Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শুক্রবার   ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ২ ১৪২৮ ||  ০৮ সফর ১৪৪৩

পিয়াসা-মৌয়ের বাসায় রাতে বসতো মাদক ও অসামাজিক কর্মকাণ্ডের আসর

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৫০, ২ আগস্ট ২০২১  
পিয়াসা-মৌয়ের বাসায় রাতে বসতো মাদক ও অসামাজিক কর্মকাণ্ডের আসর

সংঘবদ্ধ ব্ল্যাকমেইল চক্রের সদস্য মডেল ফারিয়া মাহবুব পিয়াসা ও মরিয়ম আক্তার মৌ। তারা অর্থশালী ব‌্যক্তি বা উচ্চবিত্ত পরিবারের সন্তানদের পার্টির নামে বাসায় ডেকে মদ ও ইয়াবা খাইয়ে আপত্তিকর ছবি তুলে ব্ল্যাকমেইল করতো। পিয়াসা ও মৌ রাতে তাদের বাসায় মাদক সেবন এবং অসামাজিক কর্মকাণ্ডের আসর বসাতো বলে অভিযোগ করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

সোমবার (২ আগস্ট) দুপুরে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) যুগ্ম কমিশনার হারুন-অর-রশিদ রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘ওই দুজনের ব্যাপারে আমাদের কাছে অনেক চাঞ্চল্যকর তথ্য আছে। পাশাপাশি, তথ্য-প্রমাণও আছে।  দুজনের বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মদ, ইয়াবা ও সিসা উদ্ধার করা হয়েছে। তারা মূলত রাতের রানি। রাত যত গভীর হয় ততই তাদের কর্মকাণ্ড বাড়ে। দুজনের বাসায় এক প্রকার মিনি বার আছে। বিশেষ করে মোহাম্মদপুর বাবর রোডে মৌয়ের বাসা একটি মিনিবার। এখানে দেশি-বিদেশি সব ধরনের মদ থাকে। পাশাপাশি এখানে বসে ইয়াবা, সিসা সেবন করা যায়। তাদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।’

গোয়েন্দা পুলিশের কাছে তথ্য আছে, পিয়াসা ও মৌয়ের নিয়ন্ত্রণে অর্ধশতাধিক সুন্দরী তরুণী আছে। এসব তরুণীকে দিয়ে তারা অর্থশালী ব‌্যক্তিদের টার্গেট করতো। কৌশলে তাদের বাসায় নিয়ে আসতো। মদ খাইয়ে অচেতন করে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি কিংবা ভিডিও ধারণ করতো। পরে ওই ব্যক্তিরা যদি কথামতো কাজ না করতো, তাহলে ভয় দেখানোর পাশাপাশি ছবি বা ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হতো। এভাবে অনেকের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে পিয়াসা ও মৌ।

গোয়েন্দারা জানতে পেরেছে, দরিদ্র পরিবারের সুন্দরী তরুণী, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া ছাত্রীরা পিয়াসা ও মৌয়ের অপরাধ চক্রের সদস্য। তারা দিনের বেলা লোকচক্ষুর আড়ালে থেকে রাতে সক্রিয় হতো। শুধু এই দুজনের বাসায় নয়, অভিজাত এলাকার আরও কয়েকটি বাসায় গভীর রাত অবধি মাদক সেবনের পাশাপাশি অসামাজিক কার্যকলাপ চলে। এ কারণে গুলশান, বনানী, ধানমন্ডি, বারিধারাসহ বিভিন্ন অভিজাত এলাকায় অনুসন্ধানে নেমেছে গোয়েন্দা পুলিশ। পাশাপাশি, ব্ল্যাকমেইলের শিকার ব‌্যক্তিদের পুলিশের কাছে অভিযোগ জানাতে অনুরোধ করা হয়েছে।

এর আগে রোববার (১ আগস্ট) রাতে রাজধানীর বারিধারার বাসা থেকে পিয়াসা এবং মোহাম্মদপুর থেকে মৌকে গ্রেপ্তার করে গোয়েন্দা পুলিশ। দুটি বাসা থেকেই বিপুল পরিমাণ মদ, ইয়াবা, সিসা ও সিসা সেবনের সরঞ্জাম জব্দ করা হয়।

ঢাকা/মাকসুদ/রফিক

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়