RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৪ নভেম্বর ২০২০ ||  অগ্রাহায়ণ ১০ ১৪২৭ ||  ০৭ রবিউস সানি ১৪৪২

ওয়াশিকুর হত্যা মামলায় পুনরায় চার্জ গঠনের আবেদন করবে রাষ্ট্রপক্ষ

মামুন খান || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:১৫, ২৬ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১২:৪০, ২৬ অক্টোবর ২০২০
ওয়াশিকুর হত্যা মামলায় পুনরায় চার্জ গঠনের আবেদন করবে রাষ্ট্রপক্ষ

ব্লগার ওয়াশিকুর রহমান বাবু হত্যা মামলার রায় মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর)। ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ মো. রবিউল আলমের আদালতে মামলার রায় ঘোষণার জন্য ধার্য রয়েছে।

এদিন রাষ্ট্রপক্ষ থেকে মামলা উত্তোলন করে পুনরায় চার্জ গঠনের আবেদন করা হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর মোহাম্মাদ সালাহউদ্দিন হাওলাদার।

তিনি বলেন, এটা একটা সেনসেটিভ মামলা। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে মামলায় ৫ আসামির সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ড নিশ্চিত হয় সেজন্য কাজ করেছি। মামলার যুক্তিতর্ক করতে গিয়ে চার্জ গঠনের দুর্বলতা দেখতে পাই। তৎকালীন বিচারক জিয়াউর রহমান আসামিদের বিরুদ্ধে ৩০২ ও ৩৪ ধারায় চার্জ গঠন করেন। সেখানে ১২০ এর বি উপধারা বাদ দেওয়া হয়। এক্ষেত্রে এক আসামির সর্বোচ্চ সাজা নিশ্চিত নাও হতে পারে। এজন্য পুনরায় চার্জ গঠনের আবেদন করবো। আদালত যদি যথাযথ মনে করে আবেদন মঞ্জুর করেন তাহলে মামলার রায়ের তারিখ পিছিয়ে যেতে পারে।  আবার আবেদন নামঞ্জুর হলে রায় হয়েও যেতে পারে।

মামলার বাদী ওয়াশিকুর রহমানের বোনের জামাই মনির হোসেন মাসুদ সাক্ষ্য দেননি।  এক্ষেত্রে আসামিপক্ষ কোনো সুবিধা পাবে কিনা- এমন প্রশ্নে সালাহউদ্দিন হাওলাদার বলেন, বাদী সৌদি আরব আছেন। তাকে সাক্ষী দিতে সমন দেওয়া হয়েছে। বিভিন্নভাবে যোগাযোগের চেষ্টাও করা হয়েছে।  তারপরও তিনি সাক্ষ্য দিতে আদালতে আসেননি। এক্ষেত্রে কোনো সুবিধা পাবেন বলে আমি মনে করি না।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ৩০ মার্চ রাজধানীর তেজগাঁওয়ের বেগুনবাড়ীর দিপীকা মোড়ে ওয়াশিকুর রহমানকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। পালানোর সময় দুই হামলাকারীকে আটক করে এলাকাবাসী। এ ঘটনায় ওয়াশিকুর রহমানের ভগ্নিপতি মনির হোসেন মাসুদ বাদী হয়ে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় মামলা করেন। ২০১৫ সালের ১ সেপ্টেম্বর মামলা তদন্ত করে ৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শক মশিউর রহমান। ২০১৬ সালের ২০ জুলাই ৫ আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন আদালত। মামলাটির বিচার  চলাকালে আদালত চার্জশিটভুক্ত ৪০ সাক্ষীর মধ্যে ২৪ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন।

আসামিরা হলেন- জিকরুল্লাহ ওরফে হাসান, আরিফুল ইসলাম ওরফে মুশফিক ওরফে এরফান এবং সাইফুল ইসলাম ওরফে মানসুর। মাওলানা জুনায়েদ আহম্মেদ ওরফে তাহের ও সাইফুল ইসলাম ওরফে আকরা পলাতক রয়েছেন। কারাগারে থাকা তিন আসামি গত ১০ সেপ্টেম্বর আত্মপক্ষ শুনানিতে নিজেদের নির্দোষ দাবি করে ন্যায়বিচার প্রার্থনা করেন। গত ৪ অক্টোবর মামলাটির যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রায়ের তারিখ ২৭ অক্টোবর ধার্য করেন আদালত।

মামুন/সাইফ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়