Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ২৭ নভেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৩ ১৪২৮ ||  ২০ রবিউস সানি ১৪৪৩

প্রেমিকের জিহ্বা কর্তন: প্রেমিকাসহ তিন জনের জামিন

নিজস্ব প্রতিবেদক  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:০৮, ২৪ অক্টোবর ২০২১  
প্রেমিকের জিহ্বা কর্তন: প্রেমিকাসহ তিন জনের জামিন

ফাইল ফটো

ঢাকার ধামরাইয়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে বিয়ে না করায় প্রেমিক সাইফুল ইসলামের জিহ্বা ব্লেড দিয়ে কর্তনের মামলায় প্রেমিকা, তার মা ও ভাইকে জামিন দিয়েছেন আদালত। আর তার বাবা সফিকুল ইসলামের রিমান্ড ও জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

রোববার (২৪ অক্টোবর) ঢাকার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শাহজাদী তাহমিদার আদালত এ আদেশ দেন।

জামিন পাওয়া তিন আসামি হলেন প্রেমিকা শারমিন, তার মা আনোয়ারা বেগম ও ভাই ফারুক হোসেন।

এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ধামরাই থানার এসআই তন্ময় সাহা চার আসামিকে আদালতে হাজির করেন। সফিকুল ইসলামের ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন এবং অপর তিন আসামিকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা।

সফিকুল ইসলামের রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন এবং অপর তিন আসামির জামিন আবেদন করেন তাদের আইনজীবী রেজাউল ইসলাম পলাশ।

রাষ্ট্রপক্ষ থেকে জামিনের বিরোধিতা করা হয়।

উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত সফিকুল ইসলামকে কারাগারে প্রেরণ এবং অপর তিন আসামির জামিন মঞ্জুর করেন।

পুলিশ জানায়, ধামরাইয়ের ফড়িঙ্গা গ্রামের শফিকুল ইসলামের মেয়ে শারমিনের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিল সাইফুল ইসলামের। বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে শারমিনের সঙ্গে সাইফুল ইসলাম অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন। এভাবে সময়ক্ষেপণ করতে থাকায় শনিবার সকালে শারমিন আক্তার প্রেমিক সাইফুল ইসলামকে তার বাড়িতে ডেকে নেন। পরে কৌশলে শারমিন ব্লেড দিয়ে প্রেমিক সাইফুল ইসলামের জিহ্বা কেটে ফেলেন।

পুলিশ আরও জানায়, ঘটনার পর শারমিন আক্তারের পরিবারের সদস্যরা সাইফুল ইসলামকে মারধর করেন। এক পর্যায়ে সাইফুল ইসলাম অজ্ঞান হয়ে গেলে শারমিনের পরিবার বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যান। পরে স্থানীয় লোকজন সাইফুলকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ঘটনার পর পুলিশকে ঘটনাস্থলে গিয়ে সাইফুল ইসলামের কেটে রাখা জিহ্বা উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় সাইফুল ইসলামের বাবা রহমত আলী মামলাটি দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর শারমিনসহ চার জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

মামুন/এনএইচ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়