঙ্গে আলোচনা করতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে রিট আবেদনের শুনানি এক মাসের জন্য মুলতবি রেখেছেন আদালত।

সোমবার (১২ অক্টোবর) বিচারপতি মো. আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি মোহাম্মদ আলীর হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান খান ও ব্যারিস্টার সাকিব মাহবুব। ডিএসসিসির পক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন।

আদালতে শুনানিকালে আইনজীবীরা জানান, কুকুর অপসারণ নিয়ে বিভিন্ন সংগঠনের সঙ্গে ঢাকা দক্ষিণ সিটি মেয়রের আলোচনা চলছে।

পরে ব্যারিস্টার সাকিব মাহবুব বলেন, ‘কুকুর নিয়ে আলোচনা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত আদালত কুকুর নিধন না করতে মৌখিক আদেশ দিয়েছেন। অ্যাটর্নি জেনারেলকে এ বিষয়ে মেয়রের সঙ্গে কথা বলতে বলেছেন আদালত।’

রাজধানী থেকে বেওয়ারিশ কুকুর স্থানান্তর করতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে গত ১৭ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়।

প্রাণিকল্যাণ সংগঠন ‘অভয়ারণ্য’র সভাপতি রুবাইয়া আহমেদ, পিপলস ফর অ্যানিম্যাল ওয়েলফেয়ারের চেয়ার‌ম্যান রাকিবুল হক এমিল ও অভিনেত্রী জয়া আহসানের পক্ষে ব্যারিস্টার সাকিব মাহবুব এ রিট দায়ের করেন।

রিটে কুকুর স্থানান্তর ও ডাম্প করার বিষয়ে ডিএসসিসির কার্যক্রমের বৈধতা প্রশ্নে রুল জারির আর্জি জানানো হয়েছে। রিটে ডিএসসিসিসহ সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়েছে।

রিট আবেদনে বলা হয়েছে, প্রাণিকল্যাণ আইন-২০১৯ এর ৭ ধারা অনুযায়ী বেওয়ারিশ কুকুরসহ কোনো প্রাণীকে অপসারণ, স্থানান্তর ও ফেলে দেওয়া যাবে না। অথচ অভিযোগ আছে, ডিএসসিসির মৌখিক আদেশে ঢাকা বিশ্ববিদ‌্যালয়ের টিএসসি ও ধানমন্ডি থেকে বেওয়ারিশ কুকুর তুলে নিয়ে মাতুয়াইলে ফেলে দেওয়া হয়েছে।

রিট আবেদনে আরও বলা হয়েছে, ডিএসসিসি কুকুরের সংখ্যা কমানোর জন্য যে অমানবিক প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে তার সফলতার উদাহরণ নেই। এ ধরনের অমানবিক প্রকল্প বন্ধ ও প্রাণিকল্যাণ আইন, ২০১৯ এর অধীনে বিধি প্রণয়নে হাইকোর্টের নির্দেশনা দেওয়া একান্ত প্রয়োজন।

ঢাকা/মেহেদী/রফিক

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়